Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২০ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

ফের চিনের বিরুদ্ধে ‘ডিজিটাল স্ট্রাইক’, নিষিদ্ধ আরও ৪৭ চিনা অ্যাপ

নিজস্ব সংবাদদাতা
নয়াদিল্লি ২৮ জুলাই ২০২০ ০৩:৫১
প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

ফ্রান্স থেকে রাফাল রওনা দেওয়ার দিনেই খবরে ফের চিনের বিরুদ্ধে ‘ডিজিটাল স্ট্রাইক’।

লাদাখে সংঘাতের পরেই টিকটক-সহ সে দেশের ৫৯টি চিনা অ্যাপ ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল কেন্দ্র। বলা হয়েছিল, দেশের সার্বভৌমত্ব এবং নিরাপত্তা রক্ষার স্বার্থেই এই সিদ্ধান্ত। সংশ্লিষ্ট সূত্রকে উদ্ধৃত করে সংবাদ সংস্থা পিটিআইয়ের খবর, শুক্রবার ফের ৪৭টি অ্যাপ নিষিদ্ধ করার পথে হেঁটেছে মোদী সরকার। যদিও তেমন কোনও সরকারি ঘোষণা শোনা যায়নি এখনও।

গত বার অ্যাপ বাতিলের খবর দিয়ে বিবৃতি দিয়েছিল কেন্দ্র। সূত্রের খবর, এ বার বাতিলের তালিকায় রয়েছে বেশ কিছু ‘ক্লোন অ্যাপ’— টিকটক-লাইট, হেলো-লাইট, শেয়ারইট-লাইট, বিগো লাইভ-লাইট ইত্যাদি। অভিযোগ, আগের বার মূল অ্যাপ বাতিল হওয়ার পরেও কিছুটা কম বৈশিষ্ট্যসম্পন্ন (লেস ফিচার্ড) এই অ্যাপগুলি দিয়েই ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছিল চিনা সংস্থাগুলি। ফলে, ‘প্রতিপক্ষ পড়শি মুলুকের’ হাতে তথ্য (ডেটা) যাওয়ার যে আশঙ্কা থেকে আগের অ্যাপগুলি বাতিলের সিদ্ধান্ত, তা থেকে যাচ্ছিল পুরোদমে।

Advertisement

আরও পড়ুন: ‘পাশে আছি, পাশে থাকুন’, মোদীকে বার্তা মমতার

আরও পড়ুন: টিকা-কূটনীতি, পরিকাঠামো নিয়েও ভাবনা

রাজধানীতে জোর জল্পনা, এই মুহূর্তে মোদী সরকারের আতস কাচের তলায় আড়াইশোরও বেশি অ্যাপ। তার মধ্যে রয়েছে মোবাইল-গেমের অ্যাপ পাবজি, ই-কমার্স প্ল্যাটফর্ম আলি-এক্সপ্রেস, আর এক গেম-অ্যাপ লুডো ওয়ার্ল্ড ইত্যাদি। পাবজি-তে লগ্নি রয়েছে চিনা তথ্যপ্রযুক্তি বহুজাতিক টেনসেন্টের। আলি-এক্সপ্রেসের মালিকানা চিনা ই-কমার্স সংস্থা আলিবাবার হাতে। যার চিনা ধনকুবের মালিক জ্যাক মা-কে সম্প্রতি ভারতের আদালত সমন পাঠিয়েছে বলে খবর। নজরে থাকা গানের অ্যাপ রেসোর রাশ আবার বাইটড্যান্সের হাতে। সম্প্রতি যাদের টিকটক নিষিদ্ধ করেছে কেন্দ্র।

সংবাদমাধ্যমকে উদ্ধৃত করে স্বদেশি জাগরণ মঞ্চের অশ্বিনী মহাজনের অভিযোগ, জ্যাক মা-কে সমন পাঠিয়েছে আদালত। যাঁর সংস্থার বাতিল হওয়া অ্যাপ ইউসি ব্রাউজার ও ইউসি নিউজে চিন সম্পর্কে কোনও অপ্রীতিকর খবর থাকত না। উল্টে বিভিন্ন ভুয়ো খবর মারফত চেষ্টা হত ভারতে অস্থিরতা তৈরির।

কিন্তু বিরোধীদের প্রশ্ন, তা হলে কিছু দিন আগে পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রী টিকটক ব্যবহার করতেন কেন? তাঁরা মনে করিয়ে দিচ্ছেন, বছর দু’য়েক আগে সন্তানের পড়াশোনা নিয়ে উদ্বিগ্ন এক মা শুধু বলেছিলেন, “পড়াশোনায় মন কম বসার কারণ মোবাইলের গেম।’’ মঞ্চে উপস্থিত প্রধানমন্ত্রী হাসিমুখে পাল্টা প্রশ্ন ছুড়েছিলেন, “পাবজি হ্যায় কিয়া?” প্রশ্ন উঠছে, এই সমস্ত অ্যাপ যে দেশের নিরাপত্তার পক্ষে কত বিপজ্জনক, তা কি চিনের সঙ্গে সংঘাতের আগে ঠাহর করতে পারেনি তাঁর সরকার?

আরও পড়ুন

Advertisement