Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৩ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

মোদীকে আক্রমণ রাহুলের

উত্তর-পূর্বে লোকসভা নির্বাচনের প্রচার শুরু করে দিলেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গাঁধী। আজ গুয়াহাটির খানাপাড়ায়, সভার শুরুতেই পুলওয়ামা আক্রমণের নিন

নিজস্ব সংবাদদাতা
গুয়াহাটি ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ ০৩:৫৬
Save
Something isn't right! Please refresh.
সহমর্মী: ইটানগরে পুলিশের গুলিতে জখম তরুণকে দেখতে মঙ্গলবার গুয়াহাটির হাসপাতালে রাহুল। পিটিআই

সহমর্মী: ইটানগরে পুলিশের গুলিতে জখম তরুণকে দেখতে মঙ্গলবার গুয়াহাটির হাসপাতালে রাহুল। পিটিআই

Popup Close

উত্তর-পূর্বে লোকসভা নির্বাচনের প্রচার শুরু করে দিলেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গাঁধী। আজ গুয়াহাটির খানাপাড়ায়, সভার শুরুতেই পুলওয়ামা আক্রমণের নিন্দায় ও অসেমর নিহত জওয়ান মনেশ্বর বসুমাতারির স্মৃতিতে নীরবতা পালন করা হয়। আজ ভোরে পাকিস্তানের বালাকোটে জঙ্গি-বিরোধী অভিযানের জন্য ভারতীয় বায়ুসেনার ‘পাইলটদের’ অভিনন্দন জানান রাহুল। এবং এর পরেই রাহুল লাগাতার আক্রমণ শানান রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সঙ্ঘ ও নরেন্দ্র মোদীর বিরুদ্ধে।

রাহুলের কথায়, বিজেপি-আরএসএস ক্রোধ ও যুদ্ধের আদর্শ নিয়ে চলে। তাদের বিভাজন নীতিকে সামনে রেখে অসম তথা উত্তর-পূর্বের ভাষা, সংস্কৃতি, জীবনধারায় ক্রমাগত আঘাত হানছে তারা।

তাঁর মতে, ২০১৪ সালে মোদী সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকেই অশান্ত হয়েছে উত্তর-পূর্ব। অরুণাচল প্রসঙ্গ টেনে রাহুল বলেন, বিজেপি জমানায় গোটা ভারতে হিংসা ও বিভাজন ছড়ানো হচ্ছে। তিনি বলেন, ‘‘হরিয়ানায় জাঠদের সঙ্গে অ-জাঠদের লড়ানো হচ্ছে, মহারাষ্ট্র থেকে উত্তরপ্রদেশ ও বিহারির বাসিন্দা তাড়ানো চলছে, দিল্লিতে উত্তর-পূর্বের বাসিন্দাদের আক্রমণ করা হচ্ছে।’’ তাঁর মতে, এ সবই আরএসএসের হিংসা ও ঘৃণার সংস্কৃতির ফল। উত্তর-পূর্বের ভাষা, সংস্কৃতিও নষ্ট করতে চাইছে আরএসএস। রাহুল জানান, উত্তর-পূর্বের সংস্কৃতি, ভাষা ও ঐতিহ্য রক্ষায় কংগ্রেস বদ্ধপরিকর। তিনি মঞ্চে এক বিরাট জাপি এনে কংগ্রেস কর্মীদের তার তলায় দাঁড় করিয়ে বলেন, ‘‘এই ভাবে এক

Advertisement

ছাতার নীচে সকলকে নিয়ে চলাই অসমে কংগ্রেসের লক্ষ্য। কিন্তু বিজেপি চায়, সব রাজ্য জ্বলুক আর ফাঁকতালে আদানি-আম্বানিরা দেশকে লুঠে নিক।’’

এ দিন রাহুল উত্তর-পূর্বের জন্য পাঁচ দফা নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি দেন। ক্ষমতায় ফিরলেই নগাঁও ও কাছাড় কাগজকল চালু করা, সব গরীবের অ্যাকাউন্টে সরাসরি ন্যূনতম রোজগার পাঠিয়ে দেওয়া, বন্যা সমস্যার সমাধান, উত্তর-পূর্ব বিনিয়োগ বিকাশ প্রকল্প ফের চালু করা এবং অসমকে বিশেষ রাজ্যের মর্যাদা ফিরিয়ে দেওয়ার আশ্বাস দেন রাহুল। তাঁর দাবি, ‘‘আমি মোদীর মতো মিথ্যা আশ্বাস দিই না। মধ্যপ্রদেশ, রাজস্থান, ছত্তীসগঢ়ে নির্বাচনী প্রচারে যা কথা দিয়েছি, তা রেখেছি। ক্ষমতায় আসার দু’দিনের মধ্যে কৃষকদের ঋণ মকুব করা হয়েছে।’’ তাঁর কথায়, ‘‘বিজেপি বলেছিল, টাকা কোথা থেকে আসবে? যদি টাকারই অভাব থাকে, তাহলে ঘনিষ্ঠ ১৫ জন পুঁজিপতির সাড়ে তিন লক্ষ কোটির ঋণ কী ভাবে মকুব করলেন মোদী?’’

ইটানগরে গুলিবিদ্ধ বাগাং তাজি, টাকাম কিরণকে দেখতে এ দিন বিমানবন্দর থেকে প্রথমেই তিনি হাসপাতালে যান। সঙ্গে ছিলেন অরুণাচলের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী নাবাম টুকি। বেশ কিছুক্ষণ চিকিৎসকদের সঙ্গে আলোচনা করে বাগাং ও টাকামকে সব ধরণের সাহায্যের আশ্বাস দেন।



Something isn't right! Please refresh.

আরও পড়ুন

Advertisement