Advertisement
২৩ জুন ২০২৪
Shivsena

পাকিস্তান ও বাংলোদেশি মুসলিমদের দেশ থেকে তাড়ানো উচিত, সামনায় শিবসেনার মন্তব্যে বিতর্ক

সিএএ নিয়ে বিজেপিকেও নিশানা করেছে শিবসেনা।

উদ্ধব ঠাকরে। ফাইল চিত্র।

উদ্ধব ঠাকরে। ফাইল চিত্র।

সংবাদ সংস্থা
মুম্বই শেষ আপডেট: ২৫ জানুয়ারি ২০২০ ১১:১২
Share: Save:

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন (সিএএ) নিয়ে যে শিবসেনা মোদী সরকারের বিরোধিতা করেছে, এ বার তাদের মুখেই শোনা গেল উল্টো সুর। শনিবার মুখপত্র ‘সামনা’-য় রীতিমতো হুঁশিয়ারি দিয়ে শিবসেনা বলেছে, পাকিস্তান এবং বাংলাদেশের মুসলিমদের এ দেশ থেকে বাইরে ছুড়ে ফেলা উচিত এবং এ ব্যাপারে কোনও সন্দেহ নেই। গোটা দেশ যখন সিএএ নিয়ে বিক্ষোভ-প্রতিবাদে উত্তাল, ঠিক সেই সময়ে এমন মন্তব্যে প্রবল সমালোচনার মুখে পড়েছে শিবসেনা।

দু’দিন আগেই পুণেতে সাংবাদিক বৈঠকে মহারাষ্ট্র নবনির্মাণ সেনা-র প্রধান রাজ ঠাকরের মুখে একই কথা শোনা গিয়েছিল। ওই দিন তিনি বলেন, “ভারত ধর্মশালা নয়। মানবতার চুক্তি করেনি দেশ।” সেই সঙ্গে তিনি আরও জানিয়েছিলেন, মুম্বই থেকে অবৈধ অনুপ্রবেশকারীদের তাড়াতে আগামী ৯ ফেব্রুয়ারি মিছিল বার করবেন। রাজের সেই মন্তব্যের জন্য তাঁকে আক্রমণ করতে গিয়ে প্রায় একই সুরে কথা বলে রীতিমতো বেকায়দায় পড়েছে শিবসেনা। যদিও তারা এ কথাও বলেছে, সিএএ-তে যে সব ফাঁক রয়েছে সেগুলো অবশ্যই তুলে ধরা জরুরি।

‘সামনা’য় অবশ্য রাজ ঠাকরেকেও আক্রমণ করেছে শিবসেনা। মহারাষ্ট্র নবনির্মাণ সেনা-র প্রধানকে কটাক্ষ করে তারা বলেছে, যে দল মাসখানেক আগেই সিএএ-র বিরোধিতা করছিল, এখন তারাই নিজেদের রং বদলে ফেলেছে। কিন্তু শিবসেনা কখনওই হিন্দুত্বের আদর্শকে জলাঞ্জলি দেয়নি। ‘সামনা’য় শিবসেনা আরও বলেছে, ১৪ বছর আগে রাজ ঠাকরে মারাঠা আদর্শ নিয়ে তাঁর দল গড়ে তুলেছিলেন। কিন্তু এখন রাজনৈতিক স্বার্থে সেই আদর্শ থেকে সরে এসে হিন্দুত্বের লাইন ধরেছেন এবং বিজেপির সুরেই কথা বলছেন। কিন্তু এমন রং বদলালে যে আখেরে কোনও লাভই হবে না রাজের, সে হুঁশিয়ারিও দিয়েছে শিবসেনা।

আরও পড়ুন: চিঁড়ে দিয়ে বাংলাদেশি ‘চিনলেন’ বিজয়বর্গীয়, শুরু বিতর্ক

আরও পড়ুন: শাহিন বাগ মিনি পাকিস্তান, প্রচার করছে গেরুয়া শিবির

সামনা-য় সিএএ নিয়ে বিজেপিকেও নিশানা করেছে শিবসেনা। সেখানে তারা বলেছে, রাজনৈতিক ফায়দা তোলার চেষ্টা করছে বিজেপি। সিএএ-তে শুধু মুসলিমরাই ক্ষতিগ্রস্ত হবেন না, ৩০-৪০ শতাংশ হিন্দুরাও প্রভাবিত হবেন।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE