Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৭ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

Pegasus Spyware: পেগাসাস নিয়ে আর্জির শুনানি পিছিয়ে দিল সুপ্রিম কোর্ট

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি ০৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ ০৬:১৯
তদন্তের নির্দেশ চেয়ে আর্জি পেশ করেছেন বেশ কয়েক জন আবেদনকারী

তদন্তের নির্দেশ চেয়ে আর্জি পেশ করেছেন বেশ কয়েক জন আবেদনকারী
ফাইল চিত্র।

পেগাসাস স্পাইওয়্যারের মাধ্যমে আড়ি পাতার তদন্ত নিয়ে আর্জির শুনানি ১৩ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত পিছিয়ে দিল সুপ্রিম কোর্ট। এই মামলায় আজ আদালতের কাছে আরও সময় চায় কেন্দ্র।

পেগাসাসের মাধ্যমে দেশের রাজনীতিক, সমাজকর্মী, সাংবাদিক-সহ বহু নাগরিকের ফোনে আড়িপাতার অভিযোগ উঠেছে। তা নিয়ে তদন্তের নির্দেশ চেয়ে আর্জি পেশ করেছেন বেশ কয়েক জন আবেদনকারী। আগে একটি সংক্ষিপ্ত হলফনামায় কেন্দ্র জানায়, সংবাদমাধ্যমের সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন রিপোর্টের উপরে ভিত্তি করে এই আর্জিগুলি পেশ করা হয়েছে। এই বিষয়ে তদন্তের জন্য একটি বিশেষজ্ঞ কমিটি গঠন করা হবে বলেও জানায় কেন্দ্র। কিন্তু আবেদনকারীরা জানান, ভারত সরকার পেগাসাস ব্যবহার করেছে কি না তা ওই সংক্ষিপ্ত হলফনামায় জানানো হয়নি। বেঞ্চ জানতে চায়, কেন্দ্র আরও হলফনামা দিতে চায় কি না। কেন্দ্রের তরফে সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতা জানান, বিষয়টির সঙ্গে জাতীয় নিরাপত্তা জড়িত। তাই কেন্দ্র হলফনামায় বিষয়টির সব দিক জানাতে চায় না। তারা বিশেষজ্ঞ কমিটির কাছে সব তথ্য দিতে পারে। তার পরে বিশেষজ্ঞ কমিটি কোর্টকে রিপোর্ট দিতে পারে।

বেঞ্চ জানায়, কেন্দ্রের কাছে বিশদে জবাব আশা করেছিল আদালত। কিন্তু কেন্দ্র সংক্ষিপ্ত জবাব দিয়েছে। ভবিষ্যতে কোন পথে এগোনো উচিত, তা বিচারপতিরা ভেবে দেখবেন।

Advertisement

আজ শুনানির সময়ে সলিসিটর জে নারেল জানান, কয়েক জন অফিসার এ নিয়ে বৈঠক করার সুযোগ পাননি। তিনিও ওই অফিসারদের সঙ্গে কথা বলতে পারেননি। তাই হলফনামা দিতে সমস্যা হচ্ছে। কোর্টের কাছে আগামী বৃহস্পতিবার বা আগামী সপ্তাহের সোমবার পর্যন্ত সময় চান তিনি। প্রধান বিচারপতি এন ভি রমণা বলেন, ‘‘কিন্তু আপনারা তো একটি হলফনামা দিয়েছেন?’’ মেহতা জানান, আরও হলফনামা দেওয়া হবে কি না তা আদালত জানতে চেয়েছিল। সেই প্রশ্নের জবাব দেওয়ার জন্য আলোচনা করা যায়নি। আবেদনকারীর আইনজীবী কপিল সিব্বল জানান, সময় দিতে তাঁদের আপত্তি নেই। এর পরে ১৩ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত শুনানি পিছিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় বেঞ্চ। সরকারি সূত্রে খবর, এই বিষয়ে একটি সামগ্রিক অন্তর্বর্তী নির্দেশ দিতে পারে বলে জানিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। তাই কেবল সংক্ষিপ্ত হলফনামা ও সংসদে কেন্দ্রীয় তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রীর বিবৃতির উপরে আর ভরসা করতে চাইছে না মোদী সরকার। ফের হলফনামা দেওয়ার কথা ভাবা হচ্ছে। সে জন্যই সময় চাওয়ার কৌশল নিয়েছিলেন সলিসিটর জেনারেল।

আরও পড়ুন

Advertisement