×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২০ জানুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

ফের আটক তিনি, গৃহবন্দি মেয়ে ইলতিজাও, টুইট করে জানালেন মেহবুবা

সংবাদ সংস্থা
শ্রীনগর২৭ নভেম্বর ২০২০ ১৪:১৮
—ফাইল চিত্র।

—ফাইল চিত্র।

উপত্যকায় ফের বন্দি করা হয়েছে তাঁকে। গৃহবন্দি করা হয়েছে তাঁর মেয়েকেও। নিজেই টুইট করে জানালেন জম্মু ও কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি। জেলা উন্নয়ন পরিষদের (ডিডিসি) নির্বাচনের আগে সন্ত্রাস সংযোগের অভিযোগে সম্প্রতি পিপলস ডেমোক্র্যাটিক পার্টির (পিডিপি) নেতা ওয়াহিদ পারাকে গ্রেফতার করেছে জাতীয় তদন্তকারী সংস্থা (এনআইএ)। ওয়াহিদের পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করতে চাওয়াতেই তাঁদের বন্দি করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন পিডিপি নেত্রী।

শুক্রবার সকালে নিজের টুইটার হ্যান্ডলে মেহবুবা লেখেন, ‘ফের বেআইনি ভাবে আটক করা হয়েছে আমায়। গত দু’দিন ধরে পুলওয়ামায় ওয়াহিদের পরিবারের সঙ্গে দেখা করার অনুমতি দিচ্ছিল না জম্মু ও কাশ্মীর প্রশাসন। বিজেপির মন্ত্রী এবং তাঁদের অনুচরদের কাশ্মীরে অবাধ বিচরণের অনুমতি রয়েছে। শুধু আমার বেলাতেই নিরাপত্তার দোহাই’।

ওয়াহিদের পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে চাওয়ায় তাঁর মেয়েকেও গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন মেহবুবা। তিনি লেখেন, ‘এদের নিষ্ঠুরতার কোনও সীমা নেই। ভিত্তিহীন অভিযোগ এনে ওয়াহিদকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ওঁর পরিবারকে সমবেদনা জানানোর অধিকারটুকুও নেই আমার। এমনকি আমার মেয়ে ইলতিজাকেও গৃহবন্দি করা হয়েছে। ওয়াহিদের পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে চেয়েছিল বলে আমার মেয়ে ইলতিজাকেও গৃহবন্দি করা হয়েছে’। এই মুহূর্তে তাঁদের কোথায় রাখা হয়েছে, তা যদিও খোলসা করেননি মেহবুবা। দুপুর ৩টেয় সাংবাদিক বৈঠক করে বিশদে সব কিছু জানাবেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

Advertisement

আরও পড়ুন: দিল্লির সীমানায় ব্যারিকেড ভাঙার চেষ্টা কৃষকদের, বাধা দিচ্ছে পুলিশ​

আরও পড়ুন: প্রতিষেধক না নেওয়ার অধিকার রয়েছে আমার, বলসোনারোর মন্তব্যে ফের বিতর্ক​

জেলা পরিষদের নির্বাচন ঘিরে উপত্যকায় প্রস্তুতি যখন তুঙ্গে, ঠিক সেই সময় বুধবার ওয়াহিদ পারাকে গ্রেফতার করে এনআইএ। জঙ্গি সংগঠন হিজবুল মুজাহাদিনের কমান্ডার নভীদ বাবুর সঙ্গে তাঁর সংযোগ ছিল বলে অভিযোগ। কিন্তু কাশ্মীরের বিজেপি বিরোধী রাজনৈতিক শিবির এই অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছে। তাদের দাবি, মেহবুবা-ঘনিষ্ঠ বলে পরিচিত ওয়াহিদ। দক্ষিণ কাশ্মীরে পিডিপি-র ভিত মজবুত করাতেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা ছিল তাঁর। পুলওয়ামা থেকে জেলা পরিষদের নির্বাচনে মনোনয়নও জমা দিয়েছিলেন তিনি। 

Advertisement