Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

ভোট নিয়ে উদাসীন পুলওয়ামা-শোপিয়ান

পুলওয়ামার এক বাসিন্দা এ দিন বলেই দিলেন, ‘‘আমরা ভোট দেব না। এখানে কী ঘটছে, তা আর গোপন নেই।’’

সাবির ইবন ইউসুফ
পুলওয়ামা ০৫ মে ২০১৯ ০২:১৫
Save
Something isn't right! Please refresh.
ফাইল চিত্র।

ফাইল চিত্র।

Popup Close

আগামী সোমবার (৬ মে) জম্মু-কাশ্মীরের অনন্তনাগ লোকসভা আসনে তৃতীয় দফার ভোট। সিআরপিএফের উপরে হামলার কারণে গোটা দেশের কাছে পরিচিত পুলওয়ামায় ভোট হবে সে দিন। সেইসঙ্গে হবে জঙ্গিদের গড় হিসেবে পরিচিত শোপিয়ানেও। তাই অনন্তনাগের অন্য এলাকার মতো পুলওয়ামা এবং শোপিয়ানেও ভোট নেই কোনও উত্তাপ নেই। শনিবারই অনন্তনাগের ভেরিনাগে বিজেপি নেতা গুল মহম্মদ মিরকে গুলি করে খুন করেছে জঙ্গিরা। ফলে আরও চড়েছে আতঙ্কের পারদ। পুলওয়ামার এক বাসিন্দা এ দিন বলেই দিলেন, ‘‘আমরা ভোট দেব না। এখানে কী ঘটছে, তা আর গোপন নেই।’’

সন্ত্রাস আর ভারত-বিরোধী মনোভাবের কারণে অনন্তনাগ কেন্দ্রে তিন দফায় ভোট করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে নির্বাচন কমিশন।

প্রথম দু’দফার ভোট হয়ে গিয়েছে ২৩ ও ২৯ এপ্রিল। এত কিছুর পরেও এই দু’দিন খুব বেশি লোককে বুথমুখী করা যায়নি। ২৩ ও ২৯ এপ্রিল অনন্তনাগ কেন্দ্রে ভোট পড়েছে যথাক্রমে ১৩.৬১% এবং ১০.৩২%। ৬ মে অনন্তনাগে তৃতীয় তথা শেষ দফার ভোট। এ বার কী হবে? পুলওয়ামা এবং শোপিয়ানের বাসিন্দাদের অভিযোগ, জঙ্গিরা ভোট বয়কট করার জন্য হুমকি দিচ্ছে। তথ্যও বলছে, গত তিন বছরে এই দু’টি জেলাতেই জঙ্গি হামলা ও সং‌ঘর্ষের ঘটনা সবচেয়ে বেশি। ফলে ৬ মে-র ভোট নিয়ে উদাসীন আমআদমি।

Advertisement

ভোট মরসুমে পুলওয়ামা এবং শোপিয়ানে ঘুরলে বিষয়টি আরও স্পষ্ট হয়ে উঠছে। সাধারণ মানুষের মুখে ভোট নিয়ে কোনও কথা নেই। রাস্তাঘাটে রাজনৈতিক ব্যানার বা হোর্ডিং প্রায় নেই বললেই চলে। স্থানীয় এক বাসিন্দার অভিযোগ, ‘‘গত কয়েক বছরে আমরা ভয়ঙ্কর নৃশংসতার শিকার। মনে হয় না নির্বাচনে এই অবস্থার পরিবর্তন হবে।’’ রাজনৈতিক দলগুলিরও তেমন কোনও কর্মসূচি চোখে পড়েনি এই দুই জেলায়। ২৪ এপ্রিল পুলওয়ামায় প্রথম রাজনৈতিক প্রচার শুরু করে মেহবুবা মুফতির পিপলস ডেমোক্র্যাটিক পার্টি (পিডিপি)। ২৩ এপ্রিল অনন্তনাগ কেন্দ্রে প্রথম দফা ভোটের পরের দিন! পুলওয়ামা কাণ্ডের পরে সাধারণ মানুষের জন্য দু’দিন সড়কে যাতায়াত নিষিদ্ধ করা এবং জেকেএলএফের প্রধান ইয়াসিন মালিককে আটক করার প্রতিবাদে পথে নামেন মুফতি এবং পিডিপি-র কর্মীরা। প্ল্যাকার্ড হাতে পুলওয়ামার টাউন হল থেকে ডেপুটি কমিশনারের দফতর পর্যন্ত মিছিল করেন তাঁরা। শনিবার পিডিপি-র এক নেতা বলেন, ‘‘এই দুই জেলায় এখন আতঙ্ক এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে যে জনসভা করা কার্যত অসম্ভব। কোনও গ্রামে নির্বাচনী প্রচার করতে যাওয়ার আগেও বেশ কয়েক জন স্থানীয় বাসিন্দার আস্থা জয় করতে হয়। এর মধ্যে পুলওয়ামায় মুফতি প্রতিবাদ মিছিল করেছেন। এটা দারুন ব্যাপার।’’

সব মিলিয়ে অনন্তনাগ লোকসভা কেন্দ্রের তৃতীয় দফার ভোটে কত জন বুথমুখী হবেন, তা নিয়ে সংশয় রয়েই যাচ্ছে। রাষ্ট্রবিজ্ঞানের শিক্ষক শামিন আহমেদ অবশ্য এখনই হতাশ হতে রাজি নন। তাঁর কথায়, ‘‘অনন্তনাগ কেন্দ্রের প্রথম দু’দফার ভোটে খুবই কম ভোট পড়েছে ঠিকই। কিন্তু শোপিয়ান এবং পুলওয়ামা জেলায় কেমন ভোট পড়ে তা দেখা উচিত।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement