Advertisement
২৯ নভেম্বর ২০২২
National Section

করোনা মোকাবিলায় ভারতকে ১০০ কোটি ডলার অর্থ সাহায্য করবে বিশ্বব্যাঙ্ক

পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা, আফগানিস্তান এবং ইথিওপিয়াও পাবে অর্থসাহায্য।

ফাইল ছবি।

ফাইল ছবি।

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি শেষ আপডেট: ০৩ এপ্রিল ২০২০ ১৩:০৪
Share: Save:

চিকিৎসা-সহ করোনা মোকাবিলায় যাবতীয় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য জরুরি তহবিল হিসেবে ভারতকে ১০০ কোটি ডলার অর্থসাহায্য করবে বিশ্বব্যাঙ্ক। পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা ও আফগানিস্তান-সহ বাকি ২৪টি উন্নয়নশীল দেশকে দেবে আরও ৯০ কোটি ডলার। করোনা মোকাবিলায় ভারত-সহ ২৫টি দেশকে এই অর্থসাহায্য করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিশ্বব্যাঙ্ক। এশিয়ার তৃতীয় বৃহত্তম অর্থনীতির দেশ ভারত বিশ্বব্যাঙ্কের এই অর্থসাহায্যের সিংহভাগ পাচ্ছে।

Advertisement

এও জানানো হয়েছে, ওই সব দেশে ইতিমধ্যেই বিশ্বব্যাঙ্কের অর্থসাহায্যে যে সব প্রকল্পের কাজ শুরু হয়েছে, এই অভূতপূর্ব পরিস্থিতিতে সেই সব প্রকল্পেও বাড়তি সাহায্যের কথা ভাবা হচ্ছে। ওই সব প্রকল্পে বিশ্বব্যাঙ্কের মোট বিনিয়োগের পরিমাণ ১৭০ কোটি ডলার।

ভারত ছাড়া আর যে উন্নয়নশীল দেশগুলিকে অর্থসাহায্য করা সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিশ্বব্যাঙ্ক, তাদের মধ্যে রয়েছে পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা, আফগানিস্তান এবং ইথিওপিয়া। পাকিস্তান পাবে ২০ কোটি ডলার। শ্রীলঙ্কা পাবে ১২ কোটি ৯০ লক্ষ ডলার। আর আফগানিস্তান ও ইথিওপিয়া পাবে যথাক্রমে ১০ কোটি ডলার এবং ৮ কোটি ২৬ লক্ষ ডলার।

আরও পড়ুন- ২৩০০ ছাড়াল দেশের করোনা আক্রান্ত, মৃত্যু বেড়ে ৫৬​

Advertisement

আরও পড়ুন- রবিবার রাতে আলো নিভিয়ে দেশ জুড়ে বাতি জ্বালানোর ডাক মোদীর

বিশ্বব্যাঙ্ক জানিয়েছে, করোনা মোকাবিলায় আগামী ১৫ মাসে ১৬ হাজার কোটি ডলার ব্যয় করতে তারা প্রস্তুত রয়েছে।

বিশ্বব্যাঙ্কের গ্রুপ প্রেসিডেন্ট ডেভিড ম্যালপাস বলেছেন, ‘‘করোনা মোকাবিলা ও তার পর অর্থনৈতিক ও সামাজিক দুর্বলতা থেকে বেরিয়ে আসার জন্য উন্নয়নশীল দেশগুলিকে যতটা সম্ভব সাহায্য করা হবে। এটা ধরেই নেওয়া হচ্ছে, দরিদ্রতম দেশগুলিই করোনা সঙ্কটে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হবে।’’

এই পরিস্থিতিতে আগামী ১ মে থেকে দরিদ্রতম দেশগুলির নেওয়া ঋণের সুদ যাতে না নেওয়া হয়, সে ব্যাপারে আন্তর্জাতিক অর্থ ভান্ডারের সঙ্গে কথাবার্তা চলছে বলেও জানিয়েছেন বিশ্বব্যাঙ্কের গ্রুপ প্রেসিডেন্ট।

ম্যালপাস জানিয়েছেন, দরিদ্রতম দেশগুলির কাঁধে এখন ঋণের বোঝা যাতে আরও বেশি করে না চেপে বসে তার জন্য ‘জি-২০’ জোটের দেশগুলির মধ্যে সৌদি আরব ও ফ্রান্স অগ্রণী ভূমিকা নিয়েছে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.