×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৬ জানুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

পেনশন এবং অবসর নিয়ে নয়া নীতি সেনার, রাওয়তের ‘প্রস্তাব’ ঘিরে জল্পনা

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি০৫ নভেম্বর ২০২০ ১৬:১১
জেনারেল বিপিন রাওয়ত— ফাইল চিত্র।

জেনারেল বিপিন রাওয়ত— ফাইল চিত্র।

জল্পনার সূত্র, বৃহস্পতিবার একটি সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবর। তাতে দাবি করা হয়েছে, অবসরপ্রাপ্ত সেনা অফিসারদের পেনশন কাটছাঁটের পরিকল্পনা করছে নরেন্দ্র মোদী সরকার। বৃহস্পতিবার থেকে বিষয়টি নিয়ে জোরদার চর্চা শুরু হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

প্রকাশিত খবরের সঙ্গে সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের অধীনস্থ ‘ডিপার্টমেন্ট অব মিলিটারি অ্যাফেয়ার্স’ (ডিএমএ)-র একটি চিঠি প্রকাশিত হয়েছে। তাতে সই করেছেন ‘চিফ অব ডিফেন্স স্টাফ’ জেনারেল বিপিন রাওয়তের প্রতিরক্ষা বিষয়ক উপ-উপদেষ্টা। ওই চিঠিতে মেয়াদ শেষের আগে অবসর নেওয়া সেনা আধিকারিকদের পেনশন ছাঁটাইয়ের বিষয়ে কিছু প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে।

২৯ অক্টোবরের ওই চিঠির প্রস্তাবে বলা হয়েছে, ২০-২৫ বছর চাকরি করে যে সব সেনা আধিকারিক অবসর নিয়েছেন তাঁরা প্রাপ্য পেনশনের ৫০ শতাংশ পাবেন। ২৬-৩০ বছরের কর্মজীবন শেষে অবসর নেওয়া সেনা আধিকারিকরা পাবেন পেনশনের ৬০ শতাংশ। ৩১-৩৫ বছর সেনায় থাকলে পেনশনের ৭৫ শতাংশ এবং ৩৫ বছরের বেশি সময় কাজ করলে পুরো পেনশন দেওয়ার কথা বলা হয়েছে প্রস্তাবে।

Advertisement

আরও পড়ুন: বিহার ভোটে শরিকি সঙ্ঘাত, যোগীর সিএএ মন্তব্যের বিরোধিতায় নীতীশ

বলা হয়েছে ১০ নভেম্বরের মধ্যে এ সংক্রান্ত সরকারি প্রক্রিয়া চালুর অনুমোদন দেওয়ার কথাও। তবে যুদ্ধক্ষেত্রে আহত সেনা অফিসার কিংবা নিহতদের পরিবারের পেনশনের ক্ষেত্রে পুরনো নিয়মের কোনও পরিবর্তন না করার প্রস্তাব রয়েছে ওই চিঠিতে।

আরও পড়ুন: দৈনিক সংক্রমণ ফের ৫০ হাজার, মোট আক্রান্তের ৯২ শতাংশ সুস্থ

এ ছাড়া সেনা অফিসারদের বিভিন্ন পদে অবসরের বয়ঃসীমা বাড়ানোর প্রস্তাবও রয়েছে চিঠিতে। কর্নেল পদের ক্ষেত্রে অবসরের বয়স ৫৪ থেকে বাড়িয়ে ৫৭। ব্রিগেডিয়ারের ক্ষেত্রে ৫৬ থেকে বাড়িয়ে ৫৮ এবং মেজর জেনারেল পদের ক্ষেত্রে বর্তমান ৫৮ থেকে বাড়িয়ে ৫৯ করার কথা বলা হয়েছে। প্রকাশিত প্রতিবেদনে দাবি, দিল্লিতে সেনা কমান্ডারদের সাম্প্রতিক বৈঠকে জেনারেল রাওয়ত এই প্রস্তাব দিয়েছিলেন।

Advertisement