Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৭ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

ভোটপ্রচারে সাপ নিয়ে নাড়াচাড়া, প্রিয়ঙ্কার বিরুদ্ধে নালিশ বন দফতরের

সংবাদ সংস্থা
রায়বরেলী ০২ মে ২০১৯ ২০:০৬
হাতে সাপ নিয়ে নাড়াচাড়া করছেন প্রিয়ঙ্কা গাঁধী। ছবি: টুইটারের ভিডিয়ো থেকে নেওয়া

হাতে সাপ নিয়ে নাড়াচাড়া করছেন প্রিয়ঙ্কা গাঁধী। ছবি: টুইটারের ভিডিয়ো থেকে নেওয়া

ভোট বাজারে কত রকম ভাবেই না আম জনতার দরবারে পৌঁছতে হয় প্রার্থী বা নেতা-নেত্রীদের। আম জনতার সঙ্গে একাত্ম হতে প্রচেষ্টার অন্ত থাকে না। কিন্তু তা বলে হাতে বিষধর সাপ নিয়ে খেলা? হ্যাঁ। সেটাই করলেন প্রিয়ঙ্কা গাঁধী। বৃহস্পতিবার রায়বরেলীতে রীতিমতো হাতে সাপ নিয়ে নাড়াচাড়া করলেন কংগ্রেস সাধারণ সম্পাদক। তা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় মিশ্র প্রতিক্রিয়া। কেউ প্রিয়ঙ্কার সাহসের তারিফ করেছেন। এক পক্ষ আবার তীব্র সমালোচনা করেছেন টুইটারে। অন্য দিকে প্রিয়ঙ্কার বিরুদ্ধে বন্যপ্রাণ আইনে রায়বরেলীর জেলাশাসকের কাছে অভিযোগ দায়ের করেছেন বন দফতরের আধিকারিকরা।

উত্তরপ্রদেশের রায়বরেলীতে কংগ্রেসের প্রার্থী হয়েছেন প্রিয়ঙ্কার মা সনিয়া গাঁধী। সক্রিয় রাজনীতিতে আসার আগেও প্রিয়ঙ্কা এই কেন্দ্রে মায়ের হয়ে প্রচার করতেন। এখানকার জনসমাজে প্রিয়ঙ্কার যেমন গ্রহণযোগ্যতা রয়েছে, তেমনি প্রিয়ঙ্কাও গোটা সংসদীয় এলাকাকে কার্যত হাতের তালুর মতো চেনেন। বৃহস্পতিবার সেই রায়বরেলীতেই প্রচারে যান প্রিয়ঙ্কা।

সেখানেই এক দল সাপুড়ের সঙ্গে কথোপকথনে যোগ দেন প্রিয়ঙ্কা। মন দিয়ে তাঁদের দুঃখ-দুর্দশার কথা শোনেন। একটি চেয়ারে বসেছিলেন প্রিয়ঙ্কা। আর নীচে মাটিতে সাপের ঝাঁপি নিয়ে বসে সাপুড়েরা। সেই কথোপকথনের ফাঁকেই সাপ নিয়ে নাড়াচাড়া করতে দেখা যায় তাঁকে।

Advertisement

কখনও দেখা যাচ্ছে তাঁর পায়ের উপর লেজ রেখে খানিকটা দূরে ফনা তুলে আছে বিষধর গোখরো। খানিক পরে আবার দেখা গেল, নিজেই একটি ঝাঁপি উপুড় করে দিয়ে হাতে তুলে নিয়েছেন অন্য একটি গোখরো। আবার কিছুক্ষণ পর একটি ছোট্ট সাপকে হাতে নিয়ে অবলীলায় কথা বলতে দেখা যায় প্রিয়ঙ্কাকে। তার মধ্যেই প্রিয়ঙ্কার পিছনে থাকা এক জনকে বলতে শোনা যায় ‘বন্ধ কর’। কিন্তু প্রিয়ঙ্কা তখন তাঁকে অভয় দিয়ে বলেন, ‘‘কিচ্ছু করবে না। আপনি ভয় পাচ্ছেন কেন?’’


আরও পড়ুন: বিবেক ‘ম্যানেজড’, আফতাব ‘দালাল’: যোগসাজশের বিস্ফোরক অভিযোগ তুলে দিল্লির দ্বারস্থ হচ্ছেন অধীর

আরও পড়ুন: দক্ষিণবঙ্গের ১৫ জেলায় তাণ্ডব চালাতে পারে ফণী, সতর্ক করল হাওয়া অফিস

প্রিয়ঙ্কার অভিনব এই ভোটপ্রচারের ভিডিয়ো সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট হতেই নানা রকম মন্তব্য শুরু হয়। বন্যপ্রাণ আইনে সাপ ধরা বা নিজের হেফাজতে রাখা বেআইনি। এই রকম একটি আইন বিরুদ্ধ বিষয়কে কার্যত সায় দিয়েছেন কংগ্রেস নেত্রী। তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন অনেকে। কেউ আবার নেহরু-গাঁধী পরিবারের একটি ছবি পোস্ট করে সমালোচনা করেছেন। ওই ছবিতেও দেখা যাচ্ছে এক সাপুড়ে সাপের খেলা দেখাচ্ছেন। আর সামনে দাঁড়িয়ে পরিবারের লোকজন ও বন্ধু-বান্ধবদের নিয়ে সেটা উপভোগ করছেন জওহরলাল নেহরু। নেহরু পরিবারের এটাই পরম্পরা বলে আক্রমণ করেছেন কয়েক জন। এক জন আবার সুক্ষ্ম খোঁচা দিয়ে লিখেছেন, সাপের সঙ্গে খেলা করা যে ভয়ঙ্কর, সেটা এবার বোঝা উচিত কংগ্রেসের।

উল্টে দিকে প্রিয়ঙ্কার প্রশংসাও করেছেন অনেকে। এই শিবিরের বক্তব্য, কোনও পরিস্থিতিতেই যে প্রিয়ঙ্কা ভয় পাওয়ার নন, সেটাই বোঝা গেল সাপ নিয়ে ভয়ডরহীন ভাবে নাড়াচাড়া করায়।

আরও পড়ুন

Advertisement