Advertisement
১৯ জুলাই ২০২৪
Bridge Collapse in Bihar

সেতু বিপর্যয়! ২৪ ঘণ্টার মধ্যে বিহারে আবারও ভেঙে পড়ল সেতু, এক সপ্তাহের মধ্যে তৃতীয় ঘটনা

দু’কোটি টাকা খরচ করে সেতুটি নির্মাণ করা হচ্ছিল। ৫০ ফুট দৈর্ঘ্যের সেই সেতু রবিবার সকালে হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ে। পূর্ব চম্পারণের মোতিহারির ঘোড়াসহন ব্লকে সেতুটি তৈরি করা হচ্ছিল।

নির্মাণকাজ চলার সময় ভেঙে পড়া সেই সেতু। ছবি: সংগৃহীত।

নির্মাণকাজ চলার সময় ভেঙে পড়া সেই সেতু। ছবি: সংগৃহীত।

আনন্দবাজার অনলাইন ডেস্ক
কলকাতা শেষ আপডেট: ২৩ জুন ২০২৪ ১৪:২৫
Share: Save:

এক সপ্তাহের মধ্যে তিনটি সেতু ভেঙে পড়ল বিহারে। সেই তালিকায় নতুন সংযোজন এ বার মোতিহারির ঘটনা। শনিবারই সিওয়ানে একটি সেতু ভেঙে পড়েছিল। তার ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই এ বার মোতিহারিতে ভেঙে পড়ল একটি নির্মীয়মাণ সেতু।

জানা গিয়েছে, দু’কোটি টাকা খরচ করে সেতুটি নির্মাণ করা হচ্ছিল। ৫০ ফুট দৈর্ঘ্যের সেই সেতু রবিবার সকালে হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ে। পূর্ব চম্পারণের মোতিহারির ঘোড়াসহন ব্লকে সেতুটি তৈরি করা হচ্ছিল। রবিবার ঢালাইয়ের কাজ চলছিল। সেই কাজ চলাকালীন সেতুর একাংশ হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ে। এই ঘটনায় স্থানীয়দের মধ্যে ক্ষোভ ছড়িয়েছে। তাঁদের অভিযোগ, নিম্নমানের নির্মাণ সামগ্রী ব্যবহার করা হচ্ছিল। তার জেরেই এই ঘটনা।

সেতু ভাঙার খবর প্রশাসনের কাছে পৌঁছতেই হাজির হন আধিকারিকরা। কী ভাবে এই ঘটনা ঘটল, তা খতিয়ে দেখা হবে বলে আশ্বাস দিয়েছেন তাঁরা। নিম্নমানের নির্মাণ সামগ্রী ব্যবহার করা হচ্ছিল কি না তা-ও খতিয়ে দেখা হবে। এই সপ্তাহেই আরারিয়াতে একটি সেতু ভেঙে পড়েছিল। সেটির নির্মাণকাজ চলাকালীন এই দুর্ঘটনা ঘটে। যদিও সেই ঘটনায় কেউ হতাহত হননি। আরারিয়ার ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই শনিবারই সিওয়ানে আরও একটি সেতু ভেঙে পড়ে। এই সেতুটি গন্ডক খালের উপর ছিল। উল্লেখযোগ্য যে, মহারাজগঞ্জ এবং দ্বরভাঙা জেলার মধ্যে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ একটি যোগাযোগকারী মাধ্যম ছিল এই সেতুটি। শনিবার সেটি ভেঙে পড়ায় দুই জেলার মধ্যে প্রায় যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। সেতুটি ৪০ বছরের পুরনো ছিল। খাল সংস্কারের সময় সেতুর স্তম্ভ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

bridge collapse Bihar
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE