Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৬ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

শরদের বাড়িতে বিজেপি-র দেবেন্দ্র, সমীকরণের জল্পনা উড়িয়ে বললেন, ‘সৌজন্য সাক্ষাৎ’

বিজেপি বিরোধী শাসক জোটের শরিকের সঙ্গে বিজেপি নেতার কি প্রয়োজন থাকতে পারে, আলোচনা তা নিয়েই।

সংবাদ সংস্থা
মুম্বই ০১ জুন ২০২১ ২২:৫২
Save
Something isn't right! Please refresh.
দেবেন্দ্র ফড়ণবীশের টুইটার থেকে নেওয়া সেই ‘সৌজন্য সাক্ষাৎ’-এর ছবি।

দেবেন্দ্র ফড়ণবীশের টুইটার থেকে নেওয়া সেই ‘সৌজন্য সাক্ষাৎ’-এর ছবি।
ছবি: টুইটার

Popup Close

এক জন রাজ্যের শাসকজোটের শরিক দলের প্রধান। অন্য জন বিরোধী দলনেতা। সাধারণত একে অপরকে আক্রমণ করে থাকেন। মঙ্গলবার হঠাৎ সৌজন্য সাক্ষাৎ করলেন। মহারাষ্ট্রের এনসিপি প্রধান শরদ পওয়ারের বাড়িতে এলেন সে রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী এবং বিজেপি নেতা দেবেন্দ্র ফ়ডণবীশ। আর এই সাক্ষাৎ নিয়েই আপাতত সরগরম মহারাষ্ট্রের রাজনৈতিক শিবির।

বিজেপি বিরোধী শাসক জোটের শরিকের সঙ্গে বিজেপি নেতার কি প্রয়োজন থাকতে পারে, আলোচনা তা নিয়েই। গত কয়েক দিনে মরাঠাদের চাকরি এবং প়ড়াশোনার সংরক্ষণের বিষয়ে মহারাষ্ট্র সরকারকে তুলোধনা করছে বিজেপি। এরই মধ্যে আচমকা শরদের বাড়িতে দেবেন্দ্রর হাজির হওয়া তাই জল্পনা উসকে দিয়েছে। এই সাক্ষাৎ মহারাষ্ট্রের রাজনৈতিক ক্ষেত্রে নতুন সমীকরণের ইঙ্গিত কি না তা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা।

Advertisement

দেবেন্দ্র নিজে অবশ্য জানিয়েছেন, তিনি শরদের শারীরিক অবস্থার খোঁজ খবর নিতে গিয়েছিলেন। সম্প্রতি পিত্তথলিতে অস্ত্রোপচার হয়েছে প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী শরদের। তিনি কেমন আছেন তা-ই জানতে গিয়েছিলেন দেবেন্দ্র। টুইটারেই বিষয়টি জানিয়েছেন। শরদের সঙ্গে তাঁর সাক্ষাতের একটি ছবিও পোস্ট করেছিলেন মহারাষ্ট্রের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী। তার পরেই সেই ছবি আর টুইট নিয়ে চর্চা শুরু হয় মহারাষ্ট্রের রাজনৈতিক মহলে।

সংরক্ষণ ইস্যুতে গত কয়েকদিন ধরেই শাসক এবং বিরোধী দলের মধ্যে চাপানউতর চলছে মহারাষ্ট্রে। চাকরি এবং শিক্ষায় মরাঠাদের একটি বিশেষ সংরক্ষণের আইন সম্প্রতিই খারিজ করে দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। ওই আইন ফডণবীশের মুখ্যমন্ত্রিত্বে কার্যকর করা হয়েছিল। আইনটি বাতিল হয়ে যাওয়া নিয়ে মহারাষ্ট্রের উদ্ধব ঠাকরের সরকারের বিরুদ্ধে ৫ জুন থেকে প্রতিবাদ বিক্ষোভের পরিকল্পনা করেছে বিজেপি। এর মধ্যে মহারাষ্ট্রের শাসক জোটের মূল শরিক দল এনসিপি-র প্রধানের সঙ্গে বিরোধী দল নেতা দেবেন্দ্রর সাক্ষাতে অন্য বোঝাপড়ার ইঙ্গিত খুঁজছে মহারাষ্ট্র।

বস্তুত কিছু দিন আগেই মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধবের সঙ্গে এনসিপি নেতা জয়ন্ত পাতিলের মতপার্থক্য হয়েছিল। এ নিয়ে শরদের সঙ্গে দেখা করে কথাও বলেন উদ্ধব।

দেবেন্দ্রর সঙ্গে অবশ্য কী কথা হয়েছে, সে বিষয়ে শরদ নিজে কিছু জানাননি। এনসিপি-র তরফে বলা হয়েছে, ‘‘এই সাক্ষাৎ নিয়ে বড় কিছু ভাবা অর্থহীন। মনে রাখতে হবে বিরোধী পক্ষ হলেও এঁরা শত্রুপক্ষ নন। এঁদের মধ্যে এমন দেখাসাক্ষাৎ মাঝে মধ্যেই হয়ে থাকে।’’




Something isn't right! Please refresh.

Advertisement