Advertisement
২৬ মে ২০২৪
Noida Crime

মাথা টিপে দিতে দেরি কেন? রেগে কন্যাদের চোখের সামনেই ইট মেরে স্ত্রীর মাথা থেঁতলে দিলেন স্বামী!

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, নিহত মহিলার নাম প্রতিভা গিরি ওরফে রেনু। অভিযুক্ত স্বামীর নাম হরেন্দ্র গিরি। তাঁরা উত্তরপ্রদেশের ফৈজ়াবাদের বাসিন্দা। কয়েক দিন আগেই স্ত্রী এবং তিন কন্যাকে নিয়ে নয়ডায় এসেছিলেন হরেন্দ্র।

—প্রতীকী ছবি।

আনন্দবাজার অনলাইন ডেস্ক
কলকাতা শেষ আপডেট: ১৫ মে ২০২৪ ১১:৩১
Share: Save:

মাথা টিপে দিতে দেরি করায় স্ত্রীকে খুন করার অভিযোগ উঠল স্বামীর বিরুদ্ধে। নয়ডার ছাজারসি গ্রামের ঘটনা। ইতিমধ্যেই অভিযুক্ত স্বামীকে গ্রেফতার করেছে উত্তরপ্রদেশের পুলিশ। পুলিশ জানিয়েছে, বিভিন্ন বিষয় নিয়ে প্রায়ই ওই দম্পতির মধ্যে অশান্তি লেগে থাকত। সোমবার রাতে মাথা টেপা নিয়ে অশান্তি হওয়ার সময় কন্যাদের সামনেই অভিযুক্ত তাঁর স্ত্রীর মাথা ইট দিয়ে থেঁতলে দেন বলে অভিযোগ।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, নিহত মহিলার নাম প্রতিভা গিরি ওরফে রেনু। অভিযুক্ত স্বামীর নাম হরেন্দ্র গিরি। তাঁরা উত্তরপ্রদেশের ফৈজ়াবাদের বাসিন্দা। কয়েক দিন আগেই স্ত্রী এবং তিন কন্যাকে নিয়ে নয়ডায় এসেছিলেন হরেন্দ্র। নয়ডার সেক্টর ৬৩ থানার পুলিশ আধিকারিক অবধেশ প্রতাপ সিংহ সংবাদমাধ্যম ‘হিন্দুস্তান টাইমস’কে বলেন, “হরেন্দ্র নয়ডার একটি বেসরকারি সংস্থায় কাজ করেন। পরিবারকে নিয়ে অযোধ্যা থেকে দু’দিন আগেই নয়ডার সেক্টর ৬৩-এর ছাজারসি গ্রামে একটি বাড়ি ভাড়া নিয়ে এসেছিলেন তিনি।”

পুলিশ জানিয়েছে, সোমবার রাত সাড়ে ১০টা নাগাদ মত্ত অবস্থায় বাড়ি ফেরেন হরেন্দ্রবাড়িতে এসে স্ত্রী প্রতিভাকে মাথা টিপে দিতে বলেন। সেই সময় রান্না করছিলেন প্রতিভা। তাই স্বামীকে অপেক্ষা করতে বলেন। সেই সময়ই ঘরে রাখা একটি ইট তুলে স্ত্রীর উপর চড়াও হন হরেন্দ্র। প্রতিভার চিৎকারে প্রতিবেশীরা ছুটে দেখেন তিনি রক্তাক্ত অবস্থায় মাটিতে পড়ে রয়েছেন। এর পর স্থানীয়েরা প্রতিভাকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকেরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

পুলিশ জানিয়েছে, প্রতিভার মাথায় গুরুতর চোট লাগার কারণে তাঁর মৃত্যু হয়েছে। মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। পুরো বিষয়টি খতিয়ে দেখতে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Noida Crime Death
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE