Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৭ নভেম্বর ২০২১ ই-পেপার

‘সাম্প্রদায়িক উস্কানি দেওয়া থেকে বিরত থাকুন’, রামমন্দির মন্তব্যে পাকিস্তানকে বার্তা ভারতের

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি ০৬ অগস্ট ২০২০ ১৮:৫৬
রামমন্দির মন্তব্যে পাকিস্তানকে পাল্টা তোপ ভারতের। গ্রাফিক: শৌভিক দেবনাথ

রামমন্দির মন্তব্যে পাকিস্তানকে পাল্টা তোপ ভারতের। গ্রাফিক: শৌভিক দেবনাথ

রামমন্দিরের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন নিয়ে বুধবার ভারতের সমালোচনা করেছিল পাকিস্তান। তার ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই ইসলামাবাদকে কড়া জবাব দিল নয়াদিল্লি। ভারত স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছে, এটা দেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়। এতে পাকিস্তানের অযথা নাক গলানোর প্রয়োজন নেই।

বৃহস্পতিবার বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র অনুরাগ শ্রীবাস্তব পাকিস্তানকে যে বার্তা দিয়েছেন তাতে স্পষ্ট রামমন্দির নির্মাাণের মতো অভ্যন্তরীণ বিষয় নিয়ে নয়াদিল্লি ইসলামাবাদের আগ বাড়িয়ে মন্তব্য মোটেই পছন্দ করছে না। এ দিন তিনি বলেন, ‘‘ভারতের অভ্যন্তরীণ একটি বিষয় নিয়ে ইসলামিক রিপাবলিক অব পাকিস্তান প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে কী লিখেছে তা আমরা দেখেছি। ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে নাক না গলানো এবং সাম্প্রদায়িক উস্কানি দেওয়া থেকে তাদের বিরত থাকা উচিত।’’

এখানেই থামেননি অনুরাগ শ্রীবাস্তব। তিনি আরও বলেন, ‘‘যে দেশ সীমান্তের ওপার থেকে সন্ত্রাস চালায়, যে দেশ সেখানকার ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের ধর্মীয় অধিকার সুনিশ্চিত করে না, তাদের এই অবস্থান নেওয়া আশ্চর্যজনক কিছু নয়।’’ এই ধরনের মন্তব্য দুর্ভাগ্যজনক বলেই জানিয়েছেন বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র।

Advertisement

আরও পড়ুন: চিনা অনুপ্রবেশের নথি গায়েব প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের ওয়েবসাইট থেকে

রামমন্দিরের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন নিয়ে কী বলেছিল পাকিস্তান? বুধবারের ওই ঐতিহাসিক ঘটনার নিন্দা করেছিল ইসলামাবাদ। একইসঙ্গে ভারতের সুপ্রিম কোর্টের দেওয়া রায়কে ‘ত্রুটিপূর্ণ’ বলেও জানিয়েছিল পাক বিদেশমন্ত্রক। তাদের মতে, ‘রামমন্দির নির্মাণ নিয়ে রায় শুধুমাত্র সংখ্যাগুরুর বিশ্বাসের উপর নির্ভর করে বিচার নয়, আজকের ভারতে সংখ্যাগুরুর প্রভাব বাড়তে থাকার বহিঃপ্রকাশও।’’ পাকিস্তানের অভিযোগ, ভারতে ‘‘সংখ্যালঘুদের বিশেষ করে মুসলিমদের ধর্মস্থানে আক্রমণ বাড়ছে।’’

আরও পড়ুন: অবিরাম বর্ষণে ভাসছে মুম্বই, ভাঙল ৪৬ বছরের রেকর্ড

পাকিস্তানের বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, অযোধ্যায় বাবরি মসজিদ ভাঙার ঘটনায় নিন্দা প্রস্তাব পাশ করিয়েছে অর্গানাইজেশন অব ইসলামিক কোঅপারেশন (ওআইসি)। তাদের আরও অভিযোগ, রামমন্দির তৈরি হচ্ছে ‘ভারতকে হিন্দুরাষ্ট্র বানানো’র কার্যক্রমের একটি অংশ। করোনা পরিস্থিতির মধ্যে এবং সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন (সিএএ) নিয়ে বিতর্কের মধ্যে মন্দির নির্মাণ নিয়ে ‘তৎপরতা’র জন্য ভারতকে দোষারোপ করেছে পাকিস্তান। সেইসঙ্গে জম্মু ও কাশ্মীরে মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগও তুলেছে তারা। প্রসঙ্গত গত কালই জম্মু-কাশ্মীর থেকে সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ প্রত্যাহারের এক বছর পূর্ণ হয়। এবশ্য এই প্রথম নয়। গত কয়েক মাসের মধ্যে ওয়াঘার দু’পারেই বসবাসকারী সংখ্যালঘুদের অধিকার নিয়ে দু’দেশের মধ্যে এমনই উতপ্ত আদানপ্রদান বেশ কয়েক বার ঘটেছে। রামমন্দিরের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন নিয়ে ফের সেই ছবি দেখা গেল।

আরও পড়ুন

Advertisement