Advertisement
০৭ ডিসেম্বর ২০২২

বচসায় গুলি স্বামীকে

মাঝরাস্তায় গাড়ির মধ্যে পরপর তিন বার গুলির শব্দ। ঘাবড়ে গিয়েছিলেন পথচারীরা। পরের মুহূর্তেই তাঁরা দেখলেন, রক্তাক্ত অবস্থায় এক ব্যক্তি টলতে টলতে গাড়ি থেকে নেমে একটা বাসে উঠে পড়লেন।

সংবাদ সংস্থা
বেঙ্গালুরু শেষ আপডেট: ০৭ মে ২০১৭ ০৩:০২
Share: Save:

মাঝরাস্তায় গাড়ির মধ্যে পরপর তিন বার গুলির শব্দ। ঘাবড়ে গিয়েছিলেন পথচারীরা। পরের মুহূর্তেই তাঁরা দেখলেন, রক্তাক্ত অবস্থায় এক ব্যক্তি টলতে টলতে গাড়ি থেকে নেমে একটা বাসে উঠে পড়লেন। তাঁকে ধাওয়া করে ওই বাসে উঠলেন এক মহিলা। হাতে পিস্তল। তবে যাত্রীদের তৎপরতায় ফের গুলি চালানোর আগেই ধরা পড়লেন তিনি। শুক্রবার বেঙ্গালুরুর বীরসান্দ্র এলাকায় ঘটনাটি ঘটেছে।

Advertisement

পুলিশ জানিয়েছে, হামলাকারী ওই মহিলার নাম হমসা। বয়স ৪৮। গুরুতর জখম ব্যক্তি তাঁরই স্বামী, ৫৩ বছরের সাইরাম এমআর। তলপেটে গভীর ক্ষত নিয়ে সাইরাম এখন হাসপাতালে ভর্তি। চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন, তাঁর অবস্থা সঙ্কটজনক।

কিন্তু কেন আচমকা স্বামীকে গুলি করলেন হমসা? পিস্তল পেলেন কোথায়? মহিলাকে জেরা করে পুলিশ জেনেছে, সাইরাম-হমসার কুড়ি বছরের দাম্পত্য আদৌ মধুর ছিল না। অশান্তি লেগেই থাকত। ঘটনার দিন গাড়ি চালিয়ে তামিলনাড়ুর হসুর থেকে বেঙ্গালুরু ফিরছিলেন ওই দম্পতি। পথে গাড়ি থামিয়ে এক রেস্তোরাঁয় তাঁরা দুপুরের খাওয়া-দাওয়া সারেন। মদ্যপানও করেন। সেখানেই দু’জনের বচসা বাধে। তার জেরে হমসাকে আঘাত করেন সাইরাম। ক্ষিপ্ত হমসা গাড়িতে ঢুকেই গুলি করেন স্বামীকে। পুলিশ জানিয়েছে, পিস্তলটি সাইরামের। নিরাপত্তা সংস্থার মালিক সাইরাম নিজের নিরাপত্তার জন্য গাড়িতেই পিস্তল রাখতেন।

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.