Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৩ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

মধ্যপ্রদেশে ‘সুখী’ মন্ত্রীই এখন চরম ‘দুঃখী’!

সংবাদ সংস্থা
ভোপাল ১৩ ডিসেম্বর ২০১৮ ১২:২৫
ভারতের প্রথম হ্যাপিনেস মন্ত্রী লাল সিংহ আর্য। গ্রাফিক: শৌভিক দেবনাথ।

ভারতের প্রথম হ্যাপিনেস মন্ত্রী লাল সিংহ আর্য। গ্রাফিক: শৌভিক দেবনাথ।

যাঁর উপরে সকলের মুখে হাসি ফোটানোর দায়িত্ব, তিনিই এখন ঘোর বিষাদে!বিপদেও। খুনের মামলা নিয়ে জেরবার তো ছিলেনই, এ বার মন্ত্রিত্বই যেতে চলেছে তাঁর! মধ্যপ্রদেশের নির্বাচনের ফলাফল বিড়ম্বনায় ফেলেছে তাঁকে।

লাল সিংহ আর্য। মধ্যপ্রদেশের হ্যাপিনেস মন্ত্রী। ২০১৭ সালে মধ্যপ্রদেশের বিদায়ী মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিংহ চৌহান এই মন্ত্রক গড়ে তুলেছিলেন। হ্যাপিনেস মন্ত্রী হওয়ার পরই ২০০৯ সালে এক কংগ্রেস নেতার খুনের ঘটনায় তাঁকে গ্রেফতার করে পুলিশ। সেই মামলা এখনও চলছে। তার মধ্যেই মধ্যপ্রদেশ নির্বাচনের ফল তাঁর বিরুদ্ধে যায়। কংগ্রেস প্রার্থীর কাছে পরাজিত হন লাল সিংহ। রাজ্যের মোট ২৩০ আসনের মধ্যে কংগ্রেস পায় ১১৪টি আসন। এসপি এবং বিএসপি-র সমর্থনে সরকার গড়তে চলেছে সরকার। ফলে মন্ত্রিত্ব যেতে চলেছে ভারতের প্রথম এবং একমাত্র হ্যাপিনেস মন্ত্রী লাল সিংহের।

হ্যাপিনেস মন্ত্রক কী?

Advertisement

প্রত্যেকের মুখে হাসি ফোটানোর জন্য ভারতে প্রথম হ্যাপিনেস মন্ত্রক গড়ে তোলা হয় মধ্যপ্রদেশে। আর তার মন্ত্রী ছিলেন লাল সিংহ আর্য। ভুটানের গ্রস ন্যাশনাল হ্যাপিনেস ইনডেক্সের ধারণার উপর ভিত্তি করেই এই মন্ত্রক গড়ে তোলা হয়েছিল। সংযুক্ত আরব আমিরশাহীতেও হ্যাপিনেস মন্ত্রী রয়েছে।

আরও পড়ুন: মধ্যপ্রদেশে কমল নাথ, রাজস্থানে মুখ্যমন্ত্রী গহলৌত, বড় দায়িত্বে সিন্ধিয়া-পাইলট?

কী কাজ ছিল এই মন্ত্রকের?

বিপুল সংখ্যায় কৃষক আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে মধ্যপ্রদেশে। এমনকি, ২০১৬ সালে ২৭ স্কুল পড়ুয়ার আত্মহত্যার ঘটনাও সামনে আসে। আর আত্মহত্যার অন্যতম কারণ মানসিক চাপ। মানসিক চাপমুক্ত করাই ছিল এই মন্ত্রকের মূল লক্ষ্য। মধ্যপ্রদেশের বিদায়ী মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিংহ চৌহান ২০১৭ সালে এই মন্ত্রক গড়ে তুলেছিলেন। যোগ ব্যায়াম, মেডিটেশন, আধ্যাত্মিকতা গড়ে তোলা এবং সিনিয়র সিটিজেনদের জন্য বিনামূল্যে তীর্থযাত্রার ব্যবস্থা করার ছিল এই মন্ত্রকের উদ্দেশ্যে।

আরও পড়ুন: গো হারা হারলেন রাজস্থানের সেই ‘গো-পালন মন্ত্রী’

ঠিক একইভাবে ভারতের একমাত্র গরু বিষয়ক মন্ত্রীও বদলে যেতে চলেছে। গত বারের বিধানসভা নির্বাচনের পর মন্ত্রিসভা গঠনের সময় আস্ত এই গরু বিষয়ক মন্ত্রক বানিয়ে ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী বসুন্ধরা রাজে সিন্ধিয়া। মন্ত্রকের দায়িত্ব পান ওটারাম দেওয়াসি। রাজস্থানে গবাদি পশুদের অনাহারে এবং বিষক্রিয়ায় মৃত্যু রোধ করতে নতুন এই মন্ত্রক গড়ে তুলেছিল বিজেপি সরকার। মঙ্গলবার ভোটের ফল বেরোতেই দেখা যায়, গো-পালন মন্ত্রী ওটারাম দেওয়াসিই কার্যত গো-হারা গেরে গিয়েছেন এক নির্দল প্রার্থীর কাছে। সে রাজ্যের ফলও বিজেপির বিরুদ্ধে গিয়েছে।



Tags:

আরও পড়ুন

Advertisement