×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৯ এপ্রিল ২০২১ ই-পেপার

‘ধর্ষণে জড়িতদের স্থায়ী ভাবে জেলে বন্দি করা হোক’, তেলঙ্গানা কাণ্ডে মন্তব্য হেমামালিনীর

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি ০৩ ডিসেম্বর ২০১৯ ১৭:০১
হায়দরাবাদে গণধর্ষণ ও খুন নিয়ে সরব হেমামালিনী।

হায়দরাবাদে গণধর্ষণ ও খুন নিয়ে সরব হেমামালিনী।

জয়ার পর হেমা। হায়দরাবাদ গণধর্ষণ এবং খুনের ঘটনায় জড়িতদের এ বার চিরতরে জেলে বন্দি করে রাখার প্রস্তাব দিলেন বিজেপি সাংসদ হেমামালিনী। মঙ্গলবার হেমা বলেন, ‘‘আমার পরামর্শ হল, অপরাধীদের যেন জীবনেও জেল থেকে মুক্তি না দেওয়া হয়।’’

সোমবার সংসদে দাঁড়িয়েই দোষীদের ‘জনসমক্ষে পিটিয়ে মারা উচিত’ বলে মন্তব্য করেছিলেন সমাজবাদী পার্টির সাংসদ জয়া বচ্চন। তা নিয়ে বিতর্কও কম হয়নি। এ দিন হেমা অবশ্য সেই রাস্তায় হাঁটেননি। সংসদ ভবনে ঢোকার আগে, হায়দরাবাদের ওই নৃশংস ঘটনা নিয়ে প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘‘প্রতি দিনই মহিলাদের উপর এমন অত্যাচারের কথা আমরা শুনতে পাচ্ছি। মহিলারা নিগৃহীত হচ্ছেন। আমার পরামর্শ হল, অপরাধীদের যেন স্থায়ী ভাবেই জেলে রেখে দেওয়া হয়। এক বার যখন জেলবন্দি করা হয়েছে তখন তাদের যেন মুক্তি না দেওয়া হয়।’’

কেন অভিযুক্তদের জেল থেকে ছাড়া হবে না তার কারণও ব্যাখ্যা করেছেন হেমা। তিনি বলেন, ‘‘অপরাধীদের জেল থেকে ছাড়া উচিত নয়। কারণ ছাড়া পেলে সে আবার ওই একই অপরাধ করবে। কারণ ওর মন শয়তানের মতো। ও অন্যদেরও এমন ঘটনা ঘটাতে উস্কানি দেবে।’’

Advertisement

আরও পড়ুন: এটিএমে স্কিমার ধরা পড়ার পরেও গ্রাহকদের সতর্ক করেনি ব্যাঙ্ক, বলছে পুলিশ​

আরও পড়ুন: ঘুমন্ত দম্পতি ও শিশুপুত্রকে থেঁতলে খুন, মৃতদেহের সঙ্গে যৌনসঙ্গম, ধৃত বিকৃতমনস্ক​

গত কালই সংসদে তেলঙ্গানার ঘটনা নিয়ে সরব হন এসপি সাংসদ জয়া বচ্চন। রাজ্যসভা এবং লোকসভা উভয় কক্ষেই এই গণধর্ষণ ও খুন কাণ্ড নিয়ে আলোচনার প্রস্তাব দেন বিরোধীরা। সেই আলোচনাতেই রাজ্যসভায় সমাজবাদী পার্টির সাংসদ জয়া বচ্চন বলেন, ‘‘এই ধরনের লোকদের জনসমক্ষে নিয়ে আসা উচিত এবং পিটিয়ে মারা উচিত।’’

Advertisement