Advertisement
২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
JNU

জেএনইউ-তে হামলা, উপাচার্যের ইস্তফার দাবিতে পথে নামলেন পড়ুয়া, অধ্যাপকরা

দিল্লির মান্ডি হাউস থেকে শুরু হয় মিছিল। মিছিল হয় মানব সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রকের কাছাকাছি।

জেএনইউ-তে হামলার প্রতিবাদে মান্ডি হাউসে মিছিল।

জেএনইউ-তে হামলার প্রতিবাদে মান্ডি হাউসে মিছিল।

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি শেষ আপডেট: ০৯ জানুয়ারি ২০২০ ১৭:৪০
Share: Save:

জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয় (জেএনইউ)-এ হামলা হয়েছিল গত রবিবার। তা নিয়ে পড়ুয়াদের ক্ষোভ তুঙ্গে। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য জগদীশ কুমারের ইস্তফার দাবিতে এ বার ফুঁসে উঠলেন জেএনইউ-র পড়ুয়া ও অধ্যাপকরা। বৃহস্পতিবার, পথে নামলেন তাঁরা। এ দিন উপাচার্যের ইস্তফার দাবির সঙ্গে জুড়ে যায় সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন (সিএএ) এবং জাতীয় নাগরিকপঞ্জি বাতিলের দাবিও।

এ দিন দিল্লির মান্ডি হাউস থেকে শুরু হয় মিছিল। মিছিল হয় মানব সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রকের কাছাকাছি। জেএনইউ-র ঘটনা নিয়ে উপাচার্যের বিরুদ্ধে অভিযোগের আঙুল তুলেছেন পড়ুয়ারা। তাঁর পদত্যাগের দাবি ওঠে এ দিনের মিছিলে। সেই সঙ্গে সিএএ ও এনআরসি বিরোধী স্লোগানও দেওয়া হয়। পড়ুয়ারা ছাড়াও ওই মিছিলে যোগ দেন বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপকরা। এছাড়াও মিছিলে পা মেলান বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধিরাও।

মিছিলে উপস্থিত ছিলেন সিপিএম-এর সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি। তিনি বলেন, ‘‘মুখোশ পরিহিত হামলাকারীরা তিন ঘণ্টা ধরে বিশ্ববিদ্যালয়ে তাণ্ডব চালাল। তারা পুলিশের সাহায্যে মেন গেট দিয়েই ক্যাম্পাসে ঢোকে।’’ ইয়েচুরির অভিযোগ, কর্তৃপক্ষের মদত ছাড়া কখনই এমন ঘটনা ঘটা সম্ভব ছিল না। উপাচার্যের পদত্যাগের দাবি তোলেন তিনিও।

হস্টেল এবং মেস ফি বৃদ্ধির দাবিতে দীর্ঘ দিন ধরেই আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছে জেএনএনইউ-র ছাত্র সংসদ। কিন্তু, রবিবার রাতে মুখে কাপড় বাঁধা এক দল যুবক হামলা চালায় বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে। ব্যাপক ভাঙচুরের পাশাপাশি মারধর করা হয় ছাত্রছাত্রীদের। ঘটনায় আহত হন ছাত্র সংসদের সভানেত্রী ঐশী ঘোষ-সহ মোট ৩৫ জন। ঘটনার পর কয়েকটা দিন কেটে গেলেও এখনও গ্রেফতার হয়নি কেউ। ঐশী-সহ কুড়ি জনের বিরুদ্ধেও দুটি এফআইআর দায়ের করেছে দিল্লি পুলিশ।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE