×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৫ জুন ২০২১ ই-পেপার

৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যেই নিতে হবে ফাইনাল পরীক্ষা, নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি ২৮ অগস্ট ২০২০ ১৩:৪০
পরীক্ষা না নিয়ে পাশ নয়, জানিয়ে দিল সুপ্রিম কোর্ট। গ্রাফিক: শৌভিক দেবনাথ।

পরীক্ষা না নিয়ে পাশ নয়, জানিয়ে দিল সুপ্রিম কোর্ট। গ্রাফিক: শৌভিক দেবনাথ।

বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি)-এর নির্দেশিকা মেনে আগামী ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে বাকি থাকা সমস্ত পরীক্ষা শেষ করতে হবে দেশের কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়গুলিকে। শুক্রবার সুপ্রিম কোর্ট এই রায় ঘোষণা করে জানিয়ে দিয়েছে, কোনও অবস্থাতেই চূড়ান্ত বর্ষের পরীক্ষা বাকি রেখে ছাত্রছাত্রীদের পাশ করানো যাবে না।

তবে সেই সঙ্গেই বিচারপতি অশোক ভূষণের নেতৃত্বে তিন বিচারপতির বেঞ্চ আজ জানিয়েছে, কোনও রাজ্যে করোনা পরিস্থিতি খুব সঙ্কটজনক হলে সংশ্লিষ্ট রাজ্যের সরকার ৩০ সেপ্টেম্বরের সময়সীমা বাড়ানোর বিষয়ে ইউজিসির কাছে আবেদন জানাতে পারে।

জুলাইয়ের ৬ তারিখে ইউজিসি বিশ্ববিদ্যালয়গুলিকে নির্দেশ দেয়, করোনা সংক্রমণ ও লকডাউন সত্ত্বেও ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে ডিগ্রির চূড়ান্ত বর্ষ এবং শেষ সিমেস্টারের পরীক্ষা নিতেই হবে। পশ্চিমবঙ্গ, মহারাষ্ট্র, দিল্লির মতো কিছু রাজ্য সরকার নির্দেশিকার বিরোধিতা করে জানায়, অতিমারি এবং লকডাউনের মধ্যে কোনও পরীক্ষার ব্যবস্থা করা সম্ভব নয়। এর পরে দিল্লি এবং মহারাষ্ট্র সরকার সর্বোচ্চ আদালতে বিচার চেয়ে মামলা করে। পশ্চিমবঙ্গ ও ওডিশার মতো রাজ্যের বেশ কিছু পড়ুয়াও শীর্ষ আদালতের দ্বারস্থ হন। সম্প্রতি শুনানি-পর্বে আবেদনকারীরা কোভিড-১৯ পরিস্থিতির কারণে পরীক্ষা বাতিলের দাবি তোলেন।

আরও পড়ুন: ‘সরকারের সিদ্ধান্তে ভুগছেন পড়ুয়ারা’, নিট-জেইই নিয়ে সরব রাহুল

ইউজিসি-র কৌঁসুলি তথা সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতা তাঁর সওয়ালে বলেছিলেন, কোনও রাজ্য কখনও একতরফা ভাবে কেন্দ্রীয় নিয়ামক সংস্থা (এ ক্ষেত্রে ইউজিসি)-র পরীক্ষা সংক্রান্ত নিয়মে পরিবর্তন করতে পারে না। ইউজিসি-র নির্দেশ সত্ত্বেও রাজ্য সরকারের বিশ্ববিদ্যালয়গুলি ফাইনাল ইয়ার বা শেষ সিমেস্টারের পরীক্ষা না-নিয়ে পরীক্ষার্থীদের পাশ করানোর নীতি নিলে সেটি গুরুতর নিয়মভঙ্গ হবে বলে সুপ্রিম কোর্টে দাবি করেছিলেন তিনি। আজ কার্যত সেই যুক্তি মেনে নিয়েছে শীর্ষ আদালত।

Advertisement
Advertisement