Advertisement
০৬ ডিসেম্বর ২০২২
Maoist

Mao Peace Talk: ছত্তীসগঢ় সরকারের আবেদনে সাড়া, শর্তসাপেক্ষে আলোচনায় রাজি মাওবাদীরা

মাসখানেক আগে মুখ্যমন্ত্রী ভূপেশ বাঘেল জানিয়েছিলেন, যদি মাওবাদীরা সংবিধানে আস্থা দেখায়, তা হলে তাঁর সরকার আলোচনার টেবিলে বসতে রাজি।

ফাইল ছবি।

সংবাদ সংস্থা
দান্তেওয়াড়া শেষ আপডেট: ০৭ মে ২০২২ ১৯:৪৭
Share: Save:

সরকারের আবেদনে সাড়া। ছত্তীসগঢ়ের ভূপেশ বাঘেলের সরকারের সঙ্গে আলোচনায় সদর্থক সাড়া দিল নিষিদ্ধ রাজনৈতিক দল ভারতীয় কমিউনিস্ট পার্টি (মাওবাদী)। তবে আলোচনার টেবিলে বসার আগে বেশ কিছু শর্ত আরোপ করেছে তারা। সংবাদ সংস্থা পিটিআই জানিয়েছে, ওই শর্তের মধ্যে রয়েছে জেলবন্দি মাওবাদী নেতা ও কর্মীদের মুক্তি এবং মাওবাদী প্রভাবিত এলাকা থেকে নিরাপত্তাবাহিনী প্রত্যাহার।

ছত্তীসগঢ়ের কংগ্রেস সরকারের এক মন্ত্রী দাবি করেছেন, যদি আলোচনা হয়, তা হলে তা হবে সম্পূর্ণ নিঃশর্তে। মাসখানেক আগে মুখ্যমন্ত্রী ভূপেশ বাঘেল জানিয়েছিলেন, যদি মাওবাদীরা সংবিধানে আস্থা দেখায়, তা হলে তাঁর সরকার আলোচনার টেবিলে বসতে রাজি।

শুক্রবার মাওবাদীদের নাম করে জারি করা বিজ্ঞপ্তিতে সমালোচনা করা হয়েছে মুখ্যমন্ত্রীর ‘দু নৌকায় পা দিয়ে চলার’ প্রবণতাকে। তাতে দাবি করা হয়েছে, এক দিকে মুখ্যমন্ত্রী আলোচনার আহ্বান জানাচ্ছেন, অন্য দিকে আদিবাসী, মূলবাসী জনতার উপর আকাশ থেকে বোমাবর্ষণ করছেন। মাওবাদীদের মুখপাত্র হিসেবে দাবি করে ‘বিকল্প’ নামে স্বাক্ষর করা হয়েছে ওই বিজ্ঞপ্তিতে। বাঘেল সরকারের আলোচনার আহ্বানে সাড়া দেওয়ার প্রসঙ্গে ওই বিজ্ঞপ্তিতে লেখা হয়েছে, ‘মুখ্যমন্ত্রী যে আলোচনার আহ্বান জানিয়েছেন, তা নিয়ে আমাদের বক্তব্য একই, যা আগেও জানানো হয়েছে। সরকার যদি অনুকূল পরিবেশ তৈরি করতে রাজি থাকে, তা হলে আমরাও আলোচনার টেবিলে বসতে দ্বিধা করব না।’ পাশাপাশি দেওয়া হয়েছে একাধিক শর্তও। মাওবাদীরা দাবি জানিয়েছে, সংগঠনের উপর থেকে নিষিদ্ধ তকমা সরাতে হবে। মুক্তি দিতে হবে দলের জেলবন্দি নেতা, কর্মীদের। বস্তার এলাকায় আকাশ থেকে ড্রোন হামলা বন্ধ রাখতে হবে— তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.