Advertisement
০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
Narendra Modi

প্রধানমন্ত্রী মোদীকে হুমকি! অডিয়ো-সহ হোয়াটসঅ্যাপ বার্তা পেল মুম্বইয়ের ট্র্যাফিক পুলিশ

পুণের পর এ বার মুম্বই পুলিশের কাছে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বিরুদ্ধে বার্তা এল। যদিও পুণে পুলিশের দাবি ছিল, অবসাদগ্রস্ত এক ব্যক্তি ভুয়ো ফোন করেছিলেন।

সোমবার রাতে মুম্বই ট্র্যাফিক পুলিশের হেল্পলাইন নম্বরে প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে হুমকি দেওয়া একটি বার্তা আসে।

সোমবার রাতে মুম্বই ট্র্যাফিক পুলিশের হেল্পলাইন নম্বরে প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে হুমকি দেওয়া একটি বার্তা আসে। —ফাইল চিত্র।

সংবাদ সংস্থা
মুম্বই শেষ আপডেট: ২২ নভেম্বর ২০২২ ১৬:৫৮
Share: Save:

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে হুমকি দিয়ে একটি অডিয়ো ক্লিপ-সহ হোয়াটসঅ্যাপ মেসেজ পেল মুম্বইয়ের ট্র্যাফিক পুলিশ। মঙ্গলবার এ কথা জানিয়েছেন মুম্বই পুলিশ কর্তৃপক্ষ। কে বা কারা এর পিছনে রয়েছেন, তা খতিয়ে দেখছেন তাঁরা।

Advertisement

পুলিশ জানিয়েছে, সোমবার রাতে মুম্বই ট্র্যাফিক পুলিশের হেল্পলাইন নম্বরে প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে হুমকি দেওয়া একটি বার্তা আসে। হোয়াটসঅ্যাপে ওই বার্তায় একটি অডিয়ো ক্লিপও ছিল। যদিও কে বা কারা এই বার্তাটি পাঠিয়েছেন, তা জানা যায়নি। ওই হোয়াটসঅ্যাপ নম্বরের ইউজ়ার আইডি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

এই হুমকি-বার্তাটি ভুয়ো কি না, তা-ও খতিয়ে দেখছেন তদন্তকারীরা। গত মাসেই পুণে পুলিশের কাছে এ ধরনের একটি ভুয়ো ফোন এসেছিল। ওই অভিযোগে ৩৮ বছরের এক ব্যক্তিকে গ্রেফতারও করে পুলিশ। পুণে পুলিশের কন্ট্রোল রুমে ফোন করে ওই অভিযুক্ত দাবি করেন যে, প্রধানমন্ত্রীকে খুন করার জন্য একটি ফ্ল্যাটে বসে ছক কষছেন দুষ্কৃতীরা। পাশাপাশি, পুণে এবং মুম্বইয়ের রেলস্টেশনগুলিতে বোমা বিস্ফোরণেরও পরিকল্পনা রয়েছে তাঁদের।

পুলিশের দাবি, ৪ অক্টোবর পুণে পুলিশের কাছে ভুয়ো ফোন করেছিলেন পিম্পরি চিঞ্চওয়াড় পুরনিগম এলাকার এক বাসিন্দা। মানসিক অবসাদে ভোগা ওই ব্যক্তির আবাসনের উপরতলার ফ্ল্যাটের বাচ্চাদের চিৎকার-চেঁচামেচিতে তিতিবিরক্ত হয়েই পুলিশের কাছে ওই ভুয়ো দাবি করেছিলেন। ওই বাচ্চাদের উচিত শিক্ষা দিতেই এমন করেছিলেন বলেও দাবি।

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.