Advertisement
০২ ডিসেম্বর ২০২২
Free Ration Scheme

পরিমাণে কমলেও আরও তিন মাস বিনামূল্যে রেশন দিতে পারে কেন্দ্র, উৎসবের দিনে সুখবর সরকারি সূত্রে

২০২০ সালে দেশে যখন কোভিড অতিমারির জন্য লকডাউন চলছে, তখন ‘প্রধানমন্ত্রী গরিব কল্যাণ যোজনা’ নামের এই প্রকল্প চালু করেছিল কেন্দ্রীয় সরকার। এই প্রকল্পের উপভোক্তা ৮০ কোটিরও বেশি মানুষ।

প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি শেষ আপডেট: ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১৭:০২
Share: Save:

আরও তিন মাস বিনামূল্যে রেশন দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিতে চলেছে কেন্দ্রীয় সরকার। সরকারের তরফে এখনও এই বিষয়ে কিছু জানানো না হলেও, কেন্দ্রীয় প্রশাসনের একটি সূত্র মারফত জানা যাচ্ছে, আগামী কয়েক দিনের মধ্যেই এ নিয়ে বিজ্ঞপ্তি জারি করতে পারে সরকার।

Advertisement

কোভিড অতিমারির সময়ে আর্থ-সামাজিক ভাবে বিপন্ন মানুষকে খানিক সুরাহা দেওয়ার জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে বিনামূল্যে রেশন দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এই প্রকল্পে প্রতি মাসে মাথাপিছু পাঁচ কেজি খাদ্যশস্য দেওয়া হয়। আসন্ন উৎসবের মরসুমেই আরও তিন মাস বিনামূল্যে রেশন দেওয়ার সিদ্ধান্ত ঘোষণা করতে পারে কেন্দ্র।

কেন্দ্রীয় অর্থ মন্ত্রকের তরফে জানা গিয়েছে, তিন মাসের এই মেয়াদবৃদ্ধির ফলে সরকারি কোষাগার থেকে ৪৫,০০০ কোটি টাকা অতিরিক্ত ব্যয় হবে। অতিরিক্ত ব্যয় খানিক লাঘব করতে খাদ্যশস্যের পরিমাণ কমানোর প্রস্তাব করেছে অর্থ মন্ত্রক।

অর্থ মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়েছে, রুশ- ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে বিশ্বজুড়ে অপরিশোধিত তেলের দাম বেড়েছে। এই পরিস্থিতিতে যে সকল প্রকল্পের জন্য ভর্তুকি দিতে হচ্ছে, সেই প্রকল্পগুলি চালানো কার্যত অসম্ভব হয়ে পড়ছে। গত দু’বছরে বিনামূল্যে রেশন দেওয়ার জন্য সরকারের তরফে প্রায় তিন লক্ষ কোটি টাকা খরচ করা হয়েছে বলে জানিয়েছে অর্থ মন্ত্রক।

Advertisement

২০২০ সালে দেশে যখন কোভিড অতিমারির জন্য লকডাউন চলছে, তখন ‘প্রধানমন্ত্রী গরিব কল্যাণ যোজনা’ নামের এই প্রকল্প চালু করেছিল কেন্দ্রীয় সরকার। এই প্রকল্পের উপভোক্তা জাতীয় খাদ্য সুরক্ষা আইনের আওতাধীন ৮০ কোটিরও বেশি মানুষ।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.