Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৮ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

দেরি করে বাড়ি ফেরার ‘অপরাধে’ ঘুমন্ত স্বামীর মুখে ফুটন্ত তেল ঢেলে দিলেন স্ত্রী!

অরবিন্দ রাত করে বাড়ি ফিরতেই তুমুল বচসা শুরু হয় দু’জনের মধ্যে। তবে ওই দম্পতির মধ্যে উত্তপ্ত তর্কাতর্কি হলেও তা এক সময় থেমে যায়। 

সংবাদ সংস্থা
ভোপাল ০৫ জানুয়ারি ২০২১ ১৪:৫৭
গ্রাফিক: তিয়াসা দাস।

গ্রাফিক: তিয়াসা দাস।

স্বামী-স্ত্রীতে নিত্যদিনই ঝগড়াঝাঁটি লেগে থাকত। সেই ঝামেলা মেটাতেন পরিবারের লোকজন। তবে সম্প্রতি সে রকমই এক ঝগড়ার পরিণতি যে এমনটা হবে, তা বোধ হয় ভাবেননি ওই দম্পতির পরিবার। কাজ থেকে দেরি করে বাড়ি ফেরার ‘অপরাধে’ ঘুমন্ত স্বামীর মুখে ফুটন্ত তেল ঢেলে দিলেন তাঁর স্ত্রী। মধ্যপ্রদেশের সাগর জেলায় ওই অভিযোগে এক মহিলার বিরুদ্ধে মামলা রুজু করেছে পুলিশ। গুরুতর আহত অবস্থায় ওই মহিলার স্বামীকে হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে।

পুলিশ সূত্রে খবর, সোমবার সাগর জেলার বাসিন্দা পেশায় দিনমজুর অরবিন্দ আখিরওয়ারের সঙ্গে রীতিমতো ঝামেলা হয় তাঁর স্ত্রী শিবকুমারীর। বছর আটত্রিশের অরবিন্দের ‘অপরাধ’, তিনি প্রায়শই দেরি করে বাড়ি ফেরেন। সোমবার তা নিয়ে তুলকালাম করেন বছর পঁয়ত্রিশের শিবকুমারী। অরবিন্দ রাত করে বাড়ি ফিরতেই তুমুল বচসা শুরু হয় দু’জনের মধ্যে। তবে ওই দম্পতির মধ্যে উত্তপ্ত তর্কাতর্কি হলেও তা এক সময় থেমে যায়।

অরবিন্দের পরিবারের লোকজন পুলিশকে জানিয়েছে, ভোরবেলায় প্রচণ্ড চিৎকারে ঘুম ভেঙে যায় তাঁদের। অরবিন্দের ঘরে ছুটে গিয়ে দেখেন, যন্ত্রণায় কাতরাচ্ছেন তিনি। অরবিন্দের ভাইয়ের দাবি, “রাতে দু’জনের মধ্যে বেশিক্ষণ ঝগড়া গড়ায়নি। তবে ভোর ৫টা নাগাদ দাদার মুখে ফুটন্ত গরম তেল ঢেলে দিয়েছে বৌদি।”

Advertisement

আরও পড়ুন: ‘সেন্ট্রাল ভিস্টা’ প্রকল্পে সুপ্রিম কোর্টের সবুজ সঙ্কেত

আরও পড়ুন: টিকা নষ্টের হিসেব কষে ফেলল কেন্দ্র, ১০০ জনের জন্য দরকার ২২২টি

ঘটনার পর আহত অবস্থায় অরবিন্দকে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তাঁর মুখের অনেকাংশ পুড়ে গিয়েছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকেরা। এই ঘটনায় অরবিন্দের ভাইয়ের দাবি, রাগের বশে এমন কাণ্ড ঘটালেও রীতিমতো অনুতপ্ত শিবকুমারী। কারাপুর পুলিশ ফাঁড়ির দায়িত্বপ্রাপ্ত আধিকারিক যশপাল সিংহ শিশৌদিয়া জানিয়েছেন, এই ঘটনায় অরবিন্দের বয়ান নথিভুক্ত করার পাশাপাশি শিবকুমারীর বিরুদ্ধে মামলা রুজু করা হয়েছে।

আরও পড়ুন

Advertisement