×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৪ জুন ২০২১ ই-পেপার

টিকা নিয়েও করোনা আক্রান্ত ফারুক আবদুল্লা, সপরিবারে নিভৃতবাসে, জানালেন পুত্র ওমর

সংবাদ সংস্থা
শ্রীনগর ৩০ মার্চ ২০২১ ১১:০৭
ফারুক আবদুল্লা। জম্মু- কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী।

ফারুক আবদুল্লা। জম্মু- কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী।

টিকা নিয়েও করোনা আক্রান্ত হলেন জম্মু- কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ও লোকসভা সাংসদ ফারুক আবদুল্লা। মঙ্গলবার পুত্র ওমর আবদুল্লা টুইট করে জানিয়েছেন, তাঁর বাবার করোনার পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ। শরীরে করোনার উপসর্গও রয়েছে।

ন্যাশনাল কনফারেন্সের প্রধান ফারুক গত ২ মার্চ করোনা টিকার প্রথম ডোজ নিয়েছিলেন শ্রীনগরের একটি হাসপাতালে। দিন কয়েক পরই দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার কথা ছিল তাঁর। তবে তার আগেই করোনা আক্রান্ত হলেন। ন্যাশনাল কনফারেন্সের নেতা ওমর টুইটারে এই সংবাদ জানিয়ে লিখেছেন, তিনি ও তাঁর পরিবার আপাতত নিজেদের ঘরবন্দি করে রেখেছেন। যতক্ষণ না তাঁদের করোনা পরীক্ষা হচ্ছে, ততদিন নিভৃতবাসেই থাকবেন।

Advertisement

মঙ্গলবার সকাল ৯টা নাগাদ টুইট করেন ওমর। লেখেন, ‘আমার বাবার করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। তাঁর শরীরে করোনার উপসর্গও রয়েছে। আমি আমার পরিবারের সঙ্গে আপাতত নিভৃতবাসে থাকব। যতদিন না আমাদের করোনা পরীক্ষা করা হচ্ছে’। গত কয়েকদিনে তাঁদের পরিবারের সংস্পর্শে যাঁরা এসেছিলেন, টুইটে তাঁদেরও সতর্ক করে ওমর লিখেছেন, ‘আমার অনুরোধ, সম্প্রতি যাঁরা আমাদের কাছাকাছি এসেছেন, তাঁরাও জরুরি সতর্কতাগুলি মেনে চলুন’।

ফারুকের বয়স ৮৪। ইতিমধ্যেই কিডনি প্রতিস্থাপন হয়েছে। দেশে প্রথম দফার টিকাকরণে অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে টিকা দেওয়া হয়েছিল ষাটোর্ধ্ব নাগরিকদের। গত ২ মার্চ শ্রীনগরের শের-ই-কাশ্মীর ইনস্টিটিউট অব মেডিক্যাল সায়েন্সে টিকা নেন ফারুক ও তাঁর স্ত্রী। টিকা নেওয়ার কথাও টুইটারেই জানিয়েছিলেন ওমর। লিখেছিলেন, ‘আমার বাবা-মা আজ করোনা প্রতিষেধক নিলেন। ওঁর স্বাস্থ্য সংক্রান্ত অনেকরকম সমস্যা রয়েছে। কিডনি প্রতিস্থাপনও হয়েছে। উনি যদি প্রতিষেধক নিতে পারেন, তবে আপনারাও পারবেন’।


গত ২৪ ঘণ্টায় জম্মু ও কাশ্মীরে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা অনেকটাই বেড়েছে। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, এক দিনে ১০৯ জন করোনা সংক্রমিত হয়েছে। যা জম্মু ও কাশ্মীরের মোট সংক্রমণের সংখ্যা নিয়ে গেল ১.৩ লক্ষে। তবে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা সংক্রমণে কারও মৃত্যু হয়নি জম্মু ও কাশ্মীরে।

Advertisement