Advertisement
৩১ জানুয়ারি ২০২৩

বিমানের ভাড়ায় নিয়ন্ত্রণের সুপারিশ

বিমান ভাড়ার ক্ষেত্রে কোনও ঊর্ধ্বসীমা বেঁধে দেওয়া নেই। কিন্তু তা-ই বলে বেসরকারি বিমান সংস্থাগুলি টিকিটের দাম যত খুশি বাড়াতে পারে না বলে রায় দিল সংসদীয় কমিটি।

প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

নিজস্ব সংবাদদাতা
নয়াদিল্লি শেষ আপডেট: ০৫ জানুয়ারি ২০১৮ ০৩:৫৫
Share: Save:

এক বা দেড় মাস আগে টিকিট কাটলে যে ভাড়া, এক দিন আগে টিকিট কাটলে তার দশ গুণ!

Advertisement

বিমান ভাড়ার ক্ষেত্রে কোনও ঊর্ধ্বসীমা বেঁধে দেওয়া নেই। কিন্তু তা-ই বলে বেসরকারি বিমান সংস্থাগুলি টিকিটের দাম যত খুশি বাড়াতে পারে না বলে রায় দিল সংসদীয় কমিটি। পরিবহণ, পর্যটন ও সংস্কৃতি মন্ত্রকের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সুপারিশ, প্রতিটি সেক্টরের জন্য টিকিটের দামের ঊর্ধ্বসীমা বেঁধে দিক বিমান মন্ত্রক। ডেরেক ও’ব্রায়েনের নেতৃত্বাধীন কমিটির যুক্তি, বিমানের জ্বালানির দাম ৫০ শতাংশ কমলেও বিমান ভাড়া কমেনি।

টিকিটের চড়া দামের পাশাপাশি যাত্রীদের সঙ্গে বিমান সংস্থার কর্মীদের দুর্ব্যবহারের অভিযোগও উঠেছে। টিকিট বাতিল করার ক্ষেত্রে বিমান সংস্থাগুলি যথেচ্ছ ফি নিচ্ছে, যাত্রীদের প্রয়োজনে জল বা খাবার দেওয়া হচ্ছে না বলেও অভিযোগ উঠেছে বারবার।

গোটা বিষয়টি খতিয়ে দেখতে ডেরেকের নেতৃত্বে স্থায়ী কমিটি বিমান মন্ত্রকের কর্তা, ডিজিসিএ ও বিমান সংস্থার শীর্ষকর্তাদের ডেকে পাঠায়। বিমান সংস্থার কর্তারা যুক্তি দেন, আন্তর্জাতিক রীতি অনুযায়ীই এ দেশে বিমানের টিকিটের ভাড়া ঠিক হয়। আগাম টিকিট কাটলে কিছু টিকিট সস্তায় মেলে। তার পর ধাপে ধাপে দাম বাড়তে থাকে।

Advertisement

কমিটির মতে, উন্নত দেশে টিকিটের দাম ঠিক করার রীতি এ দেশে খাপ খায় না। পাশাপাশি কমিটির সুপারিশ, টিকিট বাতিলের ফি-ও মূল দামের ৫০ শতাংশের বেশি নেওয়া যাবে না বলে বেঁধে দেওয়া হোক।

কমিটির মতে, চেক-ইন কাউন্টারে বিমান সংস্থাগুলি যথেষ্ট সংখ্যার কর্মী রাখে না। ফলে লম্বা লাইন তৈরি হয়। অনেক সময় বিমানে আসন সংখ্যার থেকেও বেশি টিকিট বিক্রি করা হয়। সেই কারণেও গোলমেলে পরিস্থিতি তৈরি হয়। পাশাপাশি যাত্রীদের পা রাখার জায়গা অত্যন্ত কম বলেও মত কমিটির। এটিও খতিয়ে দেখতে বিমান মন্ত্রককে বলেছে কমিটি।

বিমান কর্মীদের দুর্ব্যবহার প্রসঙ্গে কমিটির সিংহভাগ সাংসদই একমত। তাঁদের অভিযোগ, বিমান কর্মীরা, বিশেষ করে গ্রাউন্ড স্টাফরা প্রায়ই দুর্ব্যবহার করেন। এক সাংসদের মন্তব্য, ‘‘বিমান কর্মীরা ভাবেন, যাত্রীরা অশিক্ষিত, আগে বিমানে চড়েননি! মুখে প্লিজ, থ্যাঙ্ক ইউ বলেন, কিন্তু খারাপ ব্যবহার করেন!’’ এ ব্যাপারে এ দিন বারেবারেই আঙুল উঠেছে ইন্ডিগো বিমান সংস্থার দিকে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.