Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৬ অক্টোবর ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

‘পদ্মাবতী’ বিতর্কে এ বার অবরুদ্ধ চিতোরগড় দুর্গ!

‘পদ্মাবতী’ নিয়ে আজও দিনভর উত্তাল থাকল দেশের নানা প্রান্ত। ছবিটি মুক্তি পেলে চিতোরগড় দুর্গ দর্শনার্থীদের জন্য বন্ধ করে দেওয়া হবে বলে কালই হু

সংবাদ সংস্থা
জয়পুর ১৮ নভেম্বর ২০১৭ ০৩:৪৩
Save
Something isn't right! Please refresh.
ছবি: সংগৃহীত।

ছবি: সংগৃহীত।

Popup Close

‘পদ্মাবতী’ নিয়ে আজও দিনভর উত্তাল থাকল দেশের নানা প্রান্ত। ছবিটি মুক্তি পেলে চিতোরগড় দুর্গ দর্শনার্থীদের জন্য বন্ধ করে দেওয়া হবে বলে কালই হুমকি দিয়েছিল শ্রী রাজপুত করণী সেনা। আজ সেটাই করেছে তারা। কয়েকশো সেনা সমর্থক চিতোরগড় দুর্গের সামনে বিক্ষোভ দেখান। যাঁরা দুর্গ দেখতে এসেছিলেন, তাঁদের ভিতরে যেতে দেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ।

এরই মধ্যে ছবিটির মুক্তি নিয়ে নতুন করে সংশয় তৈরি হয়েছে আজ। ১ ডিসেম্বর ছবির মুক্তি আটকাতে ভারত বন্‌ধের ডাক দিয়ে রেখেছে করণী সেনা। আজ আবার সেন্ট্রাল বোর্ড অব ফিল্ম সার্টিফিকেশন (সিবিএফসি) ছবিটি নির্মাতাদের কাছে ফিরিয়ে দিয়েছে। ছবিটি খতিয়ে দেখতে সম্প্রতি সিবিএফসি-র কাছে পাঠিয়েছিলেন নির্মাতারা। কিন্তু বোর্ডের তরফে জানানো হয়েছে, আবেদনপত্রটি অসম্পূর্ণ। নতুন করে আবেদনপত্র লিখে তা ফের বোর্ডে পাঠানো সময় সাপেক্ষ বিষয়।

আরও পড়ুন:দীপিকার নাক কাটব, হুমকি করণী সেনার

Advertisement

১৫৪০ সালে আওয়ধি ভাষায় লেখা কবি মালিক মহম্মদ জয়সির ‘পদ্মাবত’ কবিতার অনুপ্রেরণায় তৈরি হয়েছে ছবিটি। রাজপুত রানি পদ্মিনীকে নিয়েই লেখা হয়েছিল সেই কবিতা। রাজপুতরা মনে করেন, ত্রয়োদশ শতকে চিতোরগড় দুর্গে থাকতেন রানি পদ্মিনী। রানির স্মৃতি বিজড়িত সেই চিতোরগড় দুর্গই আজ কার্যত বন্ধ করে দেয় করণী সেনা। দেশ স্বাধীন হওয়ার পরে আজ পর্যন্ত কোনও দিন ওই দুর্গ বন্ধ থাকেনি বলে জানিয়েছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। বিহার, উত্তরপ্রদেশ, মধ্যপ্রদেশে ছবিটি নিষিদ্ধ করার দাবিতে আজও নানা হাঙ্গামা হয়েছে। বারাণসীতে শিবসেনা আর মধ্যপ্রদেশে একটি হিন্দুত্ববাদী সংগঠন ছবি মুক্তির বিরোধিতা করে হুমকি দিয়েছে। যদিও চিতোরের পুলিশ সুপার জানান, করণী সেনার তাণ্ডব রুখতে তাঁরা দুর্গের আশপাশে যথেষ্ট পুলিশ মোতায়েন করেছেন।

ছবিটি ঘিরে প্রথম থেকেই বিতর্ক চলছে। ছবিটিতে পরিচালক সঞ্জয় ইতিহাস বিকৃত করেছেন বলে প্রথম অভিযোগ তোলে জয়পুরের রাজপুতদের সংগঠন করণী সেনা। তাদের অভিযোগ ছিল, রানি পদ্মিনীর সঙ্গে আলাউদ্দিন খিলজির ঘনিষ্ঠ দৃশ্য রয়েছে, যা রানির সম্মানে আঘাত করার পক্ষে যথেষ্ট। ছবির পোস্টার ও ট্রেলার মুক্তি পাওয়ার পরে ছবিটি নিষিদ্ধ ঘোষণা করতে হবে বলে দাবি ওঠে। আজ এক আইনজীবী ছবির ‘আপত্তিকর’ দৃশ্যে কাটছাঁটের দাবিতে শীর্ষ আদালতে মামলা করেন। সুপ্রিম কোর্ট তা শুনতে রাজি হয়েছে।

করণী সেনা কাল ছবির মুখ্য চরিত্রাভিনেত্রী দীপিকা পাড়ুকোনের নাক কাটার হুমকি দিয়েছিল। যা নিয়ে দেশে সমালোচনার ঝড় উঠেছে। আজ কেন্দ্রীয় মন্ত্রী উমা ভারতী টুইট করেছেন, ‘‘যদি আমরা রানি পদ্মাবতীর সম্মান রক্ষা নিয়ে এত কিছু করি, তা হলে অন্য নারীদের মর্যাদা রক্ষাটাও আমাদেরই দায়িত্ব। একজন অভিনেত্রীকে এ ভাবে অপমান করা অনৈতিক।’’ যদিও সেনা সভাপতি লোকেন্দ্র সিংহ কালভি ছবি মুক্তি পেলে দেশে আগুন জ্বলবে বলে আজ ফের হুমকি দিয়েছেন। বিতর্ক বাড়িয়ে বিজেপি ঘনিষ্ঠ অভিনেতা গজেন্দ্র চৌহান বলেন, ‘‘নির্মাতারা ছবিটিকে কাল্পনিক বলে ঘোষণা করেননি। তাঁরা ছবিটির ঐতিহাসিক দিক নিয়েই কথা বলে আসছেন। দেশের মানুষ পদ্মাবতীকে রানি হিসেবেই দেখে এসেছেন। তিনি নর্তকী ছিলেন না। এ নিয়ে মানুষের ক্ষোভ তো থাকবেই।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement