Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৮ নভেম্বর ২০২১ ই-পেপার

স্কুল খোলা নিয়ে চিন্তায় আদালত

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি ১৪ ডিসেম্বর ২০২০ ০৩:১০
—প্রতীকী চিত্র।

—প্রতীকী চিত্র।

অতিমারি সত্ত্বেও উত্তরপ্রদেশ সরকারের স্কুল খোলার সিদ্ধান্তে দুশ্চিন্তা প্রকাশ করল এলাহাবাদ হাইকোর্ট। ফের স্কুল বন্ধের নির্দেশ না দিলেও আদালত জানিয়েছেন, প্রত্যেক শিক্ষক ও পড়ুয়া যাতে কোভিড সংক্রান্ত স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলে তা নজর রাখতে হবে রাজ্য সরকারকে। বিচারপতি সিদ্ধার্থ বর্মা ও অজিত কুমারের বেঞ্চ বলেছে, ‘‘আমাদের জানানো হয়েছে যে ৭ ডিসেম্বর থেকে উত্তরপ্রদেশে স্কুল ও কলেজ খুলে যাবে। এটাই এখন নজর রাখার বিষয় যে প্রত্যেক শিক্ষক ও ছাত্রছাত্রী যেন বিধি মেনে চলে। ছোট ছোট পড়ুয়াদের ক্ষেত্রে অনেক সময়েই নির্দেশিকা অনুসরণ না করার প্রবণতা দেখা যেতে পারে।’’

শুধু শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা নিয়েই নয়, অতিমারির আবহে কী ভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ‘মাঘ মেলা’ হবে তা নিয়েও সরকারকে প্রশ্ন করেছে হাইকোর্ট। বার্ষিক ওই অনুষ্ঠানের সময়ে ঘাটগুলিতে পারস্পরিক দূরত্ববিধি মেনে কী ভাবে পুণ্যার্থীরা স্নান করবেন তা নিয়েও বিস্তারিত তথ্য চেয়েছে আদালত। সংক্রমণ রুখতে সম্প্রতি আদালতের হস্তক্ষেপ চেয়ে জনস্বার্থ মামলা হয়েছিল এলাহাবাদ হাইকোর্টে। তারই শুনানি চলাকালীন লখনউ, গৌতমবুদ্ধ নগর, গাজ়িয়াবাদ ও মেরঠের পুলিশকর্তারা হলফনামা দিয়ে জানিয়েছেন, মেলার সময়ে বিধি মানা হচ্ছে কি না তা দেখতে রাস্তায় ২ কিলোমিটার বাদে বাদে পুলিশকর্মী মোতায়েন করা হবে। এই কাজের জন্য কত কর্মী মোতায়েন করা হবে তা জানাতে বলে আর একটি হলফনামা জমা দেওয়ার কথা বলা হয়েছে।

এ দিকে, আগামী কাল থেকে দশম ও দ্বাদশ শ্রেণির পড়ুয়াদের জন্য স্কুল খুলে যাচ্ছে হরিয়ানায়। নবম ও একাদশ শ্রেণির পড়ুয়াদের স্কুল চালু হবে ২১ ডিসেম্বর থেকে। ক্লাসে যোগ দেওয়ার আগে প্রত্যেক পড়ুয়াকে স্বাস্থ্য রিপোর্ট জমা দিতে হবে। সরকারি নির্দেশিকা অনুযায়ী, সেই রিপোর্ট ৪ দিনের বেশি পুরোনো হলে চলবে না। সেই রিপোর্ট ছাড়াও অভিভাবকদের কাছ থেকে লিখিত অনুমতি নিয়ে আসতে হবে পড়ুয়াদের। স্কুলে ঢোকার আগে প্রত্যেক পড়ুয়া, শিক্ষক ও অশিক্ষক কর্মীর তাপমাত্রা পরীক্ষা করা হবে। কারও জ্বর থাকলে তাঁকে ঢোকার অনুমতি দেওয়া হবে না।

Advertisement

আরও পড়ুন: আরএসএস দফতরে ফাইল হাতে প্রাক্তন ডিজি, সাক্ষাৎ ভাগবতের সঙ্গে​

আরও পড়ুন: রাজ্যে ক্ষমতায় এলে ৭৫ লক্ষ চাকরি, প্রতিশ্রুতি বিজেপির, ‘ভাঁওতা’ বলছে তৃণমূল-বাম-কং​

এ দিকে, পুণের সিরাম ইনস্টিটিউটের সিইও আদার পুনাওয়ালা সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, জরুরি ছাড়পত্র পেলে জানুয়ারির শুরুতেই দেশে কোভিডের টিকাকরণ শুরু হয়ে যাবে। স্বাস্থ্য মন্ত্রকের রিপোর্ট অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে নতুন করে ৩০ হাজার ২৫৪ জন আক্রান্ত হওয়ায় মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৯৮ লক্ষ ৫৭ হাজার। কেরলে ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্তের সংখ্যা রাজ্যগুলির মধ্যে সর্বাধিক, ৫ হাজার ৯৪৯। মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়নের আশ্বাস, এক বার টিকা এসে গেলে বিনামূল্যে প্রত্যেক রাজ্যবাসীকে টিকা দেওয়ার ব্যবস্থা করবে সরকার। একই দাবি করা হয়েছে বিজেপি-শাসিত বিহার, মধ্যপ্রদেশে।

আরও পড়ুন

Advertisement