Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৭ জুলাই ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

সিএএ-প্রতিবাদে হাঁটার জের, কোচিতে নরওয়ের পর্যটককে জিজ্ঞাসাবাদ

চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত না হলেও এফআরআরও প্রাথমিক ভাবে মনে করছে, ওই নাগরিক ভিসার নিয়মকানুন ভঙ্গ করেছেন।

সংবাদ সংস্থা
কোচি ২৭ ডিসেম্বর ২০১৯ ১৩:৪৩
Save
Something isn't right! Please refresh.
কোচিতে জেন্নে মেট্টে জাহানসন। ছবি: ফেসবুক থেকে নেওয়া

কোচিতে জেন্নে মেট্টে জাহানসন। ছবি: ফেসবুক থেকে নেওয়া

Popup Close

নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন (সিএএ) এবং জাতীয় নাগরিকপঞ্জি (এনআরসি) বিরোধী প্রতিবাদে অংশ নেওয়ায় জার্মান ছাত্রকে বাড়ি পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছিল। এ বার নরওয়ের পর্যটক জেন্নে মেট্টে জাহানসনেরও কি একই পরিণতি হতে চলেছে? তেমন সম্ভাবনাই জোরদার হচ্ছে।

কেরলের কোচিতে বেড়াতে আসা ৭৪ বছরের ওই পর্যটক প্রতিবাদ-মিছিলে যোগ দিয়েছিলেন এবং তার ছবি ফেসবুকে পোস্ট করার পরেই তাঁকে ডেকে পাঠিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে ফরেনার্স রিজিওনাল রেজিস্ট্রেশন অফিস (এফআরআরও)। চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত না হলেও এফআরআরও প্রাথমিক ভাবে মনে করছে, ওই নাগরিক ভিসার নিয়মকানুন ভঙ্গ করেছেন। ফলে তাঁকেও দেশে ফেরত পাঠিয়ে দেওয়া হতে পারে বলে মনে করছে সংশ্লিষ্ট মহল। অন্য দিকে গোটা ঘটনায় হতাশ বহুবার ভারতে বেড়াতে আসা জান্নে মেট্টে জোহানসন নামে ওই পর্যটক।

গত ২৩ ডিসেম্বর সোমবার এর্নাকুলাম থেকে কোচি পর্যন্ত সিএএ-এনআরসির প্রতিবাদে একটি পদযাত্রা হয়েছিল। লেখক, কবি-সাহিত্যিক, বিদ্বজ্জনরা সেই মিছিলে অংশ নিয়েছিলেন। মিছিলে হেঁটেছিলেন জেন্নে মেট্টে জাহানসনও। শান্তিপূর্ণ সেই মছিলের পর ওই দিনই ফেসবুকে এই নিয়ে তিনি একটি পোস্টে লেখেন, ‘‘এর্নাকুলামের গাঁধী সার্কেল থেকে শুরু কোচির ভাস্কো দা গামা স্কোয়ার পর্যন্ত মিছিলে পতাকা-সহ স্লোগান দিয়েছিলাম। প্রতিবাদীরা গান গাইছিলেন। যথেষ্ট সংঘবদ্ধ ছিল সেই লং মার্চ। ... কোনও গন্ডগোল ছিল না। প্রতিবাদীরা শুধু স্লোগান দিচ্ছিলেন তাঁদের কথা জানাতে। পদযাত্রার পুরো সময় পুলিশও ছিল সাহায্যকারীর ভূমিকায়।’’

Advertisement

জেন্নে মেট্টে জাহানসনের সেই পোস্ট।

এফআরআরও সূত্রে খবর, এই পোস্টের পরেই তাঁর সম্পর্কে খোঁজ খবর শুরু হয়। তার পর বৃহস্পতিবার তাঁকে ডেকে পাঠানো হয় সংস্থার কোচির দফতরে। ওই প্রতিবাদ পদযাত্রায় কেন অংশ নিয়েছিলেন তিনি, সেই সব বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় তাঁকে। কোচির এফআরআরও অফিসার অনুপ কৃষ্ণন বলেছেন, ‘‘ভিসার নিয়মকানুন লঙ্ঘিত হয়েছে কি না, সেটা আমরা তদন্ত করে দেখছি। নির্দিষ্ট কোনও পদক্ষেপ করা হবে কি না, এমনটা এখনই বলার মতো সময় হয়নি। তদন্ত চলছে।’’

এই ঘটনার পরেই শুক্রবার ফের ফেসবুকে একটি পোস্টে জান্নে মেট্টে জোহানসন লিখেছেন, ‘‘ভারতে বেড়ানোর সময় ফেসবুকে আমি আর বেশি কিছু পোস্ট করব না। আমাদের এই যাত্রায় আমার সঙ্গে থাকার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ। ...তবে আমি ঠিক আছি। এখনও কোচিতেই আছি। সময় হলেই দিল্লির উদ্দেশে রওনা দেব।’’

মূলত ভারতে আসা বিদেশিদের কার্যকলাপ এবং তাঁদের ভিসা সংক্রান্ত বিষয়ের উপর নজর রাখা এবং সাহায্যের কাজ করে এফআরআরও। এই দফতর কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের অধীন। জানা গিয়েছে, ৭৪ বছরের জেন্না মেট্টে জোহানসন ২০১৪ সাল থেকে নিয়মিত ব্যবধানে ভারতে বেড়াতে আসেন। এ বার তিনি অক্টোবরে এসেছিলেন। তাঁর টুরিস্ট ভিসার মেয়াদ শেষ হবে আগামী বছরের মার্চে।

গত সোমবারই জ্যাকব লিন্ডেনথল নামে চেন্নাই আইআইটি-র এক জার্মান স্নাতকোত্তর পড়ুয়াকে দেশে ফেরত পাঠিয়ে দিয়েছে এফআরআরও। ক্যাম্পাসের মধ্যেই সিএএ-এনআরসি বিরোধী প্রতিবাদে শামিল হয়েছিলেন তিনি। তাঁর বিরুদ্ধেও ভিসা নীতিভঙ্গের অভিযোগ উঠেছিল। এ বার নরওয়ের এই পর্যটকের বিরুদ্ধেও একই ব্যবস্থা নেওয়া হতে পারে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্ট মহলের অনেকেই।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement