×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৪ এপ্রিল ২০২১ ই-পেপার

বিধ্বংসী আঘাত হানল ভারত, গুঁড়িয়ে দেওয়া হল একাধিক পাক বাঙ্কার

সংবাদ সংস্থা
২৩ মে ২০১৭ ১৬:৪৭
নৌশেরা সেক্টর থেকে নিয়ন্ত্রণরেখার ও পারে বিধ্বংসী আঘাত হেনেছে ভারত, গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়েছে একাধিক পাক বাঙ্কার, জানাল সেনা। —প্রতীকী ছবি / ফাইল চিত্র।

নৌশেরা সেক্টর থেকে নিয়ন্ত্রণরেখার ও পারে বিধ্বংসী আঘাত হেনেছে ভারত, গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়েছে একাধিক পাক বাঙ্কার, জানাল সেনা। —প্রতীকী ছবি / ফাইল চিত্র।

বিধ্বংসী জবাব দিল ভারত। নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর গুঁড়িয়ে দেওয়া হল পাক সেনার একাধিক বাঙ্কার। নৌশেরা সেক্টরে ভারতীয় বাহিনী এই অভিযান চালিয়েছে বলে সেনা সূত্রে জানানো হয়েছে। ভারতীয় সেনার মুখপাত্র মেজর জেনারেল অশোক নারুলা মঙ্গলবার জানিয়েছেন, উপত্যকার আবহাওয়া ধীরে ধীরে অনুকূল হচ্ছে এবং বিভিন্ন গিরিপথের বরফ গলছে। সেই সুযোগ নিয়ে ফের সশস্ত্র জঙ্গিদের উপত্যকায় ঢোকানোর তোড়জোড় শুরু করেছিল পাক সেনা। পাক চক্রান্ত ভেস্তে দিতে পরিকল্পনা মাফিক অভিযান চালানো হয়েছে বলে সেনাবাহিনী জানিয়েছে।

‘‘তাপমাত্রা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে উপত্যকার বরফ গলতে শুরু করেছে, তাই পাকিস্তানের দিক থেকে অনুপ্রবেশের আশঙ্কাও বেড়েছে। সেনাবাহিনী এই ধরনের আশঙ্কার মোকাবিলা করতেই তৎপরতা বাড়িয়েছে।’’ মন্তব্য মেজর জেনারেল নারুলার। নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর নিজেদের দাপট বাড়াতে এবং অনুপ্রবেশ রোখার জন্য সন্ত্রাস-বিরোধী অভিযান তীব্র করতে ভারতীয় বাহিনী যে পরিকল্পনা তৈরি করেছে, তার অঙ্গ হিসেবেই পাক বাঙ্কারগুলি গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়েছে বলেও মেজর জেনারেল নারুলা জানিয়েছেন।

Advertisement



গোটা নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর বাড়ানো হবে দাপট, চাপে রাখা হবে পাকিস্তানকে— পরিকল্পনা ভারতীয় সেনার। তার নমুনা দেখানোও শুরু করে দিল বাহিনী। —প্রতীকী ছবি / ফাইল চিত্র।

উপত্যকার যে সব এলাকা দিয়ে জঙ্গি অনুপ্রবেশ হয়, বছরের অনেকটা সময়ই বরফ জমে দুর্গম হয়ে থাকে সেই সব এলাকা। বরফ গলতে শুরু করার পরই পাক বাহিনী ফের জঙ্গিদের ঢোকাতে তৎপর হয়। সেই মরসুম প্রায় এসেই গিয়েছে, তাই তৎপরতা বাড়াতে শুরু করেছে ভারত। জানিয়েছে সেনা। নিয়ন্ত্রণরেখার ও পারে বসে পাক বাহিনী নিরুপদ্রবে ভারতে জঙ্গি ঢোকানোর প্রস্তুতি নেবে, তেমনটা আর ঘটতে দেওয়া যাবে না। বলছে সেনা। সেই কারণেই সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনার ভিত্তিতে নৌশেরা সেক্টরে নিয়ন্ত্রণরেখার ও পারে বিধ্বংসী আঘাত হানা হয়েছে বলে সেনা দাবি করছে।

আরও পড়ুন: পাক সেনার জন্য আর অনুদান নয়: বাজেটে প্রস্তাব ট্রাম্প প্রশাসনের

শুধু নৌশেরাতে অবশ্য নয়, গোটা উপত্যকাতেই সন্ত্রাস-বিরোধী অভিযান জোরদার করেছে ভারত। শনিবার নওগামে টানা ২৪ ঘণ্টা লড়াই চালিয়ে ৪ জঙ্গিকে নিকেশ করেছে সেনা। সে সংঘর্ষে তিন জওয়ানও শহিদ হয়েছেন।

সম্প্রতি নিয়ন্ত্রণ রেখায় সংলগ্ন এলাকায় হামলা চালিয়ে দুই ভারতীয় জওয়ানের মাথা কেটে নিয়ে গিয়েছিল পাকিস্তানের বর্ডার অ্যাকশন টিম। ভারত জানিয়েছিল, এর জবাব পাকিস্তানকে দেওয়া হবে। কিন্তু কোথায়, কখন, কী ভাবে জবাব দেওয়া হবে, তা ভারতই স্থির করবে। সেই জবাব দেওয়া শুরু হয়ে গেল, বলছে ওয়াকিবহাল মহল।



Tags:

Advertisement