×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৫ জানুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

নাশকতার সম্ভাবনা, অমরনাথ যাত্রীদের ফিরে যেতে বলল জম্মু-কাশ্মীর প্রশাসন

সংবাদ সংস্থা
শ্রীনগর০৩ অগস্ট ২০১৯ ০১:২১
অমরনাথ যাত্রীদের ফিরে যাওয়ার নির্দেশ। —ফাইল চিত্র।

অমরনাথ যাত্রীদের ফিরে যাওয়ার নির্দেশ। —ফাইল চিত্র।

নিরাপত্তার কারণে অমরনাথ যাত্রীদের অবিলম্বে উপত্যকা ছেড়ে চলে যাওয়ার নির্দেশ দিল জম্মু-কাশ্মীর সরকার। চলে যেতে বলা হয়েছে পর্যটকদেরও। পাক মদতপুষ্ট জঙ্গিরা উপত্যকায় বড় ধরনের হামলার ছক কষেছে বলে ইতিমধ্যেই গোয়েন্দা সূত্রে খবর এসেছে। সে কারণেই রাজ্য সরকারের তরফে এমন নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে বলে সংবাদ সংস্থা সূত্রে খবর। পর্যটকদেরও যত দ্রুত সম্ভব ফিরে যেতে বলা হয়েছে।

শুক্রবার জম্মু-কাশ্মীর প্রশাসনের তরফে একটি বিবৃতি জারি করে বলা হয়, ‘গোয়েন্দা সূত্রে জানা গিয়েছে, বড় ধরনের হামলার ছক কষছে জঙ্গিরা। মূলত অমরনাথ যাত্রীরাই তাদের নিশানায় রয়েছেন। উপত্যকায় এই মুহূর্তে যা পরিস্থিতি, তাতে অমরনাথ যাত্রী এবং পর্যটকদের নিরাপত্তাকেই প্রাধান্য দেওয়া হচ্ছে। তাই যত শীঘ্র সম্ভব, ছুটি কাটছাঁট করে, নিরাপদে ফিরে যাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে।’

এ দিন সকালেই ভারতীয় সেনা এবং রাজ্য পুলিশের তরফে একটি যৌথ সাংবাদিক বৈঠকে জঙ্গি হামলার সম্ভাবনার কথা জানানো হয়। সেখানে বলা হয়, অমরনাথ যাওয়ার পথ থেকে থেকে প্রচুর বোমা, একটি ল্যান্ডমাইন এবং একটি টেলিস্কোপিক স্নাইপার রাইফেল উদ্ধার করা হয়েছে। গোয়েন্দাদের দাবি, তীর্থযাত্রীদের সফর বানচাল করতে, পাক মদতপুষ্ট জঙ্গিরা হামলার ছক কষছে। এই ষড়যন্ত্রে সরাসরি ভাবে যুক্ত রয়েছে পাক সেনাও।

Advertisement



এই নির্দেশিকা জারি করে রাজ্য সরকার। ছবি:টুইটার থেকে সংগৃহীত।

আরও পড়ুন: মধ্যস্থতা ব্যর্থ, অযোধ্যা মামলার শুনানি ৬ অগস্ট থেকে​

শ্রীনগর থেকে ১৪০ কিলোমিটার দূরে একটি গুহার মধ্যে ওই ল্যান্ডমাইনটি উদ্ধার হয় বলে জানা গিয়েছে। তার উপর পাকিস্তানের একটি অস্ত্র কারখানার প্রতীক চিহ্নও রয়েছে।

সাংবাদিক বৈঠকে এই ঘোষণার কয়েক ঘণ্টা পরেই রাজ্য সরকারের তরফে ওই নির্দেশিকা জারি করা হয়, যার তীব্র সমালোচনা করেছেন জম্মু-কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা ন্যাশনাল কনফারেন্স (এনসি)-এর নেতা ওমর আবদুল্লা। রাজ্য সরকারের বিবৃতি উদ্ধৃত করে টুইটারে তিনি লেখেন, ‘একটা কথা কিছুতেই মাথায় ঢুকছে না আমার! উপত্যকার পরিস্থিতি কতটা নিয়ন্ত্রণে তা বোঝাতে সম্প্রতি কাঁড়ি কাঁড়ি টাকা খরচ করে দেশ-বিদেশের সাংবাদিকদের উড়িয়ে এনেছিল সরকার। কত সুষ্ঠু ভাবে যাত্রা সম্পন্ন হচ্ছে, তা দেখিয়েছিল। আর তার পরেই তীর্থযাত্রী এবং পর্যটকদের চলে যেতে বলে এই নির্দেশিকা!’


আরও পড়ুন: জিডিপির নিরিখে ভারত ৭ নম্বরে, পিছিয়ে পড়ল ফ্রান্সের চেয়েও​

তবে পাক মদতপুষ্ট জঙ্গিরা যে অমরনাথ যাত্রা বানচাল করতে চেষ্টা চালাচ্ছে, তিন-চার দিন আগেই গোয়েন্দা সূত্রে তার ইঙ্গিত মিলেছিল বলে জানিয়েছেন উপত্যকায় চিনার কর্পসের কম্যান্ডার লেফটেন্যান্ট জেনারেল কে জে এস ধিলোঁ।

অন্য দিকে, এক সপ্তাহ আগেই ১০ হাজার কেন্দ্রীয় বাহিনীকে উড়িয়ে নিয়ে যাওয়া হয় উপত্যকায়। উড়িয়ে নিয়ে যাওয়া হয় আধা সামরিক বাহিনীকেও। স্বাধীনতা দিবসের আগে রাজ্যের নিরাপত্তা আটোসাঁটো করতেই এই ব্যবস্থা বলে সেই সময় জানা গিয়েছিল। তবে বৃহস্পতিবার আরও ২৫ হাজার বাহিনীকে কাশ্মীর নিয়ে গেলে, উপত্যকার নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে ফের জল্পনা শুরু হয়।

Advertisement