Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৮ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

বিহারে ভোটের সময় সিমলায় পিকনিক করছিলেন রাহুল গাঁধী: তোপ আরজেডি নেতার

তাঁর প্রশ্ন, ‘এ ভাবে কি কোনও দল চালানো সম্ভব?’

সংবাদ সংস্থা
পটনা ১৬ নভেম্বর ২০২০ ১১:৪৭
Save
Something isn't right! Please refresh.
রাহুল গাঁধী এবং শিবানন্দ তিওয়ারি। ফাইল চিত্র।

রাহুল গাঁধী এবং শিবানন্দ তিওয়ারি। ফাইল চিত্র।

Popup Close

বিহারে যখন নির্বাচন হচ্ছে, রাহুল গাঁধী তখন সিমলায় প্রিয়ঙ্কার বাড়িতে পিকনিক করছেন! মহাগঠবন্ধনের হার নিয়ে কংগ্রেস নেতা রাহুল গাঁধীর বিরুদ্ধে এ ভাবেই তোপ দাগলেন রাষ্ট্রীয় জনতা দল(আরজেডি)-এর নেতা শিবানন্দ তিওয়ারি।

বিহার নির্বাচনে এনডিএ জোট পেয়েছে ১২৫টি আসন। মহাগঠবন্ধন পেয়েছে ১১০টি। তার মধ্যে কংগ্রেস পেয়েছে মাত্র ১৯টি। সংবাদ সংস্থাকে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে শিবানন্দের অভিযোগ, একটা দল চালাতে গেলে অনেক দায়িত্ব নিতে হয়। কিন্তু বিহার নির্বাচনে যে ভূমিকায় রাহুল গাঁধীকে দেখা গেল, তা মোটেই কাম্য নয়। এর পরই তিনি প্রশ্ন ছুড়ে দেন, ‘এ ভাবে কি কোনও দল চালানো সম্ভব?’

আরজেডি ৭৫টি আসন পেয়ে প্রথম দল হিসেবে উঠে এসেছে বিহারে। তার পরই ৭৪টি আসন পেয়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে বিজেপি। কংগ্রেস যদি এই নির্বাচনে আরও গুরুত্ব দিয়ে লড়াই করত, তা হলে আজ বিহারে মহাগঠবন্ধনেরই সরকার হত বলে মনে করেন শিবানন্দ। কিন্তু কংগ্রেস মহাগঠবন্ধনের ‘পায়ের বেড়ি’ হয়ে দাঁড়াল বলেই অভিযোগ আরজেডি নেতার।

Advertisement

এখানেই থামেননি শিবানন্দ। তাঁর অভিযোগ, বিহারে ৭০ জন প্রার্থী দিয়েছে কংগ্রেস। অথচ ৭০টি জনসভাও করেনি তারা। রাহুল গাঁধী মাত্র ৩ দিন এসেছিলেন ভোট প্রচারে। প্রিয়ঙ্কা গাঁধী বঢরা তো আসেনইনি। অথচ এই রাজ্যের সঙ্গে যাঁরা পরিচিত নন, তাঁদেরই পাঠিয়ে দিয়ে দায়সারা কাজ করেছে কংগ্রেস। এটা করা উচিত হয়নি বলেই মত প্রবীণ এই আরজেডি নেতার।

শুধু বিহারের ক্ষেত্রে হয়েছে এমনটা হয়েছে তা নয় বলেই মন্তব্য করেন শিবানন্দ। তিনি বলেন, “অন্য রাজ্যগুলোর ক্ষেত্রেও একই ঘটনা ঘটিয়েছে কংগ্রেস। তারা প্রার্থী দিয়েছে বেশি, অথচ জিতেছে খুব কম আসনে। কংগ্রেস যদি এ ভাবেই দল চালাতে থাকে, তা হলে আখেরে বিজেপি-রই সুবিধা হবে। এবং তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগের আঙুল উঠবে।” বিষয়টি নিয়ে এখনই কংগ্রেস নেতৃত্বের চিন্তাভাবনা করা উচিত বলেই মত শিবানন্দের।

শিবানন্দের এই ধরনের মন্তব্যে তীব্র প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন কংগ্রেস নেতা প্রেমচন্দ্র মিশ্র। তিনি বলেন, “শরিক হয়ে আর এক শরিকের বিরুদ্ধে এ ধরনের মন্তব্য মোটেই গ্রহণযোগ্য.নয়।” শিবানন্দকে আক্রমণ করে তাঁর মন্তব্য, “কংগ্রেস এবং রাহুল গাঁধীর সম্পর্কে যে কথা বলেছেন তিনি, এ ধরনের আপত্তিকর মন্তব্য বিজেপি-র গিরিরাজ সিংহ, শাহনওয়াজ হুসেনরাই করেন।”



Something isn't right! Please refresh.

Advertisement