×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২১ জানুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

২৬/১১-র মুম্বই হামলার ক্ষত কোনওদিন ভুলবে না ভারত: মোদী

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি২৬ নভেম্বর ২০২০ ১৫:১৫
২৬ নভেম্বর। ঠিক ১২ বছর আগে এই দিনে আতঙ্কে কেঁপে উঠেছিল গোটা দেশ। এক যুগ কেটে গেলেও, সেই ক্ষত যেন এখনও টাটকা ভারতবাসীর।

২৬ নভেম্বর। ঠিক ১২ বছর আগে এই দিনে আতঙ্কে কেঁপে উঠেছিল গোটা দেশ। এক যুগ কেটে গেলেও, সেই ক্ষত যেন এখনও টাটকা ভারতবাসীর।

২৬ নভেম্বর। ঠিক ১২ বছর আগে এই দিনে আতঙ্কে কেঁপে উঠেছিল গোটা দেশ। এক যুগ কেটে গেলেও, সেই ক্ষত যেন এখনও টাটকা ভারতবাসীর।বৃহস্পতিবার সংবিধান দিবসের ভাষণে সে কথা স্মরণ করিয়ে দিলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। বৃহস্পতিবার ২৬/১১ হামলার পিছনে তিনি সরাসরি দায়ী করেন পাকিস্তানকে। বলেন, ‘‘২০০৮ সালের এই দিনটিতে পাক জঙ্গিরা মুম্বইয়ে হামলা চালায়। সেদিন যাঁরা প্রয়াত হয়েছিলেন, তাঁদের প্রতি শ্রদ্ধা। ভারত সেই ক্ষত কোনও দিনই ভুলতে পারবে না।’’

সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে দেশের লড়াইয়ের কথা আরও একবার তাঁর মুখে শোনা গেল। মোদীর কথায়, ‘‘বর্তমানে ভারত নতুন নীতি নিয়ে সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়াই করছে। নতমস্তকে ভারতের সেই সব নিরাপত্তাকর্মীকে শ্রদ্ধা জানাই, যাঁরা প্রতিনিয়ত সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়াই করে চলেছেন।’’ 

 

Advertisement

বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই ২৬/১১‘ট্রেন্ডিং’ থেকেছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ থেকে তাজ হোটেলের মালিক রতন টাটা, অভিনেতা রাহুল বসু থেকে ক্রিকেটার শ্রেয়স আইয়ার---সকলেই টুইট করেন।

 


অমিত শাহ টুইটে লেখেন, ‘২৬/১১ জঙ্গি হামলায় যাঁদের মৃত্যু হয়েছিল, তাঁদের পরিবার, আত্মীয়, বন্ধুদের প্রতি শ্রদ্ধা ও সমবেদনা জানাই। যাঁরা রুখে দিয়েছিলেন হামলা, সেই সব সাহসী নিরাপত্তাকর্মীকে স্যালুট।’

সেদিন অন্য অনেক জায়গার মতো টাটা গোষ্ঠীর তাজ হোটেলেও ঘাঁটি গেড়েছিল জঙ্গিরা। রতন টাটা বৃহস্পতিবার লিখলেন, ‘আমরা ভুলতে পারিনি। আতঙ্কের কথা মনে আছে।  মনে আছে, সেদিন মুম্বইবাসীর একসঙ্গে লড়াই করার কথাও’। সেই টুইটই শেয়ার করেই শোক জ্ঞাপন করেছেন কংগ্রেস নেতা রাজীব শুক্ল,‘সত্যি! সবার এই দিনটির কথা মনে পড়ে’।

আরও পড়ুন: প্রতিষেধকে ধাক্কা! অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকায় ত্রুটি, স্বীকার করল সংস্থা

শুধু রাজনীতিবিদরাই নন, বিভিন্ন মহল থেকেই এই দিনটিকে স্মরণ করা হয়েছে। অভিনেতা রাহুল বসুর টুইট, ‘যেমন অতিমারির মধ্যে বেঁচে থাকার এক ভয়ানক অভিজ্ঞতা মানুষের মনে রয়েছে, তেমনই প্রতিটি মুম্বইবাসীর মনে এক যোগ সূত্র তৈরি করেছে এই ২৬/১১ দিনটি। একটি ঘটনার এক যুগ কেটে গিয়েছে, আরেকটিও (অতিমারি) নিশ্চিত কেটে যাবে’। ক্রিকেটার শ্রেয়স আইয়ারের বক্তব্য, ‘২৬/১১ হামলার ভয়ঙ্কর রাত থেকে যাঁরা বাঁচিয়েছেন, সেই সব হিরোদের শ্রদ্ধা জানাই। যাঁদের আত্মীয় পরিজনেরা সেদিন প্রাণ হারিয়েছিলেন, তাঁদের জন্য রইল সমবেদনা’।

আরও পড়ুন:  লভ জিহাদ: সাবালক মহিলা যার সঙ্গে যেখানে খুশি থাকতে পারেন, বলল দিল্লি হাইকোর্ট

Advertisement