Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৭ অগস্ট ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

Sharmistha Mukherjee: সক্রিয় রাজনীতি থেকে অবসর প্রণব-কন্যা শর্মিষ্ঠার, ওড়ালেন অন্য দলে যাওয়ার জল্পনা

টুইটে শর্মিষ্ঠা লেখেন, ‘সকলকে ধন্যবাদ। রাজনীতি থেকে বিদায় নিলাম। তবে কংগ্রেসের এক জন প্রাথমিক সদস্য হিসেবে থাকব। সক্রিয় রাজনীতি আর নয়।’

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ ০৯:২৩
Save
Something isn't right! Please refresh.
ফাইল চিত্র। পিটিআই।

ফাইল চিত্র। পিটিআই।

Popup Close

মুখোপাধ্যায় পরিবারের শেষ সদস্য হিসেবে কংগ্রেসের ধ্বজা বহন করছিলেন তিনি। এ বার সেটাও নেমে গেল। সক্রিয় রাজনীতি থেকে সরে দাঁড়ালেন প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি তথা কংগ্রেসের প্রবীণ নেতা প্রয়াত প্রণব মুখোপাধ্যায়ের মেয়ে শর্মিষ্ঠা মুখোপাধ্যায়। শনিবার টুইট করে তিনি রাজনীতি থেকে সরে দাঁড়ানোর কথা ঘোষণা করেছেন।

টুইটে শর্মিষ্ঠা লেখেন, ‘সকলকে ধন্যবাদ। রাজনীতি থেকে বিদায় নিলাম। তবে কংগ্রেসের এক জন প্রাথমিক সদস্য হিসেবে থাকব। সক্রিয় রাজনীতি আর নয়। কেউ যদি মনে করেন তিনি দেশের সেবা, জাতির সেবা করবেন তিনি অন্য ভাবেও করতে পারেন।’ সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যম ‘দ্য প্রিন্ট’ প্রণব-কন্যা জনিয়েছেন, রাজনীতি তার জন্য নয়। আর এই উপলব্ধি থেকেই তিনি সরে দাঁড়িয়েছেন। তবে অন্য কাজ নিয়ে ব্যস্ত থাকতে চান বলেই জানিয়েছেন প্রণব-কন্যা।

হঠাৎ তাঁর রাজনীতি ছাড়ার এই সিদ্ধান্তে জল্পনা শুরু হয়ে গিয়েছে। তা হলে কি দাদা অভিজিৎ মুখোপাধ্যায়ের মতো তিনিও অন্য দলে পা বাড়াতে চাইছেন? সেই সম্ভাবনাকে পুরোপুরি খারিজ করে দিয়েছেন প্রণব-কন্যা। তিনি বলেন, “রাজনীতি, বিশেষ করে বিরোধী রাজনীতি করতে গেলে একটা জ্বলন্ত খিদে দরকার। কিন্তু আমার মধ্যে সেই খিদেটা কোথাও উপলব্ধি করতে পারছিলাম না। তখন মনে হয়েছে সক্রিয় রাজনীতিতে থাকাটা আর উচিত নয়।” শর্মিষ্ঠা জানান, তাঁর এই সিদ্ধান্ত প্রসঙ্গে দলের সভাপতি সনিয়া গাঁধী, মুখপাত্র রণদীপ সিংহ সুরজেওয়ালা এবং দিল্লির কংগ্রেস নেতা অজয় মাকেনকে কয়েক মাস আগে জানিয়েছিলেন। তাঁর কথায়, “দলের প্রতি আমার কোনও অভিযোগ নেই। এমনকি অন্য দলেও যোগ দেওয়ার জন্যও এই সিদ্ধান্ত নয়। শীর্ষ নেতৃত্বের কাছে এটাই স্পষ্ট করতে চাইছি।”

Advertisement

শর্মিষ্ঠা আরও বলেন, “অনেক দিন হল আমি কোনও রাজনৈতিক অনুষ্ঠানে অংশ নিইনি। বাবার মৃত্যুর পর মানসিক ভাবে ভেঙে পড়েছিলাম। নিজেকে সামলাতে একটু বিরতি নিয়েছিলাম। আমার ৫৬ বছর বয়স হল। জীবনের আর ১০ বছর সুস্থ ভাবে বাঁচতে চাই। ওই সময়টায় আমার ভাললাগার বিষয় নাচ নিয়েই কাটিয়ে দিতে চাই।” প্রসঙ্গত, শর্মিষ্ঠা এক জন কত্থক নৃত্যশিল্পী।

প্রণবের পর মুখোপাধ্যায় পরিবারে কংগ্রেসের ধ্বজা ধরে রেখেছিলেন তাঁর ছেলে অভিজিৎ এবং মেয়ে শর্মিষ্ঠা। কিন্তু এ বছরের জুলাইয়ে তৃণমূলে যোগ দেন অভিজিৎ। ফলে একাই সেই ‘ঐতিহ্য’ বহন করছিলেন প্রণব-কন্যা। অভিজিৎ তৃণমূলে যোগ দেওয়ার পরই তাঁর সেই সিদ্ধান্তে ‘দুঃখপ্রকাশ’ করেছিলেন শর্মিষ্ঠা। কিন্তু অভিজিতের তৃণমূলে যোগ দেওয়ার দু’মাসের মাথায় তাঁরও সক্রিয় রাজনীতি থেকে সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্তে অনেকেই স্তম্ভিত। একই সঙ্গে শর্মিষ্ঠার এই পদক্ষেপ নতুন জল্পনাকেও উস্কে দিয়েছে।

২০১৪-তে কংগ্রেসে যোগ দেওয়ার পর একটি মাত্র নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন প্রণব-কন্যা। সেটা ছিল ২০১৫-য় দিল্লির বিধানসভা নির্বাচন। কিন্তু আম আদমি পার্টি (আপ)-র সৌরভ ভরদ্বাজের কাছে হেরে যান। ২০১৯-এ তিনি কংগ্রেসের জাতীয় মুখপাত্র হন। ওই বছরই দিল্লির প্রদেশ কংগ্রেস কমিটির জনসংযোগ বিষয়ক প্রধানের পদ থেকে ইস্তফা দেন শর্মিষ্ঠা।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement