×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

০৭ মার্চ ২০২১ ই-পেপার

জন্মের শংসাপত্র নেই ৬১ বিধায়কের, দিল্লি বিধানসভায় এনআরসি-এনপিআর বিরোধী প্রস্তাব পাশ

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি ১৩ মার্চ ২০২০ ২১:২১
শুক্রবার বিধানসভায় কেজরীবাল। ছবি: টুইটার থেকে সংগৃহীত।

শুক্রবার বিধানসভায় কেজরীবাল। ছবি: টুইটার থেকে সংগৃহীত।

ক্ষমতায় এসেই বিতর্কিত জাতীয় নাগরিক পঞ্জি (এনআরসি) এবং জাতীয় জনসংখ্যা পঞ্জি (এনপিআর)-র বিরুদ্ধে প্রস্তাব পাশ করল অরবিন্দ কেজরীবালের সরকার। শুক্রবার দিল্লি বিধানসভায় অধিবেশন চলাকালীন কেজরীবাল কার কার কাছে জন্মের শংসাপত্র রয়েছে জানতে চান। তাতে ৭০ জন বিধায়কের মধ্যে ৬১ জনই জানান, তাঁদের কাছে কোনও শংসাপত্র নেই। তার পরেই সংখ্যাগরিষ্ঠের সমর্থনে ওই প্রস্তাব পাশ হয়ে যায়। দিল্লিতে দু’টির কোনওটি কার্যকর হতে দেবেন না বলে জানিয়ে দেন কেজরীবাল।

এ দিন অধিবেশনের শুরুতেই এনআরসি এবং এনপিআর প্রসঙ্গ ওঠে। সেই নিয়ে আলোচনা চলাকালীন কেজরীবাল বলেন, ‘‘আমার জন্মের কোনও শংসাপত্র নেই। আমার স্ত্রীরও নেই জন্মের শংসাপত্র। জন্মের শংসাপত্র না থাকায় আমার মন্ত্রিসভার সদস্যরাও নিজেদের নাগরিকত্ব প্রমাণ করতে পারবেন না। তাহলে কি আমাদেরও ডিটেনশন শিবিরে পাঠানো হবে?’’

এর পরেই ৭০ আসনের দিল্লি বিধানসভায় কার কার কাছে জন্মের শংসাপত্র রয়েছে জানতে চান কেজরীবাল। জবাবে মাত্র ৯ বিধায়কই হাত তোলেন। তাতেই ওই প্রস্তাব পাশ হয়ে যায়। বলা হয়, এনআরসি এবং এনপিআর ঘিরে একটা আতঙ্কের পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে। তাই দিল্লিতে দু’টির একটিও কার্যকর হবে না।

Advertisement
Advertisement