Advertisement
০২ অক্টোবর ২০২২
Nitish Kumar

Nitish Kumar: কুড়ি লক্ষ! দ্বিগুণ চাকরির প্রতিশ্রুতি নীতীশের

আচমকা পট পরিবর্তন হয়েছে। বিজেপির হাত ছেড়ে আরজেডির সমর্থন নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর আসনে পুনর্বহাল হয়েছেন নীতীশ। আর উপমুখ্যমন্ত্রী তেজস্বী।

বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার।

বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার। ছবি: পিটিআই

সংবাদ সংস্থা
পটনা শেষ আপডেট: ১৬ অগস্ট ২০২২ ০৭:২২
Share: Save:

উপমুখ্যমন্ত্রী তেজস্বী যাদব প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন দশ লক্ষ চাকরির। এ বার সেই সংখ্যাটা দ্বিগুণ করে শোনালেন বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার।

বছর দু’য়েক আগে বিধানসভা ভোটে যুযুধান ছিলেন জেডি(ইউ)-এর নীতীশ আর আরজেডির তেজস্বী। সেই সময়ে তেজস্বীর দশ লক্ষ চাকরির প্রতিশ্রুতি যুবসমাজকে বেশ আকৃষ্ট করেছিল। কিন্তু হাডাহাড্ডি লড়াইয়ে শেষ পর্যন্ত জিতে যায় বিজেপি-জেডি(ইউ) জোট। মুখ্যমন্ত্রী হন নীতীশ।

আচমকা পট পরিবর্তন হয়েছে সম্প্রতি। বিজেপির হাত ছেড়ে আরজেডির সমর্থন নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর আসনে পুনর্বহাল হয়েছেন নীতীশ। আর উপমুখ্যমন্ত্রী তেজস্বী। যে নীতীশ ভোটের সময়ে তেজস্বীর প্রতিশ্রুতিকে ‘ভাঁওতাবাজি’ বলে কটাক্ষ করেছিলেন, এ বার তাঁকে সেই প্রতিশ্রুতি নিয়ে প্রশ্নের মুখোমুখি হতে হচ্ছে। শুক্রবারই নীতীশ আশ্বাস দেন, চাকরির প্রতিশ্রুতি পূরণে সরকার ত্রুটি রাখবে না।

এর মধ্যেই এল স্বাধীনতা দিবস। পটনার গান্ধী ময়দানের অনুষ্ঠানে নীতীশ কথায় আরও কয়েক কদম এগিয়ে গেলেন। দাবি করলেন, তাঁদের নতুন জোটের সরকারের এমন ‘ভাবনা’ রয়েছে, যাতে দশ লক্ষ ছাপিয়ে আরও দশ লক্ষ চাকরির ব্যবস্থা হয়ে যাবে।

আজ নীতীশ বলেছেন, ‘‘রাজ্যের বাচ্চাদের জন্য কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি করতে আমরা এত কিছু করব, সরকারি আর বেসরকারি, দু’টো ক্ষেত্রেই— যে সফল হয়ে গেলে চাকরির সংখ্যা কুড়ি লক্ষে পৌঁছে যাবে।’’ এ জন্য যা যা করার, সরকার তাতে চেষ্টার ত্রুটি রাখবে না বলেও প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন নীতীশ। সম্প্রতি সরকারে যোগ দেওয়া তেজস্বীকেও দু’বছর আগে ভোটের সময়ে দেওয়া চাকরির প্রতিশ্রুতি নিয়ে প্রশ্নের মুখে পড়তে হচ্ছে। টুইট করে নীতীশের এ দিনের ঘোষণাকে ‘ঐতিহাসিক’ আখ্যা দিয়ে স্বাগত জানিয়েছেন তিনি।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.