Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৮ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

সেকেন্ড হ্যান্ড গাড়ি কিনলেন মুকেশ অম্বানী! হ্যাঁ, সত্যিই তাই...

তাঁর সংগ্রহে থাকা গাড়ির তালিকায় এ বার যুক্ত হল বিশ্বের অন্যতম জনপ্রিয় ইলেকট্রিক গাড়ি টেসলার নাম। কিন্তু অম্বানীর কেনা গাড়িটি সেকেন্ড হ্যা

সংবাদ সংস্থা
মুম্বই ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ১৭:৪৮
Save
Something isn't right! Please refresh.
টেসলার এই ইলেকট্রিক গাড়িই কিনেছেন মুকেশ অম্বানি। ছবি টুইটার থেকে সংগৃহীত।

টেসলার এই ইলেকট্রিক গাড়িই কিনেছেন মুকেশ অম্বানি। ছবি টুইটার থেকে সংগৃহীত।

Popup Close

মুকেশ অম্বানী, ভারতের সবথেকে ধনী ব্যক্তি। বিশ্বের বিলাসবহুল সব গাড়ি যে তাঁর গ্যারাজে শোভা পাবে, তাতে অবাক হওয়ার কিছু নেই। কিছুদিন আগেই রোলস রয়েসের কালিনান গাড়িটি কিনেছিলেন তিনি। তাঁর সংগ্রহে থাকা গাড়ির তালিকায় এ বার যুক্ত হল বিশ্বের অন্যতম জনপ্রিয় ইলেকট্রিক গাড়ি টেসলার নাম। কিন্তু অম্বানীর কেনা গাড়িটি সেকেন্ড হ্যান্ড!

টেসলার এস১০০ডি মডেলের এই গাড়িটি বাজারে এসেছিল ২০১২তেই। মাত্র ৪২ মিনিট চার্জ দিয়েই প্রায় ৩৯৬ কিলোমিটার যেতে পারে এই গাড়ি। আর শূন্য থেকে ঘণ্টায় ১০০ কিলোমিটার গতি তুলতে টেসলার এই মডেলের সময় লাগে মাত্র ৪.৩ সেকেন্ড। আমেরিকার বাজারে গাড়িটির দাম ৭৫ লক্ষ টাকা হলেও বিভিন্ন কর দেওয়ার পর ভারতে গাড়িটির দাম প্রায় দেড় কোটি টাকা।

দেড় কোটির এই ইলেকট্রিক গাড়িটির রেজিস্টেশন করা হয়েছে রিলায়েন্স ইন্ড্রাস্ট্রিজ লিমিটেডের নামে। কিন্তু এর আগে এই রেজিস্ট্রেশন ছিল অন্য জনের। সেই অর্থে মুকেশ অম্বানীর কোম্পানি এই গাড়িটির দ্বিতীয় মালিক। কেন জানেন?

Advertisement

এটি আসলে বিদেশ থেকে আমদানি করা একটি গাড়ি। বিদেশ থেকে আমদানি করার সময় গাড়ির কাগজপত্র ও রেজিস্টেশন সংক্রান্ত কাজকর্ম বেশ ঝামেলাপূর্ণ। তা এড়ানোর জন্য আমদানিকারী কোম্পানির নামে রেজিস্ট্রেশন করা হয়েছিল এই গাড়ির। তার পর হাত বদল করে এই টেসলা গাড়ির রেজিস্ট্রেশন করা হয় রিলায়েন্স ইন্ড্রাস্ট্রিজ লিমিটেডের নামে। আর হাত বদল হওয়া যে কোনও জিনিসকে আমরা চলতি ভাষায় আমরা সেকেন্ড হ্যান্ডই বলি। সেই অর্থে, দেশের সবথেকে ধনী ব্যক্তির কেনা টেসলা গাড়িটিও কিন্তু সেকেন্ড হ্যান্ড।



অম্বানীর টেসলা গাড়ির রেজিস্ট্রেশন সংক্রান্ত তথ্য। ছবি- পরিবহন ডট ওআরজি ডট ইন ও আরটিও কার ভেহিকেল অ্যাপের স্ত্রিনশট।

আরও পড়ুন: ৫০০ টাকা বেস প্রাইসের মোদীর ফটো স্ট্যান্ড বিক্রি হল এক কোটিতে!

আরও পড়ুন: ‘শিক্ষা’ দিতে হাতুড়ি দিয়ে ছাত্র-ছাত্রীদের মোবাইল ভাঙছেন অধ্যক্ষ!



Something isn't right! Please refresh.

Advertisement