Advertisement
১৪ জুন ২০২৪

এসপিজি আইনের সংশোধনী পেশ

আগে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রীদের ক্ষেত্রে নিরাপত্তার বিষয়টি খতিয়ে দেখে সিদ্ধান্ত হত এসপিজি দেওয়া হবে কি না।

ফাইল চিত্র।

ফাইল চিত্র।

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি শেষ আপডেট: ২৬ নভেম্বর ২০১৯ ০৩:০৩
Share: Save:

আজ সংসদে এসপিজি আইন সংশোধনী বিল পেশ করল স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। এই বিলে প্রত্যাশিত ভাবেই এসপিজি নিরাপত্তা পাবে না গাঁধী পরিবার। বিল পাশ হলে প্রধানমন্ত্রী ও তাঁর সরকারি বাসভবনে বাসরত পরিবারের সদস্যেরা এসপিজি নিরাপত্তা পাবেন। প্রধানমন্ত্রীর মেয়াদ ফুরোনোর পর থেকে পাঁচ বছর প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ও তাঁর বাসভবনে বসবাসকারী পরিবারের সদস্যেরা পাবেন এসপিজি নিরাপত্তা।

আগে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রীদের ক্ষেত্রে নিরাপত্তার বিষয়টি খতিয়ে দেখে সিদ্ধান্ত হত এসপিজি দেওয়া হবে কি না। সংশোধনী অনুযায়ী, পাঁচ বছর পেরোনোর পরে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রীদের উপর থেকে এসপিজি প্রত্যাহার করা হলে তাঁর পরিবারও সেই নিরাপত্তা পাবে না।

এই সংশোধনী অনুযায়ী, এক ঢিলে দুই পাখি মারল কেন্দ্র। বর্তমানে জীবিত দুই প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রীর মধ্যে দেবগৌড়া প্রধানমন্ত্রী ছিলেন দু’দশকেরও আগে। মনমোহন সিংহ প্রধানমন্ত্রীর মসনদ ছাড়ার পাঁচ বছর পেরিয়ে গিয়েছে সদ্য। ২০২৪ সালের পরে যদি আর প্রধানমন্ত্রী না-ও থাকেন মোদী, সে ক্ষেত্রেও তিনি ২০২৯ পর্যন্ত এসপিজি নিরাপত্তা পাবেন। ঘটনাচক্রে মোদীর সঙ্গে থাকেন না তাঁর পরিবার অর্থাৎ তাঁর স্ত্রী, ভাই কিংবা মা। ফলে আইন সংশোধনের পরে এ বার থেকে সাড়ে তিন হাজার এসপিজি বরাদ্দ থাকবে শুধু মোদীর জন্যই।

১৯৮৪ সালে ইন্দিরা গাঁধীর মৃত্যুর পরে এসপিজি আইন আনা হয়েছিল প্রধানমন্ত্রী ও তাঁর পরিবারের নিরাপত্তার জন্য। এখনও পর্যন্ত চার বার সেই আইন সংশোধন করা হয়েছে। এত দিন সনিয়া গাঁধী, রাহুল গাঁধী ও প্রিয়ঙ্কা গাঁধী বঢরা এসপিজি সুরক্ষা পেতেন। চলতি মাসে সেই নিরাপত্তা প্রত্যাহার করে মোদী সরকার। তার পরেই কংগ্রেসের তরফে অভিযোগ করা হয়, গাঁধী পরিবারের নিরাপত্তা নিয়ে খেলা করা হচ্ছে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE