×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৮ জানুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

প্রয়াত আহমেদ পটেলের স্থানে কংগ্রেস কোষাধ্যক্ষ পবন বনশল

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি২৮ নভেম্বর ২০২০ ১৯:১৪
পবনকুমার বনশল— ফাইল চিত্র।

পবনকুমার বনশল— ফাইল চিত্র।

আহমেদ পটেলের প্রয়াণের পরেই কংগ্রেসের পরবর্তী কোষাধ্যক্ষ নিয়ে দলের অন্দরে জল্পনা শুরু হয়েছিল। শনিবার কংগ্রেসের তরফে প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পবনকুমার বনশলকে ওই পদে নিয়োগের কথা জানানো হয়েছে। এইআইসিসি জানিয়েছে, কংগ্রেস সভানেত্রী সনিয়া গাঁধী দলেন অন্তর্বর্তীকালীন কোষাধ্যক্ষ হিসেবে বনশলকে মনোনীত করেছেন।

৭২ বছরের বনশল ১৯৯৯ থেকে ২০১৪ পর্যন্ত চণ্ডীগড়ের সাংসদ ছিলেন। ৪ বার লোকসভা ভোটে জেতার পাশাপাশি এক বার পঞ্জাব থেকে রাজ্যসভাতেও নির্বাচিত হয়েছিলেন তিনি। পঞ্জাব প্রদেশ যুব কংগ্রেসের প্রাক্তন সভাপতি বনশল দ্বিতীয় ইউপিএ সরকারে জলসম্পদ উন্নয়ন, সংসদীয় এবং রেলমন্ত্রীর দায়িত্বে ছিলেন।

নয়া দায়িত্ব পাওয়ার পরে বনশল শনিবার বলেন, ‘‘কংগ্রেস সভানেত্রী সনিয়াজি এবং রাহুলজিকে আমার কৃতজ্ঞতা জানাই। তাঁরা যে দায়িত্ব আমাকে দিয়েছেন, সর্বশক্তি দিয়ে তা পালনের চেষ্টা করব।’’

Advertisement

আরও পড়ুন: করোনা আবহে অযোধ্যায় রামের ‘বরযাত্রা’ বাতিল করল ভিএইচপি

২০১৩ সালের মে মাসে বনশলের ভাগ্নে বিজয় সিংলার নাম দুর্নীতির মামলায় জড়িয়ে পড়ায় রেলমন্ত্রীর পদ থেকে ইস্তফা দেন তিনি। সিবিআই-এর অভিযোগ ছিল, ঘুষের বিনিময়ে রেলের আধিকারিকদের পদন্নোতি এবং ভাল ‘পোস্টিং’- এর ব্যবস্থা করতেন বনশলের ভাগ্নে।

আরও পড়ুন: খেজুরি উত্তপ্ত, তৃণমূলের ৬ অফিস ভাঙচুর, ‘দখল’ নিল বিজেপি

বনশল অতীতে এআইসিসি-র মুখপাত্র এবং গবেষণা সেলের প্রধানের দায়িত্ব পালন করেছেন। কংগ্রেসের একটি সূত্র জানাচ্ছে, শিল্প ও বণিক মহলের একাংশের সঙ্গে তাঁর দীর্ঘদিনের সুসম্পর্ক রয়েছে। সে কারণেই ৬ বছর ক্ষমতার বাইরে থাকা কংগ্রেসের তহবিল সংগ্রহের গুরুদায়িত্ব তাঁর কাঁধে তুলে দিয়েছেন সভানেত্রী সনিয়া গাঁধী।

Advertisement