Advertisement
০৪ মার্চ ২০২৪
INS Vikrant

খরচ পড়েছে ২০ হাজার কোটি টাকা, দেশে তৈরি প্রথম বিমানবাহী রণতরী বিক্রান্তের যাত্রা শুরু শুক্রে

২৬২ মিটার উঁচু, ৬২ মিটার চওড়া আইএনএস বিক্রান্ত দেশে তৈরি সবচেয়ে বড় যুদ্ধজাহাজ। এই রণতরীতে প্রায় ১৬০০ ক্রু সদস্যের থাকার ব্যবস্থা রয়েছে। ৩০টি বিমান ওঠানামা করতে পারবে।

প্রায় এক বছর ধরে চলেছে আইএনএস বিক্রান্তের ‘সি ট্রায়াল’।

প্রায় এক বছর ধরে চলেছে আইএনএস বিক্রান্তের ‘সি ট্রায়াল’। ছবি পিটিআই।

সংবাদ সংস্থা
কোচি শেষ আপডেট: ০২ সেপ্টেম্বর ২০২২ ০৮:৪৩
Share: Save:

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর হাত ধরে শুক্রবার আনুষ্ঠানিক ভাবে জলে ভাসবে দেশে তৈরি প্রথম বিমানবাহী রণতরী ‘আইএনএস বিক্রান্ত’। পাশাপাশি নৌবাহিনীর নতুন পতাকা উত্তোলন করা হবে।

২৬২ মিটার উঁচু, ৬২ মিটার চওড়া আইএনএস বিক্রান্ত দেশে তৈরি সবচেয়ে বড় যুদ্ধজাহাজ। এই রণতরীতে প্রায় ১৬০০ ক্রু সদস্যের থাকার ব্যবস্থা রয়েছে। এই রণতরীতে ৩০টি বিমান ওঠানামা করতে পারবে। মিগ-২৯কে-র মতো যুদ্ধবিমানও ওঠানামা করার সুবিধা থাকবে এই যুদ্ধজাহাজে। ৪৫ হাজার টনের এই যুদ্ধজাহাজ তৈরিতে খরচ হয়েছে ২০ হাজার কোটি টাকা।

এক দশকেরও বেশি সময় ধরে এই রণতরী নির্মাণের কাজ চলেছে।গত বছরের অগস্টে ‘সি ট্রায়াল’ শুরু করা হয়েছিল। প্রায় এক বছর ধরে এই ‘ট্রায়াল’ প্রক্রিয়া চলেছে। নৌসেনার তরফে আগে জানানো হয়েছে যে, পরীক্ষামূলক প্রক্রিয়া সফল হয়েছে।

প্রসঙ্গত, ভারতের হাতে আগেও এই নামে একটি রণতরী ছিল। ১৯৭১ সালে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে যুদ্ধে সে সময় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিল ‘আইএনএস বিক্রান্ত’। নব্বইয়ের দশকের শেষ পর্বে বিক্রান্ত অবসর নেয়। ভেঙে ফেলা হয় জাহাজটি। তারই স্মৃতিতে একই নামে দেশে তৈরি করা হল এই যুদ্ধজাহাজ।

বিক্রান্তের আগে ভারতের হাতে আগে এক মাত্র বিমানবাহী যুদ্ধজাহাজ হিসাবে ছিল ‘আইএনএস বিক্রমাদিত্য’। ২০১৪ সালে রাশিয়া থেকে কেনা হয়েছিল ওই রণতরী। বিক্রান্ত হাতে পাওয়ার পর আমেরিকা, ব্রিটেন, রাশিয়া, চিন, ফ্রান্সের মতো দেশের তালিকায় এক বন্ধনীতে ঢুকে পড়ল ভারত, যারা নিজেরা বিমানবাহী রণতরী তৈরি করেছে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE