Advertisement
০৪ অক্টোবর ২০২২
Mukul Sangma

Mukul Sangma: মুকুল সাংমা-সহ ১২ কংগ্রেস বিধায়ক দলে, মেঘালয়ে প্রধান বিরোধী দল এখন তৃণমূল

মেঘালয়ে কংগ্রেসের বিধায়ক সংখ্যা ১৮ থেকে কমে হল ৬। সেই হিসেবে মেঘালয়ে প্রধান বিরোধী দল হিসেবে উঠে এল তৃণমূল।

বৃহস্পতিবার সাংবাদিক বৈঠকে মুকুল সাংমা। ছবি সৌজন্য টুইটার।

বৃহস্পতিবার সাংবাদিক বৈঠকে মুকুল সাংমা। ছবি সৌজন্য টুইটার।

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি শেষ আপডেট: ২৫ নভেম্বর ২০২১ ১৩:২৪
Share: Save:

১১ জন বিধায়ককে নিয়ে দল ছেড়ে বৃহস্পতিবার তৃণমূলে যোগ দিলেন মেঘালয়ের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা কংগ্রেস নেতা মুকুল সাংমা। এর ফলে মেঘালয়ে কংগ্রেসের বিধায়ক সংখ্যা ১৮ থেকে কমে হল ৬। সেই হিসেবে মেঘালয়ে প্রধান বিরোধী দল হিসেবে উঠে এল তৃণমূল।

কয়েক দিন ধরেই জল্পনা চলছিল মুকুল যোগ দিতে পারেন তৃণমূলে। তাঁর সঙ্গে বেশ কয়েক জন বিধায়কও যেতে পারেন। অবশেষ সেই জল্পনার অবসান হল বৃহস্পতিবার। আনুষ্ঠানিক ভাবে ১১ জন বিধায়ককে নিয়ে তৃণমূলে যোগ দিলেন মেঘালয়ের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী। কেন তিনি দল ছাড়লেন, বৃহস্পতিবার তার বেশ কয়েকটি কারণ তুলে ধরেছেন মুকুল। তার মধ্যে অন্যতম একটি কারণ হল, দেশে বিরোধী দল হিসেবে কাজ করতে ব্যর্থ হয়েছে কংগ্রেস। এমনটাই জানিয়েছেন সদ্য তৃণমূলে যোগ দেওয়া মুকুল।

২০১০ থেকে ২০১৮ পর্যন্ত মেঘালয়ের মুখ্যমন্ত্রী ছিলেন মুকুল। পূর্ব গারো পাহাড়ের প্রভাবশালী নেতা। কিন্তু কেন তিনি হঠাৎ কংগ্রেস ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিলেন তা নিয়ে জোর চর্চা চলছিল রাজনৈতিক মহলে? স্থানীয় সূত্রের খবর, মুকুলের বিরোধী গোষ্ঠীর নেতা হিসেবে পরিচিত লোকসভা সাংসদ ভিনসেন্ট পালাকে মাস দেড়েক আগে মেঘালয় প্রদেশ কংগ্রেসের সভাপতি নিয়োগ করা হয়। তার পর থেকেই দলের সঙ্গে দূরত্ব বাড়তে শুরু করে মুকুলের। পাশাপাশি তৃণমূলের সঙ্গে ‘যোগাযোগ’-এর কাজটাও চালিয়ে যাচ্ছিলেন তিনি। কলকাতায় এসে ভোটকুশলী প্রশান্ত কিশোরের সঙ্গে যোগাযোগ করেছিলেন বলে সূত্রের খবর। যদিও সেটাকে তিনি ‘সৌজন্য সাক্ষাৎ’ বলে দাবি করেছিলেন। কিন্তু সেই সাক্ষাতের পর থেকেই রাজনৈতিক মহলে জোর চর্চা শুরু হয়, এ বার তৃণমূলের দিকে পা বাড়াতে পারেন মুকুল।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.