Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৫ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

Congress: নগণ্য সহায়ক মূল্য বৃদ্ধি গমে, সরব কংগ্রেস

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ০৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ ০৯:১২
প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

প্রতি কেজিতে গমের ন্যূনতম সহায়ক মূল্য বাড়ল মাত্র ৪০ পয়সা। গত এক দশকে এত কম হারে গমের দাম বাড়েনি। বিরোধী দল কংগ্রেস এই ঘোষণাকে চাষিদের সঙ্গে মোদী সরকারের প্রতারণা আখ্যা দিয়েছে।

আজ কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায় আগামী রবি মরসুমের ফসলের ন্যূনতম সহায়ক মূল্য বা এমএসপি নিয়ে সিদ্ধান্ত হয়েছে। প্রতি সপ্তাহের মতো আজও কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার বৈঠকের পরে মোদী সরকারের তিন মন্ত্রী সাংবাদিক বৈঠক করেছেন। কিন্তু তাঁরা রবি ফসলের এমএসপি-র সিদ্ধান্ত ঘোষণাই করেননি। পরে সরকারি বিবৃতিতে তা জানানো হয়েছে। দেখা গিয়েছে, গমের দাম গত মরসুমের তুলনায় মাত্র ২ শতাংশ বেড়েছে। সরকারের অন্দরমহলের খবর, এ নিয়ে প্রশ্নের মুখে পড়তে হবে বলেই কেন্দ্রীয় মন্ত্রীরা সাংবাদিক বৈঠকে এমএসপি নিয়ে উচ্চবাচ্য করেনি।

তিন কৃষি আইনের বিরুদ্ধে পঞ্জাব, হরিয়ানা, পশ্চিম উত্তরপ্রদেশের কৃষক আন্দোলনকারীরা নতুন করে সক্রিয় হয়ে উঠেছেন। কৃষকদের ক্ষোভ প্রশমিত করতে মোদী সরকার আসন্ন রবি ফসলের মরসুমে গমের দাম বাড়ায় কি না, সে দিকে নজর ছিল। কিন্তু মন্ত্রিসভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, প্রতি কুইন্টালে গমের এমএসপি ১৯৭৫ টাকা থেকে মাত্র ৪০ টাকা বেড়ে ২০১৫ টাকা হয়েছে। অর্থাৎ প্রতি কেজিতে বৃদ্ধি মাত্র ৪০ পয়সা। গত মরসুমের তুলনায় মাত্র ২.০৩ শতাংশ দাম বেড়েছে। ২০১০-১১-র পরে গত দশ বছরে এত কম হারে গমের দাম বাড়েনি। কংগ্রেসের অন্যতম মুখপাত্র রণদীপ সিংহ সুরজেওয়ালা বলেন, “এটা কৃষকদের সঙ্গে প্রতারণা। ডিজেল, সার, কীটনাশকের দাম, কৃষির খরচ বাড়িয়ে, ট্রাক্টরে জিএসটি চাপিয়ে প্রতি হেক্টরের চাষের খরচ ২৫ হাজার টাকা বেড়েছে। এ দিকে এমএসপি বাড়ছে মাত্র ২ থেকে ৮ শতাংশ হারে। কৃষকদের থেকে সব শুষে নেওয়া হবে, কিন্তু তাদের দেওয়া হবে নামমাত্র।”

Advertisement

কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার সাংবাদিক বৈঠকে এ নিয়ে উচ্চবাচ্য না করা হলেও, পরে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী থেকে বিজেপি নেতারা এমএসপি বৃদ্ধি নিয়ে টুইটার-ফেসবুকে প্রচারে নেমে পড়েন। গমের দাম কম বাড়লেও, সর্ষে, ছোলা, বার্লির দাম ভালই বেড়েছে বলে তাঁরা প্রচার করেছেন। খোদ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী টুইট করে বলেন, “কৃষক ভাই-বোনেদের উপকারে আজ আরও একটি বড় সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। সব রবি ফসলের দাম বৃদ্ধিতে মঞ্জুরি দেওয়া হয়েছে। এতে অন্নদাতাদের জন্য আরও লাভজনক মূল্য সুনিশ্চিত হবে। অন্য দিকে আরও নানা রকম ফসল বোনার জন্যও চাষিরা উৎসাহিত হবেন।”

বিজেপির প্রাক্তন শরিক অকালি দলের নেতা সুখবীর সিংহ বাদল মোদী সরকারের এই দাবি উড়িয়ে দিয়েছেন। তাঁর অভিযোগ, এক দিকে চাষের খরচ বাড়ছে। কারণ ডিজেল, সার, কীটনাশকের দাম বাড়ছে। কালো আইন চাষিদের কোমর ভেঙে দিয়েছে। কিন্তু গমের দাম কুইন্টাল প্রতি মাত্র ৪০ টাকা বাড়ানো হয়েছে। চাষিদের মুনাফা দিতে হলে গমের দাম অন্তত ১৫০ টাকা বাড়ানো উচিত ছিল। বিজেপির নেতারা পাল্টা যুক্তি দিচ্ছেন, কৃষি আইনের বিরুদ্ধে আন্দোলনে নামা চাষিদের ভয় এমএসপি ব্যবস্থাই উঠে যাবে। কিন্তু এমএসপি প্রতি বছরই বাড়ছে। কৃষক নেতাদের পাল্টা যুক্তি, সরকার নিজে গমের মতো যে সব ফসল কেনে, সে সবের দাম বাড়ানো হচ্ছে না। কিন্তু সরকার যে সব ফসল কেনে না, তার দাম বাড়িয়ে কী লাভটা হবে? বেসরকারি সংস্থা যে এমএসপি-তেই ফসল কিনবে, তার নিশ্চয়তা কোথায়! সরকারের দাবি, গম চাষের আনুমানিক খরচ এখন কুইন্টালে ১০০৮ টাকা। তার দ্বিগুণ এমএসপি দেওয়া হচ্ছে। কৃষক সংগঠনের অভিযোগ, সরকার চাষের সব খরচ ধরছে না।

আরও পড়ুন

Advertisement