Advertisement
২৮ নভেম্বর ২০২২
কোভ্যাকসিন নেওয়া উচিত নয় কাদের, জানাল পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নিয়ে উদ্বিগ্ন ভারত বায়োটেক
Covaxine

কাদের এড়িয়ে চলা উচিত কোভ্যাকসিন, দেশ জুড়ে উদ্বেগের মধ্যে জানাল ভারত বায়োটেক

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম হলে, অ্যালার্জির সমস্যা থাকলে, কোভ্যাকসিন এড়িয়ে চলাই উচিত বলে জানানো হয়েছে।

জরুরি ভিত্তিতে টিকাকরণ চলছে দেশে।

জরুরি ভিত্তিতে টিকাকরণ চলছে দেশে। —ফাইল চিত্র।

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি শেষ আপডেট: ১৯ জানুয়ারি ২০২১ ১২:৩২
Share: Save:

পরীক্ষা সম্পূর্ণ হওয়ার আগে ছাড়পত্র পাওয়া নিয়ে সমালোচনা চলছেই। তার মধ্যেও ভারত বায়োটেকের তৈরি করোনা প্রতিষেধক কোভ্যাকসিন ব্যবহার করা হচ্ছে টিকাকরণে। কিন্তু দেশের বিভিন্ন প্রান্তে টিকাপ্রাপকদের শরীরে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দেওয়ার পর এ বার সতর্কতা জারি করল ভারত বায়োটেক। কার কার এই প্রতিষেধক এড়িয়ে চলা উচিত তা নিয়ে একটি ফ্যাক্ট শিট বা তথ্যপত্র প্রকাশ করেছে তারা।

Advertisement

সোমবার ওই তথ্যপত্রটি প্রকাশ করে ভারত বায়োটেক। তাতে বলা হয়, যাঁদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম অথবা এমন কোনও ওষুধ খাচ্ছেন, যার প্রভাব শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার উপর পড়ছে, যাঁদের অ্যালার্জির সমস্যা রয়েছে, সেই সমস্ত মানুষের কোভ্যাকসিন এড়িয়ে চলাই উচিত। গর্ভবতী মহিলা, যাঁরা শিশুদের স্তন্যপান করান, তাঁদেরও এই প্রতিষেধক এড়িয়ে চলার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

শুধু তাই নয়, জ্বর হলে, রক্তপাতের সমস্যা থাকলে, রক্ত সঞ্চালন স্বাভাবিক রাখার ওষুধ খেলে অথবা অন্য কোনও গুরুতর শারীরিক সমস্যা থাকলেও কোভ্যাকসিন নেওয়া নিরাপদ না-ও হতে পারে বলে জানানো হয়েছে ভারত বায়োটেকের তরফে। আগে অন্য কোনও করোনা প্রতিষেধক নিয়ে থাকলে কোভ্যাকসিন নেওয়া শ্রেয় নয় বলেও সতর্ক করা হয়েছে সাধারণ মানুষকে।

গ্রাফিক: শৌভিক দেবনাথ।

অ্যালার্জি রয়েছে যাঁদের, কোভ্যাকসিন নিলে শ্বাসকষ্ট বেড়ে যেতে পারে বলে সতর্ক করেছে ভারত বায়োটেক। তারা জানিয়েছে, শ্বাসকষ্টের পাশাপাশি টিকাপ্রাপকের মুখ ও গলা ফুলে যেতে পারে। সারা শরীরে দেখা দিতে পারে ফুসকুড়ি। শরীর দুর্বল হয়ে পড়বে। যখন তখন মাথা ঘুরে পড়ে যেতেও পারেন তাঁরা। প্রতিষেধক গ্রহণের পর শরীরে কী কী প্রতিক্রিয়া দেখা দিচ্ছে, তাঁরা কী ওষুধ খাচ্ছেন এবং কী ধরনের অ্যালার্জি রয়েছে, সাধারণ মানুষকে তা জানাতেও আর্জি জানিয়েছে ভারত বায়োটেক।

Advertisement

এ ছাড়াও, সারা শরীরে অসম্ভব যন্ত্রণা, অঙ্গপ্রত্যঙ্গ ফুলে যাওয়া, চুলকুনি, মাথাব্যথা, জ্বর, বমি বমি ভাবও কোভ্যাকসিনের প্রতিষেধকের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার মধ্যে পড়ে বলে জানানো হয়েছে। প্রতিষেধকের দ্বিতীয় ডোজ গ্রহণের পরে টানা তিন মাস তাই টিকাপ্রাপকদের শরীরে কী পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দেয়, তা পর্যবেক্ষণ করা হবে। টিকা নেওয়ার পর যদি কেউ গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েন, সে ক্ষেত্রে সরকারি হাসপাতাল এবং সরকার অনুমোদিত হাসপাতাল এবং চিকিৎসাকেন্দ্রে তাঁর চিকিৎসার দায়িত্ব নেবে ওই সংস্থা। প্রয়োজনে ক্ষতিপূরণও দেবে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.