Advertisement
১৯ জুন ২০২৪
Mixed Vaccine

COVID-19 Vaccine: ২ বার ২ ধরনের টিকা কোভিডের বিরুদ্ধে বেশি কাজ করতে পারে, মত এমস প্রধানের

জার্মানির চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা ম্যার্কেল নিজে দু’বার দু’রকমের টিকা নিয়েছেন। আমেরিকা এবং ব্রিটেনেও মিশ্র টিকায় ছাড় দেওয়া হয়েছে।

মিশ্র টিকা নিয়ে চিন্তাভাবনা চলছে।

মিশ্র টিকা নিয়ে চিন্তাভাবনা চলছে। —ফাইল চিত্র।

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি শেষ আপডেট: ২৬ জুন ২০২১ ১২:৪৩
Share: Save:

করোনার প্রকোপ ঠেকাতে মিশ্র টিকার উপর জোর দিচ্ছে একাধিক দেশ। ভারতেও সেই সম্ভাবনা উড়িয়ে দিলে‌ন না অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অব মেডিক্যাল সায়েন্সেস (এমস) প্রধান রণদীপ গুলেরিয়া। তিনি জানিয়েছেন, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর ক্ষেত্রে মিশ্র টিকা ব্যবহার করা যেতেই পারে। তবে এ নিয়ে আরও পরীক্ষানিরীক্ষা প্রয়োজন।

করোনার ডেল্টা এবং ডেল্টা প্লাস প্রজাতি নিয়ে নতুন করে উদ্বেগ দেখা দিয়েছে। সেই সঙ্গে করোনার তৃতীয় ঢেউ ঘিরে সিঁদুরে মেঘ দেখছেন চিকিৎসকরা। তাতেই মিশ্র টিকা ব্যবহারের পক্ষে সওয়াল করছেন অনেকে। গুলেরিয়ার কথায়, ‘‘প্রাথমিক পরীক্ষায় এমন উপায়ের কথা উঠে এসেছে। তবে আরও তথ্য প্রয়োজন। কোন দু’টি মিশ্রণ কার্যকরী হতে পারে, তা নিয়ে গবেষণা হওয়া প্রয়োজন। তবে হ্যাঁ, মিশ্র টিকা কার্যকর হওয়ার সম্ভাবনা জোরালোই।’’

ভারতে করোনার ডেল্টা এবং ডেল্টা প্লাস প্রজাতি নিয়ে উদ্বেগের অন্যতম কারণ হিসেবে দুই টিকার মধ্যবর্তী বর্ধিত ব্যবধানও দুশ্চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। গত মাসেই কেন্দ্রীয় সরকার দুই টিকার ব্যবধান বাড়িয়ে ১২ থেকে ১৬ সপ্তাহ করেছে, আগে যা ছয় থেকে আট সপ্তাহ ছিল। কোভিশিল্ড এবং কোভ্যাকসিন, দুই টিকার ক্ষেত্রেই এই নিয়ম প্রযোজ্য বলে জানিয়েছে কেন্দ্র।

এমস প্রধান গুলেরিয়াও এ নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। যাঁরা একটি মাত্র টিকা নিয়েছেন, করোনার ডেল্টা প্রজাতি বিরুদ্ধে তাঁদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা যথেষ্ট না-ও হতে পারে। গবেষণাতেই দেখা গিয়েছে, একটি টিকা নিলে করোনার বিরুদ্ধে ৩৩ শতাংশ নিরাপত্তা মেলে। দু’টি টিকার ক্ষেত্রে ৯০ শতাংশ নিরাপত্তা পাওয়া যায়। গুলেরিয়ার কথায়, ‘‘এটা সত্যিই উদ্বেগের যে, ডেল্টা প্রজাতির বিরুদ্ধে প্রাথমিক টাকাকরণ হয়ত যথেষ্ট ন। নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে দ্রুত তাড়াতাড়ি সম্ভব বুস্টার ডোজ দেওয়া যায়, ততই ভাল।’’

অতিমারি ঠেকাতে জার্মান সরকার ইতিমধ্যেই মিশ্র টিকার পক্ষে সওয়াল করেছে। দেশের চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা ম্যার্কেল নিজে প্রথমে অ্যাস্ট্রাজেনেকার তৈরি টিকা নেন। দ্বিতীয় টিকার ক্ষেত্রে আমেরিকার মডার্নার তৈরি টিকা বেছে নেন তিনি। আমেরিকায় ২৮ দিনের ব্যবধানে ফাইজার এবং মডার্নার মিশ্র টিকা দেওয়া হচ্ছে। ব্রিটেনেও বিশেষ বিশেষ ক্ষেত্রে মিশ্র টিকায় ছাড় দেওয়া হয়েছে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE