Advertisement
২৪ জুলাই ২০২৪
Arvind Kejriwal

কেজরীবালের প্রশংসা করে দলের রোষে কংগ্রেস নেতা

প্রকাশ্যে দুই দলনেতার এই কোন্দল নিয়ে কংগ্রেসের তরফে কোনও মন্তব্য করা হয়নি। 

মিলিন্দ দেওরা। —ফাইল চিত্র।

মিলিন্দ দেওরা। —ফাইল চিত্র।

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি শেষ আপডেট: ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১২:৩১
Share: Save:

অরবিন্দ কেজরীবালের প্রশংসা করে দলের কোপে পড়লেন কংগ্রেস নেতা মিলিন্দ দেওরা। কংগ্রেস ছেড়ে তাঁকে আম আদমি পার্টিতে (আপ) যোগ দেওয়ার পরামর্শ দিলেন দলের নেতারা।

রবিবার রাতে নিজের টুইটার হ্যান্ডলে কেজরীবালের একটি ভিডিয়ো পোস্ট করেন মিলিন্দ দেওরা। তাতে দিল্লির মুখ্যমন্ত্রীর প্রশংসা করে তিনি লেখেন, ‘‘কেজরীবালের নেতৃত্বে গত পাঁচ বছরে দিল্লি সরকারের রাজস্ব আয় দ্বিগুণ হয়ে ৬০ হাজার কোটিতে দাঁড়িয়েছে।’’

মুহূর্তের মধ্যে তাঁর এই টুইট ভাইরাল হয়ে যায়। বহু মানুষ সেটি ‘লাইক’ এবং রিটুইট করেন। কিন্তু এ ভাবে প্রকাশ্যে কেজরীবালের গুণগান করায় মিলিন্দ দেওরার উপর চটেন দলের নেতা অজয় মাকেন। টুইটারে তিনি লেখেন, ‘‘কংগ্রেস ছাড়তে চাইলে ছেড়ে দিন। তার পর অর্ধেক সত্য পরিবেশন করুন। আপনাকে জানিয়ে রাখি, ১৯৯৭-’৯৮ পর্যন্ত কংগ্রেসের আমলে দিল্লির সরকারের রাজস্ব বাবদ আয় ছিল ৪ হাজার ৭৪ কোটি টাকা। ২০১৩-’১৪-য় তা বেড়ে দাঁড়ায় ৩৭ হাজার ৫৯ কোটি টাকায়। কংগ্রেসের আমলে যেখানে রাজস্ব বাবদ সার্বিক বৃদ্ধি ছিল ১৪.৮৭ শতাংশ। আপের আমলে তা ৯.৯০ শতাংশে এসে দাঁড়িয়েছে। কারণ ২০১-’১৬য় তাদের রাজস্ব বাবদ আয় ছিল ৪১ হাজার ১২৯ কোটি টাকা। ২০১৯-’২০-তে তা ৬০ হাজার কোটি ছুঁয়েছে।’’

আরও পড়ুন: কাশ্মীরে তৃতীয় পক্ষের হস্তক্ষেপ নয়, রাষ্ট্রপুঞ্জের মধ্যস্থতার প্রস্তাব ফেরাল ভারত​

এর পর অবশ্য আর পাল্টা কোনও মন্তব্য করেননি মিলিন্দ দেওরা। প্রকাশ্যে দুই দলনেতার এই কোন্দল নিয়ে কংগ্রেসের তরফেও কোনও মন্তব্য করা হয়নি। তবে কংগ্রেসে এমন ঘটনা নতুন নয়। দিল্লি বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপিকে হারিয়ে আপ জয়ী হওয়ার পর থেকেই তাদের অভিনন্দন জানাতে উঠেপড়ে লেগেছেন কংগ্রেস নেতারা। বিজেপির হারে এতটাই উৎফুল্ল হয়ে উঠেছেন তাঁরা যে রাজধানীতে নিজেদের অস্তিত্ব সঙ্কট নিয়ে চিন্তার ছিটোফোঁটাও দেখা যায়নি তাঁদের মধ্যে।

তা নিয়ে দিন কয়েক আগেই মহিলা কংগ্রেসের সভাপতি শর্মিষ্ঠা মুখোপাধ্যায়ের রোষে পড়েছিলেন বর্ষীয়ান কংগ্রেস নেতা তথা প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পি চিদম্বরম। গত ১১ ফেব্রুয়ারি আপের জয়ের পর চিদম্বরম টুইটারে লেখেন, ‘‘‘আপ জিতেছে, ধাপ্পাবাজ এবং তর্জন-গর্জনকারীরা হেরেছে। দিল্লির মানুষ, যাঁরা কিনা দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে এসেছেন, বিজেপির মেরুকরণ এবং বিভাজনের রাজনীতিকে হারিয়ে দিয়েছেন তাঁরা। ২০২১ এবং ’২২-এ যে রাজ্যগুলিতে নির্বাচন, তাদের জন্য উদাহরণ সৃষ্টি করার জন্য দিল্লিবাসীকে সেলাম।’’

আরও পড়ুন: করোনায় মৃত প্রায় ১৭০০, চিন বলছে ক্রমশ ‘কমছে’ আক্রান্ত

তাঁর এই টুইটে অসন্তোষ প্রকাশ করে শর্মিষ্ঠা লেখেন, ‘‘স্যর আপনাকে সম্মান জানিয়েই বলছি, আমি শুধু জানতে চাই যে, কংগ্রেস কি আঞ্চলিক দলগুলির কাছে বিজেপি হারানোর বরাত দিয়েছে? যদি তা না হয়, তাহলে নিজেদের হার নিয়ে পর্যালোচনা না করে, আপের জয়ে এত উচ্ছ্বাস প্রকাশ করছি কেন আমরা? আর যদি সেই দায়িত্বই পালন করি, তা হলে তো ঝাঁপ বন্ধ করে দেওয়া উচিত আমাদের!’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE