Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৬ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

হাতে হাত মালয়েশিয়া ও ভারতের

গত দু’বছর ধরে আইএসের বিষাক্ত মৌলবাদী প্রচারের বিরুদ্ধে আধুনিক পন্থায় লড়ে চলেছে দেশটি। এ বার মৌলবাদ তাড়াতে সেই দেশের সাহায্য নিতে চলেছে ভার

অগ্নি রায়
নয়াদিল্লি ০১ এপ্রিল ২০১৭ ০৩:৪২
Save
Something isn't right! Please refresh.
Popup Close

গত দু’বছর ধরে আইএসের বিষাক্ত মৌলবাদী প্রচারের বিরুদ্ধে আধুনিক পন্থায় লড়ে চলেছে দেশটি। এ বার মৌলবাদ তাড়াতে সেই দেশের সাহায্য নিতে চলেছে ভারত। মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী নজিব রাজাক এই মূহুর্তে ভারতে। আগামী কাল প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে শীর্ষ বৈঠকে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হওয়ার কথা। বিদেশ মন্ত্রক সূত্রের খবর, এ বিষয়ে চুক্তিও সই হবে দু’দেশের।

সাউথ ব্লকের একটি সূত্র জানাচ্ছে, একটি মুসলিম দেশ হওয়া সত্ত্বেও মৌলবাদ-বিরোধী কাজে গোটা দক্ষিণ এশিয়ায় সবচেয়ে এগিয়ে মালয়েশিয়া। ভারত তারই অংশীদার হতে চায়। ইসলামিক পাঠ্যক্রমে মৌলবাদের কুফলের দিকটি অন্তর্ভুক্ত করার পাশাপাশি মালয়েশিয়ার সমস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে গোটা বছর ধরে চালানো হয় বিভিন্ন প্রকল্প এবং কর্মসূচি। সন্ত্রাসবাদ মোকাবিলা নিয়েও রয়েছে বিভিন্ন পাঠ্যক্রম। যারা সন্ত্রাসবাদের দায়ে দীর্ঘদিন হাজতবাস করছে, তাদের সমাজের মূল স্রোতে ফিরিয়ে আনা, হিংসামুক্ত জীবনে সামিল করার জন্যও বিভিন্ন সরকারি প্রতিষ্ঠান রয়েছে সে দেশে।

সূত্রের খবর, মালয়েশিয়ার ‘ন্যাশনাল কমিটি অন ইসলামিক এডুকেশন অ্যাফেয়ার্স’ এবং শিক্ষা মন্ত্রকের সঙ্গে ভারতের মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রক গাঁটছড়া বাঁধবে। ধর্মীয় শিক্ষার আধুনিকীকরণ ঘটানো এবং যুবশক্তিকে মৌলবাদের প্রভাবমুক্ত করার জন্য মালয়েশিয়ার সরকারি সংস্থাগুলি সাহায্য করবে। উগ্র মৌলবাদের মোকাবিলা নিয়ে একটি আন্তর্জাতিক সম্মেলন করতেও কুয়ালা লামপুরের পাশে দাঁড়াতে চলেছে নয়াদিল্লি। গত কাল চেন্নাইয়ে পা রেখে ভারত সফর শুরু করেছেন রাজাক। বিদেশ মন্ত্রক জানাচ্ছে, সন্ত্রাসবাদ মোকাবিলায় বড় ভূমিকা নিতে চলেছে দু’দেশের সম্পর্ক। বছর দেড়েক আগে মালয়েশিয়া এক জঙ্গি সিরিয়ায় যুদ্ধরত মহম্মদ জেইদির নির্দেশে কুয়ালা লামপুরের বাইরে পুচং জেলার একটি রেস্তোরাঁয় গ্রেনেড হামলা চালায়। তার পর থেকে লাগাতার আইএসের সন্ত্রাবাদের বিরুদ্ধে লড়ে চলেছে মালয়েশিয়া।

Advertisement


Something isn't right! Please refresh.

আরও পড়ুন

Advertisement