Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৮ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

সুকমায় ফের মাওবাদী হানা, হত ২৫ জওয়ান

নিজস্ব সংবাদদাতা
রায়পুর ও নয়াদিল্লি ২৫ এপ্রিল ২০১৭ ০৪:২৫
আক্রান্ত: হেলিকপ্টারে করে রায়পুরে নিয়ে আসা হচ্ছে আহত জওয়ানদের। ছবি: পিটিআই

আক্রান্ত: হেলিকপ্টারে করে রায়পুরে নিয়ে আসা হচ্ছে আহত জওয়ানদের। ছবি: পিটিআই

দেড় মাসের ব্যবধানে সুকমায় ফের বড়সড় হামলা চালাল মাওবাদীরা। সোমবার দুপুরের এই হামলায় মৃত্যু হয়েছে অন্তত ২৫ সিআরপি জওয়ানের। আহত ৭। পাল্টা গুলিতে একাধিক মাওবাদীর মৃত্যু হয়েছে বলে দাবি সিআরপিএফের। গত মাসেই সুকমায় মাওবাদী হামলায় প্রাণ হারান ১২ সিআরপি জওয়ান।

এ দিন দিল্লিতে ছিলেন ছত্তীসগঢ়ের মুখ্যমন্ত্রী রমন সিংহ। খবর পেয়েই তড়িঘড়ি রায়পুরে ফিরে শীর্ষ আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন তিনি। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিংহ টুইটারে নিহত জওয়ানদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী হংসরাজ আহির ছত্তীসগঢ় যাচ্ছেন।

এক সিআরপিএফ অফিসার জানান, দুপুর একটা নাগাদ দক্ষিণ বস্তারের মাওবাদী-অধ্যুষিত বুরকাপাল-চিন্তাগুফা এলাকায় একটি রাস্তায় তল্লাশির কাজ চালাচ্ছিলেন সিআরপি-র ৭৪ ব্যাটেলিয়নের জওয়ানেরা। তখনই হামলা হয়।

Advertisement

আরও পড়ুন: গরহাজিরার প্রশ্ন তুলতেই মমতার পাল্টা

হামলায় বেঁচে গিয়েছেন সিআরপি জওয়ান শের মহম্মদ। তাঁর কথায়, ‘‘আমরা বুরকাপালে পৌঁছতেই চার দিক থেকে ঘিরে ফেলে গুলি চালাতে শুরু করে অন্তত শ’তিনেক মাওবাদী। সেই দলে কয়েক জন মহিলাও ছিল। সকলের হাতেই ইনস্যাস রাইফেল, একে-৪৭, লাইট মেশিনগান ও অটোমেটিক গানের মতো আধুনিক অস্ত্র ছিল।’’ সূত্রের খবর, মাওবাদীরা প্রথমে গ্রামবাসীদের পাঠিয়ে জওয়ানদের অবস্থান ও সংখ্যা জেনে নেয়। তার পরে নিশ্চিত হয়েই হামলা চালায়। হতচকিত জওয়ানেরা গোড়ায় প্রত্যাঘাত করেননি। পরে সামলে নিয়ে পাল্টা গুলি চালালে অন্তত ১২ মাওবাদীর মৃত্যু হয়েছে বলে দাবি।

সিআরপি সূত্রে দাবি, ব্যাটেলিয়ন কম্যান্ডার-সহ ৮ জওয়ান এখনও নিখোঁজ। হাসপাতালে যাওয়ার পথে এক জওয়ানের মৃত্যু হয়। নিহত ২৫ জওয়ানের মধ্যে তিন জন বাঙালি বলে একটি সূত্রে জানা গিয়েছে। আহতদের রায়পুরে একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশ সূত্রে খবর, বুরকাপালে কোবরা বাহিনীর ক্যাম্প থেকে অতিরিক্ত বাহিনী পাঠানো হয়েছে। সন্ধে পর্যন্ত উদ্ধারকাজ চলেছে।

আরও পড়ুন

Advertisement