×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২১ জানুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

রাজস্থানে সরকার সুরক্ষিত, গভীর রাতে অভূতপূর্ব সাংবাদিক বৈঠক করে দাবি কংগ্রেসের

সংবাদ সংস্থা
জয়পুর১৩ জুলাই ২০২০ ১১:০১
সাংবাদিক বৈঠকে অশোক গহলৌত।

সাংবাদিক বৈঠকে অশোক গহলৌত।

রাজস্থান নিয়ে রবিবার কংগ্রেসের টানাপড়েন গড়িয়েছিল দিন ভর। গড় সামলাতে অবিনাশ পাণ্ডে, অজয় মাকেন এবং রণদীপ সূরজেওয়ালার মতো নেতাকে জয়পুর পাঠিয়েছিল হাতশিবির। অভূতপূর্ব ভাবে ওই দিন রাত আড়াইটে নাগাদ সাংবাদিক বৈঠক করে সনিয়া গাঁধীর সেই তিন প্রতিনিধি দাবি করলেন, রাজস্থানের দুর্গ সুরক্ষিত। অশোক গহলৌতের সরকারের পিছনে রয়েছে ১০৯ বিধায়কের সমর্থন। ২০০ আসন বিশিষ্ট রাজস্থান বিধানসভায় ম্যাজিক ফিগার ১০১।

রবিবার মধ্যরাতেরও পরে, সাংবাদিক বৈঠক করে দলের তরফে রাজস্থানের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতা তথা কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক অবিনাশ পাণ্ডে বলেন, ‘‘মোট ১০৯ বিধায়ক তাঁদের সাক্ষর সম্বলিত চিঠিতে রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গহলৌত, সনিয়াজি এবং রাহুলজির নেতৃত্বাধীন সরকারকে সমর্থন জানিয়েছেন।’’ এর সঙ্গেই তিনি যোগ করেছেন, আরও কয়েক জন বিধায়কের সঙ্গে টেলিফোনে কথা হয়েছে। ওই বিধায়করা তাঁদের সমর্থন করবেন বলে দাবি করেছেন অবিনাশ।

অশোক গহলৌত বনাম সচিন পাইলট। মুখ্যমন্ত্রী এবং উপ মুখ্যমন্ত্রীর মধ্যে দ্বন্দ্বকে ঘিরেই রাজস্থানে সঙ্কটের মেঘ ঘনিয়েছে। যার সঙ্গে চার মাস আগে মার্চের শুরুতেই মধ্যপ্রদেশে ঘটে যাওয়া রাজনৈতিক পট পরিবর্তনের দারুণ মিল রয়েছে। এমন টালমাটাল পরিস্থিতিতে সোমবার দলীয় বিধায়কদের নিয়ে বৈঠকে বসছেন অশোক গহলৌত। বৈঠকে যোগ দেওয়ার জন্য হুইপও জারি করা হয়েছে।

Advertisement

আরও পড়ুন: মৃত্যু ছাড়াল ২৩ হাজার, দেশে মোট আক্রান্ত আট লক্ষ ৭৮ হাজার

যে দু’জনকে কেন্দ্র করে দ্বন্দ্ব, তাঁদের এক জন যখন গড় বাঁচানোর চেষ্টা চালাচ্ছেন, তখন প্রশ্ন উঠেছে সচিন পাইলটের গতিবিধি নিয়েও। এ দিন মুখ্যমন্ত্রীর ডাকা বৈঠকে তিনি যে যোগ দিচ্ছেন না তা মোটামুটি ভাবে স্পষ্ট। একটি সূত্রের খবর, জনা কয়েক ঘনিষ্ঠ নেতাকে সঙ্গে নিয়ে গুরুগ্রামের রিসর্টে ঘাঁটি গেড়েছেন সচিন। কিন্তু সচিন কোথায়, তা স্পষ্ট নয়। শোনা যাচ্ছে, কংগ্রেস এবং নির্দল মিলিয়ে অন্তত ১৯ জনের সমর্থন রয়েছে তাঁর কাছে। অবশ্য সচিনের দাবি ৩০। এর মধ্যেই একটি সূত্রের দাবি, আজ বিজেপি সভাপতি জেপি নাড্ডার সঙ্গে দেখা করতে পারেন সচিন। যদিও সেই সম্ভাবনা উড়িয়েও দিয়েছে সচিন ঘনিষ্ঠ একটি পক্ষ।

আরও পড়ুন: রাজ্যে সংক্রমণের হার বেড়ে ১৩.৩%, আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়াল ৩০ হাজার​

রাজস্থান বিধানসভায় মোট আসন ২০০। এর মধ্যে কংগ্রেসের হাতে রয়েছে ১০৭ আসন। তার সঙ্গে রয়েছে ১০ নির্দল বিধায়কের সমর্থনও। এ ছা়ড়া আরএলডি, সিপিএম এবং ভারতীয় ট্রাইবাল দলের ৫ বিধায়কেরও সমর্থন রয়েছে তাদের কাছে। বিজেপির হাতে রয়েছে নিজেদের ৭৩ বিধায়ক। এ ছাড়া রাষ্ট্রীয় লোকতান্ত্রিক পার্টির ৩ বিধায়কের সমর্থনও রয়েছে তাদের।

Advertisement