Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৯ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

Coronavirus in India: কোভিশিল্ডের বুস্টার চেয়ে আর্জি সিরামের

অক্সফোর্ড ও অ্যাস্ট্রাজ়েনেকার তৈরি কোভিডের প্রতিষেধকটিই ‘কোভিশিল্ড’ নাম দিয়ে ভারতে তৈরি করছে সিরাম।

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি ০৩ ডিসেম্বর ২০২১ ০৫:২৮
ছবি: রয়টার্স।

ছবি: রয়টার্স।

সরকার বুস্টার ডোজ় দিতে বললে পর্যাপ্ত টিকা যে তাঁদের হাতে আছে, দিন দুয়েক আগেই তা জানিয়েছিলেন সিরাম ইনস্টিটিউটের সিইও আদার পুনাওয়ালা। সরকারি সূত্রের বক্তব্য, নিজেদের তৈরি কোভিশিল্ড টিকাকে বুস্টার ডোজ় হিসেবেও ব্যবহারের ছাড়পত্র চেয়ে দেশের ওষুধ নিয়ন্ত্রক কর্তৃপক্ষ ‘ড্রাগস কন্ট্রোলার জেনারেল অব ইন্ডিয়া’ (ডিসিজিআই)-এর কাছে আবেদন করেছে পুণের সংস্থাটি। সেখানেও তারা বলেছে, করোনাভাইরাসের নতুন ভেরিয়েন্টের আবির্ভাবের জেরে বুস্টার ডোজ়ের দাবি জোরালো হচ্ছে। এই পরিস্থিতিতে সিরামের হাতে যথেষ্ট পরিমাণ কোভিশিল্ড মজুত আছে। ভারত সরকার যদিও বুস্টারের বিষয়ে এখনও কোনও সিদ্ধান্ত নেয়নি।

অক্সফোর্ড ও অ্যাস্ট্রাজ়েনেকার তৈরি কোভিডের প্রতিষেধকটিই ‘কোভিশিল্ড’ নাম দিয়ে ভারতে তৈরি করছে সিরাম। গত মঙ্গলবার ডিসিজিআই-কে লেখা চিঠিতে সিরামের ডিরেক্টর প্রকাশকুমার সিংহ জানিয়েছেন, ব্রিটেনের ওষুধ ও স্বাস্থ্য বিষয়ক নিয়ন্ত্রক সংস্থা ইতিমধ্যেই অ্যাস্ট্রাজ়েনেকার ‘চ্যাডক্স১এনকোভ-১৯’ টিকার বুস্টার ডোজ়ে অনুমোদন দিয়েছে। অতিমারি পরিস্থিতিতে বেশ কিছু দেশ বুস্টার ডোজ় দেওয়া শুরুও করে দিয়েছে। সূত্রের দাবি, চিঠিতে প্রকাশ লিখেছেন, ‘‘কোভিশিল্ডের দু’টি ডোজ় নিয়েছেন, দেশের ও বিদেশের এমন অনেক নাগরিক আমাদের সংস্থাকে ক্রমাগত বুস্টার ডোজ়ের জন্য অনুরোধ করে চলেছেন। আপনি জানেন যে, দেশে কোভিশিল্ডের ঘাটতি নেই। প্রতিদিন বুস্টার ডোজ়ের দাবি বাড়ছে। অতিমারি এবং ভাইরাসের নতুন স্ট্রেনের আবির্ভাবের জেরে দু’টি ডোজ়ের টিকা নেওয়া মানুষেরাও বুস্টার ডোজ় চাইছেন।’’ সিরাম কর্তার মতে, বুস্টার এখন সময়ের দাবি। বিষয়টি প্রতিটি মানুষের স্বাস্থ্যের অধিকারের সঙ্গেও জড়িত। অতিমারি পরিস্থিতিতে সুরক্ষিত থাকতে চেয়ে কেউ যেন টিকার তৃতীয় ডোজ় বা বুস্টার ডোজ় থেকে বঞ্চিত না হন।

ওমিক্রন ভেরিয়েন্ট নিয়ে উদ্বেগের প্রেক্ষিতে বুস্টার ডোজ়ের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে সম্প্রতি কেন্দ্রকে আর্জি জানিয়েছে কেরল, রাজস্থান, কর্নাটক ও

Advertisement

ছত্তীসগঢ়। বস্তুত, গত ২৫ নভেম্বর দিল্লি হাই কোর্টের বিচারপতি বিপিন সাঙ্ঘির বেঞ্চ বুস্টার ডোজ়ের বিষয়ে কেন্দ্রের অবস্থান জানতে চেয়ে বলেছিল, একগুঁয়েমির জেরে যেন অতিমারির দ্বিতীয় ঢেউয়ের মতো পরিস্থিতির সৃষ্টি না হয়। সরকার সংসদে জানিয়েছে, টিকাকরণ সংক্রান্ত বিশেষজ্ঞ গোষ্ঠী ‘এনটিএজিআই’ এবং ‘নেগভ্যাক’ বুস্টার ডোজ়ের বিষয়টি বিবেচনা করছে। বৈজ্ঞানিক যুক্তিতে বুস্টার ডোজ়ের প্রয়োজন আছে কি না, খতিয়ে দেখছেন বিশেষজ্ঞেরা।

আরও পড়ুন

Advertisement