Advertisement
৩০ জানুয়ারি ২০২৩

শরিয়তেই আস্থা রাখতে মহিলা শাখা ল বোর্ডের

তিন তালাক প্রথা বন্ধের দাবিতে মুসলিম মহিলাদেরই একটি অংশ সুপ্রিম কোর্টে জনস্বার্থ মামলা করেছেন। তার বিরোধিতা করে শরিয়তি আইনের প্রতি মুসলিম মহিলাদের আস্থা ধরে রাখতে এই প্রথম সারা ভারত মুসলিম পার্সোনাল ল বোর্ড মহিলাদের জন্য আলাদা একটি শাখা খোলার সিদ্ধান্ত নিল।

নিজস্ব সংবাদদাতা
শেষ আপডেট: ২১ নভেম্বর ২০১৬ ০৩:৫৫
Share: Save:

তিন তালাক প্রথা বন্ধের দাবিতে মুসলিম মহিলাদেরই একটি অংশ সুপ্রিম কোর্টে জনস্বার্থ মামলা করেছেন। তার বিরোধিতা করে শরিয়তি আইনের প্রতি মুসলিম মহিলাদের আস্থা ধরে রাখতে এই প্রথম সারা ভারত মুসলিম পার্সোনাল ল বোর্ড মহিলাদের জন্য আলাদা একটি শাখা খোলার সিদ্ধান্ত নিল। পারিবারিক সমস্যা, তালাকের মতো পরিস্থিতি তৈরি হলে মহিলারা কী করবেন, কাউন্সেলিংয়ের মাধ্যমে তাঁদের সাহায্য করবে এই মহিলা শাখা। কোনও ভাবে যাতে মহিলারা তিন তালাকের বিরোধিতা না করেন, তা-ও বোঝাবে এই শাখা।

Advertisement

কেন্দ্রের তিন তালাক বন্ধের চেষ্টার মোকাবিলায় এই সিদ্ধান্তের পাশাপাশি নরেন্দ্র মোদী সরকারের বিরুদ্ধে রবিবার আরও সুর চড়িয়েছে সারা ভারত মুসলিম পার্সোনাল ল’বোর্ড। দেশের সব ধর্মনিরপেক্ষ শক্তিকে একজোট করে কেন্দ্রবিরোধী এই আন্দোলনে সামিল হতে মুসলিম ল’বোর্ডের পাশে দাঁড়িয়েছে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূলও।

দেশের বিভিন্ন প্রান্তের প্রতিনিধিদের নিয়ে এ দিন পার্ক সার্কাস ময়দানে বিশাল সমাবেশ করেছে মুসলিম পার্সোনাল ল’বোর্ড। তার পাশাপাশিই বোর্ডের তরফে মুসলিম মহিলাদের জন্য শাখা খোলার কথাও জানানো হয়েছে। বোর্ডের বক্তব্য, দেশব্যাপী টোল ফ্রি একটি সেন্টারে উর্দু, ইংরেজির মতো ৮টি ভাষায় মহিলাদের ব্যক্তিগত এবং পারিবারিক বিভিন্ন সমস্যার কাউন্সেলিং করা হবে। তবে বোর্ড স্পষ্ট ভাবে বুঝিয়ে দিয়েছে, মহিলাদের পাশে দাঁড়ালেও কোনও ভাবেই শরিয়তি আইনের বিপক্ষে যাবে না ওই মহিলা শাখা।

পাসোর্নাল ল’বোর্ডের সমাবেশে তৃণমূলের একঝাঁক সাংসদ, মন্ত্রী, মেয়র পারিষদ বার্তা দিয়েছেন যে, তৃণমূল তিন তালাকের বিরোধিতা করছে না। মন্ত্রী সিদ্দিকুল্লা চৌধুরী থেকে সাংসদ সুলতান আহমেদ, ইদ্রিস আলি, আহমেদ হাসান ইমরান বুঝিয়েছেন, তাঁরা শরিয়তি আইন মেনে তিন তালাকের পক্ষেই। কেন্দ্রের অভিন্ন দেওয়ানি বিধিও কার্যকর করতে তাঁরা দেবেন না। এর আগেও দুই মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় ও ফিরহাদ হাকিম সিদ্দিকুল্লার জমিয়তে উলামায়ে হিন্দের সমাবেশে গিয়ে তালাকের পক্ষে সওয়াল করেছিলেন।

Advertisement

সিদ্দিকুল্লা বলেন, ‘‘২২ অক্টোবর কোর কমিটির বৈঠকে মমতাদি (মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়) জানিয়ে দিয়েছেন, তিনি এ রাজ্যে অভিন্ন দেওয়ানি বিধি চালু করতে দেবেন না। তাই দেশের সব ধর্মনিরপেক্ষ শক্তিকে অনুরোধ করব, তারাও যেন অভিন্ন দেওয়ানি বিধির বিরুদ্ধেই নিজেদের মত জানায়।’’ তিন তালাক নিয়ে সুপ্রিম কোর্টে মামলা হলেও আদালতের হস্তক্ষেপ দরকার নেই বলে ইতিমধ্যেই সিদ্ধান্ত নিয়েছে মুসলিম পার্সোনাল ল’বোর্ড। তা সত্ত্বেও শরিয়তি আইনে কোনও রকম হস্তক্ষেপ হলে দেশ জুড়ে আন্দোলন করা হবে বলে এ দিন জানিয়েছেন মুসলিম পার্সোনাল ল’বোর্ডের সদস্য সুলতান।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.