Advertisement
০৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
National news

ছাদে বল খুঁজতে গিয়ে মিলল বাক্সবন্দি শিশুর কঙ্কাল

জাইদের বাবাকে ফোন করে বলা হয়েছিল, ছেলেকে ফিরে পেতে হলে আট লক্ষ টাকা মুক্তিপণ দিতে হবে। এ ঘটনায় দু’জনকে গ্রেফতার করা হয়। কিন্তু তারপরেও জইদের সন্ধান মেলেনি।

প্রতীকী চিত্র।

প্রতীকী চিত্র।

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি শেষ আপডেট: ০৪ জুন ২০১৮ ১১:৫৬
Share: Save:

রাস্তায় খেলার সময় বল গিয়ে পড়ছিল পাশের বাড়ির ছাদে। বল খুঁজতে সেই ছাদে গিয়ে মিলল কি না শিশুর কঙ্কাল! দিল্লির কাছেই গরিমা গার্ডেন এলাকায় এই ঘটনা নিয়ে রীতিমতো তোলপাড় পড়ে গিয়েছে। জানা গিয়েছে, কঙ্কালটি একটি কাঠের বাক্সের মধ্যে লুকিয়ে রাখা ছিল।

Advertisement

মনে করা হচ্ছে, কঙ্কালটি বছর দেড়েক আগের অপহৃত এক শিশুর। নাম মহম্মদ জইদ। জামা কাপড় দেখে জইদের বাবার দাবি, কঙ্কালটি তাঁর অপহৃত সন্তানের। কিন্তু ঘনীভূত হচ্ছে রহস্য। বাড়ির ছাদে এতদিন ধরে মৃতদেহ পড়ে থাকার পরেও কেউ বুঝতে পারল না কেন? নাকি সব জেনেও চেপে যাওয়ার চেষ্টা হয়েছিল? এমনই সব প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে শুরু হয়েছে তদন্ত।

জানা গিয়েছে, ২০১৬ সালের ১ ডিসেম্বর মহম্মদ জইদ যখন নিজের বাড়ি থেকে নিখোঁজ হয়, সে সময় তাঁর বয়স ছিল মাত্র চার। দিন কয়েক বাদেই জাইদের বাবাকে ফোন করে বলা হয়েছিল, ছেলেকে ফিরে পেতে হলে আট লক্ষ টাকা মুক্তিপণ দিতে হবে। এ ঘটনায় দু’জনকে গ্রেফতার করা হয়। কিন্তু তারপরেও জইদের সন্ধান মেলেনি।

আরও পড়ুন: দু’দিনের সন্তানকে ফেলে দেওয়ার আগে চুমু খেলেন বাবা, তারপর...

Advertisement

আরও পড়ুন: ভুল করেননি, নাগপুর বিতর্কে প্রণবের পাশে শিন্ডে

যে বাড়ির ছাদ থেকে সোমবার সকালে কঙ্কাল উদ্ধার হয়েছে, তা জইদের বাড়ি থেকে খুব বেশি দূরে নয়। স্থানীয়দের মুখ থেকে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে জইদের বাবা দেখেন, শিশুর কঙ্কালে যে পোশাক রয়েছে, সেটা তাঁর ছেলের। ময়নাতদন্ত এবং ডিএনএ পরীক্ষার জন্য কঙ্কালটি পাঠানো হয়েছে বলে পুলিশের তরফ থেকে জানানো হয়েছে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.