Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৬ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

মামা-ভাগ্নে ফিরবেন কি, পাসপোর্ট বাতিল হতে পারে

একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেল যতই দাবি করুক, নীরব নিউ ইয়র্কে, বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র রভীশ কুমার আজ দিল্লিতে জানান, মন্ত্রকের এসব কিছুই জানা ন

প্রেমাংশু চৌধুরী
নয়াদিল্লি ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ ০৩:৪৩
Save
Something isn't right! Please refresh.
নীরব মোদীর ছবি হাতে দিল্লিতে কংগ্রেসের বিক্ষোভ। ছবি: পিটিআই।

নীরব মোদীর ছবি হাতে দিল্লিতে কংগ্রেসের বিক্ষোভ। ছবি: পিটিআই।

Popup Close

মামা-ভাগ্নে কোথায়? জানা নেই।

তাঁদের কি আর দেশে ফেরানো যাবে? উত্তর নেই।

শুক্রবার নীরব মোদী, তাঁর পরিবার এবং সংস্থার ২৯টি সম্পত্তি ও ১০৫টি ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট বাজেয়াপ্ত করেছে আয়কর দফতর। পাশাপাশি ভাগ্নে নীরব ও মামা মেহুল চোক্সীর পাসপোর্ট চার সপ্তাহের জন্য সাসপেন্ড করা হয়েছে। এক সপ্তাহের মধ্যে জবাব না মিললে, পাসপোর্ট বাতিল হতে পারে। ইন্টারপোলকেও খবর দিয়েছে সিবিআই। কিন্তু ১১ হাজার কোটি টাকারও বেশি প্রতারণার দায়ে অভিযুক্ত নীরব মোদী ও তাঁর মামা মেহুল চোক্সীকে দেশে এনে কাঠগড়ায় তোলা যাবে, এমন নিশ্চয়তা নরেন্দ্র মোদী সরকার দিচ্ছে না। একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেল যতই দাবি করুক, নীরব নিউ ইয়র্কে, বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র রভীশ কুমার আজ দিল্লিতে জানান, মন্ত্রকের এসব কিছুই জানা নেই। তবে তাঁর দাবি, ‘‘উনি যে দেশেই থাকুন, অন্য কোথাও যাওয়ার উপায় আর নেই। কারণ, ওঁর পাসপোর্ট সাসপেন্ড করা হয়েছে।’’

Advertisement

কিন্তু নীরবের কাছে অন্য দেশেরও পাসপোর্ট নেই তো? আইন অনুযায়ী, অন্য দেশের পাসপোর্ট থাকলে ভারতের পাসপোর্ট পাওয়া যায় না। কিন্তু অন্য পাসপোর্টের কথা নীরব গোপন করে থাকতেই পারেন। সে ক্ষেত্রে ভারতের পাসপোর্ট সাসপেন্ড বা বাতিল করেও লাভ নেই। নীরবের স্ত্রী মার্কিন নাগরিক। ভাই বেলজিয়ান। নীরব শৈশব কাটিয়েছেন হিরের রাজধানী বেলজিয়ামের অ্যান্টার্পে। ফলে বেলজিয়ামে স্থায়ী বসবাসকারীর নথি তাঁর কাছে থাকা স্বাভাবিক বলে ধারণা তদন্তকারীদের। বিদেশ মন্ত্রকের কর্তাদের একাংশেরও মতে, তিনি বেলজিয়ামেই আছেন। সে ক্ষেত্রে দিল্লিকে সে দেশের সরকার এবং আদালতে আর্জি জানাতে হবে। যা দীর্ঘ আইনি প্রক্রিয়া ও বেলজিয়ামের ইচ্ছার উপর নির্ভরশীল।

আরও পড়ুন: মোদী তো কথা দিয়ে ভুলে যান! বিঁধলেন রাহুল

যদি নীরবের শুধু ভারতীয় পাসপোর্টই থাকে? তাহলেও যে দেশে তিনি রয়েছেন, তাদের সঙ্গে ভারতের প্রত্যর্পণ চুক্তি বা আইনি সাহায্য চুক্তি রয়েছে কি না, সেই দেশ তাঁকে ফেরত পাঠানোর সদিচ্ছা দেখাবে কি না, তার উপরে সব কিছু নির্ভর করবে।

বিরোধীদের অবশ্য বক্তব্য, অন্য দেশের সদিচ্ছার কথা তো পরে। মোদী সরকারের সদিচ্ছা আছে তো? ললিত মোদী, বিজয় মাল্যদেরই তো দেশে ফেরাতে পারেনি তারা। কংগ্রেসের মতে, যে দেশে নীরব-মেহুলরা গা ঢাকা দিয়েছেন, সেখানে নথি-সহ চিঠিও হয়তো পাঠাবে মোদী সরকার। কিন্তু সেই চিঠির খসড়া এমন ভাবে তৈরি হবে, যার গেরোয় তাঁদের ফেরানোই যাবে না। কংগ্রেস নেতা রণদীপ সূর্যেওয়ালার কটাক্ষ, ‘‘যাঁরা ছোট মোদীকে পালাতে সাহায্য করলেন, তাঁরা কি আর ওঁকে সহজে ফিরিয়ে আনতে চাইবেন!’’

সিবিআই এ দিন মেহুলের তিনটি সংস্থা— গীতাঞ্জলি জেমস, গিলি ইন্ডিয়া ও নক্ষত্র-র বিরুদ্ধে ২০১৭-র একটি প্রতারণার অভিযোগে নতুন এফআইআর করেছে। দু’জনের সংস্থায় সমন পাঠিয়ে এক সপ্তাহের মধ্যে হাজির হতে বলেছে ইডি-ও। তবে এ সব ব্যবস্থার জেরে নীরব-মেহুল যে সুড় সুড় করে দেশে ফিরবেন না, তা জানেন দুই সংস্থার অফিসারেরা।



Something isn't right! Please refresh.

Advertisement